বিনোদন

আড়াল ভাঙলেন সিমলা

স্টাফ রিপোর্টার

১৪ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার, ৮:৩৬ অপরাহ্ন

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত চিত্রনায়িকা সিমলা। মাঝেমধ্যেই ডুব দেন। চলে যান আড়ালে। আবার হঠাৎই দেখা দেন। দীর্ঘদিন পর তিনি আবারো আড়াল ভেঙে প্রকাশ্যে এসেছেন। আসন্ন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি নির্বাচন উপলক্ষেই তিনি এখন আসছেন চলচ্চিত্রের আঁতুড়ঘর বিএফডিসিতেও। সিমলা বলেন, সিনেমা আমার মনে, মগজে। সবসময়ই এটা নিয়ে ভাবি। যখন একত্রিত হই তখন বেশি অনুভব হয়। এখন নির্বাচনে সব শিল্পীরা আসছেন। তাদের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। এটা মিস করতে চাইনি। তাই এফডিসিতে যাচ্ছি। অনেক ভালো লাগছে। শিল্পীদের নির্বাচন কেবল উৎসবই সিমলার কাছে। তাই তো এই নির্বাচনে কে হারলো কে জিতলো সেটা গুরুত্ব দেবেন না বলে জানালেন। তিনি বলেন, হারজিত বড় কথা না। আমরা এক জায়গায় আছি এটাই বড় কথা। অনেকদিন ধরে সিনেমা করছেন না। এই জগৎ থেকে একটু বিচ্ছিন্ন রয়েছেন বর্তমানে? কথায় কথায় এই প্রশ্ন রাখলে সিমলা বলেন, বিচ্ছিন্ন বলতে আমি তো টুকরো টুকরো হয়ে যাইনি। এখনো সিনেমাতেই আছি। থাকবো ইনশাআল্লাহ্‌। সিনেমা নিয়েই আমার সকল ভাবনা। কারণ এই সিনেমার কারণেই সবার কাছে সম্মান-ভালোবাসা পাই। এ জগৎ থেকে কী বিচ্ছিন্ন থাকা যায়! সিমলা নতুন একটি খবরও দিলেন। ভারতের একটি চলচ্চিত্রে তিনি অভিনয় করেছেন। যেটি এখন মুক্তির অপেক্ষায়। এ নায়িকা বলেন, ভারতে কাজ করেছি। এই কাজটা যেহেতু মুক্তি পায়নি তাই বিস্তারিত বলা সম্ভব হচ্ছে না। এতটুকু বলতে পারি, কিংস ফিল্ম প্রোডাকশন থেকে আমার একটা সিনেমা রেডি আছে। সবশেষ, সিমলাকে দেখা গেছে ‘নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প’ নামের একটি সিনেমায়। যদিও সিনেমাটি হলে মুক্তি পায়নি। সেন্সর জটিলতার কারণে ইউটিউবে মুক্তি দেয়া হয়। এই সিনেমা থেকে সিমলা ব্যাপক সাড়া পেয়েছেন বলে জানান। তিনি বলেন, প্রথমত ‘নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প’ ছবিটা মুক্তি পেয়েছে এটাই বড় ব্যাপার। দর্শক দেখেছে। খুব ভালো সাড়া পেয়েছি। অনেকের কাছ থেকেই প্রশংসা পেয়েছি। ১৯৯৯ সালে চলচ্চিত্রে পা রেখেছিলেন সিমলা। তার প্রথম ছবি ‘ম্যাডাম ফুলি’। সেই ছবিতেই জিতে নেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এরপর ৩৫টির মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি।
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com