খেলা

শ্রীলঙ্কায় হবে আইপিএল!

স্পোর্টস ডেস্ক

১৪ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার, ১:৫০ অপরাহ্ন

করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনে পর্যুদস্ত ভারত। ক্রমবর্ধমান সংক্রমণে শঙ্কায় পড়েছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) পঞ্চদশ আসর। করোনার প্রকোপ না কমলে ভারতে হবে না আইপিএল। সেক্ষেত্রে বিকল্প ভেন্যু খুঁজছে বিসিসিআই। এরইমধ্যে আইপিএলের আয়োজক হতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে শ্রীলঙ্কা। শোনা যাচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকার নামও।

করোনাভাইরাসের প্রকোপে আইপিএলের ১৪তম আসরের পুরোটা ভারতের মাটিতে আয়োজন সম্ভব হয়নি। বাকি অংশ আরব আমিরাতে শেষ করেছে বিসিসিআই। মাঝে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসায় ভারতীয় বোর্ড ঘোষণা দিয়েছিল, আইপিএলের আগামী সংস্করণ আয়োজিত হবে ভারতেই। তবে করোনার দৌরাত্ম্যে দৃশ্যপট পাল্টাতে শুরু করেছে। যে কারণে বিসিসিআইয়ের খুঁজতে হচ্ছে নতুন ভেন্যু।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বিসিসিআইয়ের চোখ মহারাষ্ট্রের দিকে। এই রাজ্যের চারটি স্টেডিয়ামে আইপিএল আয়োজনের পরিকল্পনা করছে বিসিসিআই। অন্যথায় অন্য দেশের ক্রিকেট বোর্ডের সহায়তা নেবে ভারতীয় বোর্ড। সম্ভাব্য দেশ- শ্রীলঙ্কা ও দক্ষিণ আফ্রিকা।

আইপিএল আয়োজনে আগের আসরেই আগ্রহ প্রকাশ করেছিল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি)। লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের সাধারণ সম্পাদক মোহন ডি সিলভা ক্রিকবাজকে বলেন, ‘আমরা রিপোর্ট দেখেছি এবং শ্রীলঙ্কায় আইপিএল আয়োজন করতে পারলে খুশি হবো। এই বিষয়ে দ্রুতই আমরা বিসিসিআইয়ের সঙ্গে আলোচনা শুরু করবো। শ্রীলঙ্কা কোভিড পরিস্থিতি খারাপ নয় এবং নিঃসন্দেহে আমরা ভালো আয়োজক হবো।’

সম্ভাবনার তালিকায় থাকা দক্ষিণ আফ্রিকা এর আগেও একবার আইপিএলের আয়োজক হয়েছিল। ২০০৯ সালে ভারতে লোকসভা নির্বাচনের কারণে আইপিএল দক্ষিণ আফ্রিকায় আয়োজন করা হয়েছিল।

আইপিএলের ১৫তম আসরে আরো দুটি ফ্র্যাঞ্চাইজি সংযুক্ত হয়েছে, আহমেদাবাদ ও লক্ষ্ণৌ। ইতিমধ্যে বোর্ডের কাছ থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে দল দুটির ফ্র্যাঞ্চাইজি। বেঙ্গালুরুতে ১০ দলের অংশগ্রহণে এবারের নিলাম অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১২ ও ১৩ই ফেব্রুয়ারি। আর এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই পর্দা উঠার কথা আইপিএলের।
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com