চাটমোহরে ফসলি জমিতে পুকুর খননের ধুম

স্টাফ রিপোর্টার, পাবনা থেকে

বাংলারজমিন ১৫ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার

পাবনার চাটমোহরে বিভিন্ন বিলে, ফসলি জমি নষ্ট করে অবাধে পুকুর খননের ধুম পড়ে গেছে। আর খনন করা পুকুরের মাটি ট্রাক ও ট্রলিযোগে বিক্রি হচ্ছে অনুমোদনহীন ইটভাটা সহ বিভিন্ন স্থানে। অভিযোগ আছে পুকুর খননের জন্য সরকারি অনুমোদন না থাকলেও কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করে করা হচ্ছে এই কাজ।
সোমবার দুপুরে সরজমিন উপজেলার নিমাইচড়া ইউনিয়নের বিন্যাবাড়ী গৌরনগর ছয়আনী বিলে গিয়ে দেখা যায়, এস্কেভেটর দিয়ে বিলের ফসলি জমি কেটে পুকুর খনন করা হচ্ছে। যাদের  কোনো অনুমোদন নেই। ৫টি মিনি ট্রাক ও ট্রলি দিয়ে মাটি বিক্রি করা হচ্ছে। আর তা ক্রয় করছে স্থানীয় ইটভাটাসহ বিভিন্ন মানুষ। বিলের মাঝখানে নিচু জমি হওয়ায় দূর থেকে দেখে বোঝার উপায় নেই।
খোঁজ নিয়ে জানা গেল, লিটন, বাবু, সাইফুল সহ কয়েকজন এই মাটি কাটা ও বিক্রির সঙ্গে জড়িত। মাটি নিয়ে যাওয়ার কারণে আশপাশের ফসলি জমি ও চলাচলের সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এ বিষয়ে অভিযুক্ত লিটন বলেন, আমাদের অনুমোদন আছে। কোনো সমস্যা নাই। অনুমোদনের কাগজ দেখতে চাইলে ২০২০ সালের একটি ডিসিআর’র কাগজ দেখান। অর্থাৎ ২০২০ সালের অনুমোদনের কাগজ  দেখিয়ে ২০২২ সালে এসেও তারা পুকুর খনন করছেন। তথ্যমতে, গত কয়েকদিনে উপজেলার ছাইকোলা ইউনিয়নের লাঙ্গলমোড়া বিলে, মথুরাপুর ইউনিয়নের চিরইল বিলে, ডিবিগ্রাম ইউনিয়নের খৈরাশ ও কাটাখালী, হরিপুর, নিমাইচড়া ও হাণ্ডিয়াল ইউনিয়নের বিভিন্ন বিলে পুকুর খনন করা হয়েছে। যার কোনোপ্রকার অনুমোদন ছিল না। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ফসলি জমির মালিক মাটিকাটার জন্য স্থানীয় মাটি ব্যবসায়ীর সঙ্গে চুক্তি করে এই কাজ করছেন।
একাধিক সূত্র জানায়, ফসলি জমির সেই মাটি বিক্রি করা হচ্ছে প্রতি গাড়ি ৫শ’ থেকে ৬শ’ টাকায়। কুত্তা গাড়িযোগে বিক্রিত মাটি চলে যাচ্ছে ইটের ভাটাসহ বিভিন্ন স্থানে। এই সকল গাড়ির কারণে সড়কগুলো চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ছে। উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের জানানোর পর তারা পুকুর খনন বন্ধ করে দেন। কিছুদিন বাদে আবার শুরু হয়। এভাবেই চলছে ফসলি জমিতে পুকুর খনন আর মাটি বিক্রির উৎসব। চাটমোহর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বলেন, আমরা খোঁজ নিয়ে লোক পাঠাচ্ছি। যখনই খবর পাচ্ছি, সঙ্গে সঙ্গে বন্ধ করে দিচ্ছি। এদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাও নেয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে মূলগ্রাম ও ডিবিগ্রাম ইউনিয়নে দু’টি স্থানে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। মানুষ সচেতন না হলে প্রতিরোধ করা কঠিন বলেও মনে করেন তিনি।



স্টাফ রিপোর্টার, পাবনা থেকে: পাবনার চাটমোহরে বিভিন্ন বিলে, ফসলি জমি নষ্ট করে অবাধে পুকুর খননের ধুম পড়ে গেছে। আর খনন করা পুকুরের মাটি ট্রাক ও ট্রলিযোগে বিক্রি হচ্ছে অনুমোদনহীন ইটভাটা সহ বিভিন্ন স্থানে। অভিযোগ আছে পুকুর খননের জন্য সরকারি অনুমোদন না থাকলেও কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করে করা হচ্ছে এই কাজ।
সোমবার দুপুরে সরজমিন উপজেলার নিমাইচড়া ইউনিয়নের বিন্যাবাড়ী গৌরনগর ছয়আনী বিলে গিয়ে দেখা যায়, এস্কেভেটর দিয়ে বিলের ফসলি জমি কেটে পুকুর খনন করা হচ্ছে। যাদের  কোনো অনুমোদন নেই। ৫টি মিনি ট্রাক ও ট্রলি দিয়ে মাটি বিক্রি করা হচ্ছে। আর তা ক্রয় করছে স্থানীয় ইটভাটাসহ বিভিন্ন মানুষ। বিলের মাঝখানে নিচু জমি হওয়ায় দূর থেকে দেখে বোঝার উপায় নেই। খোঁজ নিয়ে জানা গেল, লিটন, বাবু, সাইফুল সহ কয়েকজন এই মাটি কাটা ও বিক্রির সঙ্গে জড়িত। মাটি নিয়ে যাওয়ার কারণে আশপাশের ফসলি জমি ও চলাচলের সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এ বিষয়ে অভিযুক্ত লিটন বলেন, আমাদের অনুমোদন আছে। কোনো সমস্যা নাই। অনুমোদনের কাগজ দেখতে চাইলে ২০২০ সালের একটি ডিসিআর’র কাগজ দেখান। অর্থাৎ ২০২০ সালের অনুমোদনের কাগজ  দেখিয়ে ২০২২ সালে এসেও তারা পুকুর খনন করছেন। তথ্যমতে, গত কয়েকদিনে উপজেলার ছাইকোলা ইউনিয়নের লাঙ্গলমোড়া বিলে, মথুরাপুর ইউনিয়নের চিরইল বিলে, ডিবিগ্রাম ইউনিয়নের খৈরাশ ও কাটাখালী, হরিপুর, নিমাইচড়া ও হাণ্ডিয়াল ইউনিয়নের বিভিন্ন বিলে পুকুর খনন করা হয়েছে। যার কোনোপ্রকার অনুমোদন ছিল না। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ফসলি জমির মালিক মাটিকাটার জন্য স্থানীয় মাটি ব্যবসায়ীর সঙ্গে চুক্তি করে এই কাজ করছেন।
একাধিক সূত্র জানায়, ফসলি জমির সেই মাটি বিক্রি করা হচ্ছে প্রতি গাড়ি ৫শ’ থেকে ৬শ’ টাকায়। কুত্তা গাড়িযোগে বিক্রিত মাটি চলে যাচ্ছে ইটের ভাটাসহ বিভিন্ন স্থানে। এই সকল গাড়ির কারণে সড়কগুলো চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ছে। উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের জানানোর পর তারা পুকুর খনন বন্ধ করে দেন। কিছুদিন বাদে আবার শুরু হয়। এভাবেই চলছে ফসলি জমিতে পুকুর খনন আর মাটি বিক্রির উৎসব। চাটমোহর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বলেন, আমরা খোঁজ নিয়ে লোক পাঠাচ্ছি। যখনই খবর পাচ্ছি, সঙ্গে সঙ্গে বন্ধ করে দিচ্ছি। এদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাও নেয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে মূলগ্রাম ও ডিবিগ্রাম ইউনিয়নে দু’টি স্থানে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। মানুষ সচেতন না হলে প্রতিরোধ করা কঠিন বলেও মনে করেন তিনি।

আপনার মতামত দিন

বাংলারজমিন অন্যান্য খবর

অজ্ঞান পার্টির অভিনব কৌশল

সরাইলে সর্বস্ব খুইয়েছেন আনোয়ারা

২১ জানুয়ারি ২০২২

কাগজে-কলমে এখনো নদীতে বিলীন

চাঁপাই নবাবগঞ্জে চরের জমির মালিকানা নিয়ে অনিশ্চয়তা

২১ জানুয়ারি ২০২২

চাঁপাই নবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার ঘোড়াপাখিয়া মৌজার জমি ১৯৯৮ সালে পদ্মার ভাঙনে বিলীন হয়ে যায়। প্রায় ...

রংপুরে নার্সারি ব্যবসায়ীকে অপহরণের মূল হোতাসহ গ্রেপ্তার ২

২১ জানুয়ারি ২০২২

রংপুরে অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়কারী চক্রের মূল হোতাসহ ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এরা হলো- ...

শাহজাদপুরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে ২০৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেপ্তার ২৫

২১ জানুয়ারি ২০২২

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে উপজেলার বাঘাবাড়ি পশ্চিমপাড়া গ্রামে বিবদমান দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের নিহতের ঘটনায় দু’টি মামলায় ...

নরসিংদীতে বড় ভাইয়ের ছুরিকাঘাতে ছোট ভাই খুন

২১ জানুয়ারি ২০২২

নরসিংদীর কামারগাঁওয়ে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আপন বড় ভাইয়ের ছুরিকাঘাতে ছোট ভাই খুন হয়েছে। ...



বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত



নোয়াখালী পৌরসভা নির্বাচন

নৌকার প্রার্থী সহিদ উল্যাহ বিজয়ী

DMCA.com Protection Status