এক্সক্লুসিভ

হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন

ইমেজ ফিরিয়ে আনতে বিতর্কমুক্ত নেতৃত্ব চান তৃণমূল নেতাকর্মীরা

স্টাফ রিপোর্টার, হবিগঞ্জ থেকে

১০ জানুয়ারি ২০২২, সোমবার, ৭:৩৪ অপরাহ্ন

নানা আলোচনা-সমালোচনার পর অবশেষে হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে নতুন কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া শুরু করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। গত ২১শে ডিসেম্বর মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার কথা বলে হবিগঞ্জ জেলা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে কেন্দ্র্রীয় কমিটি। সেই সঙ্গে পরবর্তী ১৫ দিনের মধ্যে নতুন কমিটিতে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশীদের বায়োডাটা জমা দেয়ার জন্য বলা হয়। বায়োডাটা নিতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের তিন নেতাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত মতে গত ২রা জানুয়ারি হবিগঞ্জ টাউনহলে জেলার নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ কর্তৃক দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতা মোহাম্মদ সোহানুর রহমান, মোহাম্মদ রুবেল শিকদার ও ফয়েজ উল্লাহ মানিক। অনুষ্ঠানে তারা জেলা শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশীদের বায়োডাটা গ্রহণ করেন। কেন্দ্রীয় কমিটি প্রার্থীদের বায়োডাটা যাচাই-বাছাই করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন বলে জানিয়েছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতারা। তবে গত কমিটির নানা বিতর্কের কারণে হারানো ইমেজ ফিরিয়ে আনতে বিতর্কমুক্ত নেতৃত্বের দাবি জানান তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে জোর দাবি জানান তারা। সভাপতি পদে বায়োডাটা জমা দিয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফ ই রহমান তন্ময়, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আরিফ বাপ্পী, পৌর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক ফয়জুর রহমান রবিন, পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের আহমেদ পারভেজ, পৌর ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক স্কুল ও ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক ফাহিম চৌধুরীসহ অন্তত ২০ জন। সকল প্রার্থীরা কেন্দ্রীয় ও জেলা ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে নিয়মিত লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন। অনেক প্রার্থীরা কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছেন। সবমিলিয়ে জেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন নিয়ে চাঙ্গা হয়ে উঠেছে জেলায় ছাত্রলীগের রাজনীতি। এবারের কমিটিতে সভাপতি পদে আলোচনায় রয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এমবিবিএস ৩য় বর্ষের ছাত্র সাইফ ই রহমান তন্ময়। তৃণমূলের নেতাকর্মীদের পছন্দের সভাপতি প্রার্থী হিসেবে তন্ময় দীর্ঘদিন থেকে মাঠে কাজ করে আসছেন। গত ২রা জানুয়ারি হাজারের অধিক নেতাকর্মীরা মিছিল সহকারে তন্ময়কে সঙ্গে নিয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতাদের হাতে তার জীবন বৃত্তান্ত প্রদান করেন। সাধারণ নেতাকর্মীদের মতে, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক তন্ময় দলের দুর্দিনের কাণ্ডারী হিসেবে কাজ করে আসছেন। এ ছাড়া সামাজিক কর্মকাণ্ডেও সে জেলায় প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করে আসছে। বিশেষ করে করোনাকালীন সময়ে ব্যক্তিগত ও পারিবারিকভাবে অর্থ সংগ্রহ করে তন্ময় ও তার বন্ধুরা ‘হেল্পিং হ্যান্ড’ নামে একটি সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন। তারা নিজ দলের দুস্থ নেতাকর্মী ও অসহায় কর্মহীন মানুষের জন্য খাদ্য ও চিকিৎসা সহায়তায় দিন-রাত কাজ করেন। তৃণমূলের নেতাকর্মীরা মনে করেন সৎ ও ক্লিন ইমেজের ছাত্রনেতা হিসেবে পরীক্ষিত তন্ময় সভাপতি হলে ঐতিহ্যবাহী জেলা ছাত্রলীগের ইমেজ ফিরিয়ে আনতে পারবেন। তাই সংগঠনের হারানো সুনাম ফিরিয়ে আনতে তারা তন্ময়কে সভাপতি হিসেবে দেখতে চাচ্ছেন। এজন্য তারা কেন্দ্রীয় নেতাদের সুদৃষ্টি কামনা করেন। উল্ল্যেখ্য, ২০১৮ সালের ১০ই ফেব্রুয়ারি হবিগঞ্জে পৌরসভা মাঠে জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে বিশৃঙ্খলা এড়াতে কমিটি গঠন না করে পরে কেন্দ্র থেকে ঘোষণা করা হবে বলে জানান কেন্দ্রীয় নেতারা। পরে ১৩ই ফেব্রুয়ারি ছাত্রলীগ হবিগঞ্জ জেলা শাখার কমিটি অনুমোদন দেন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস আই জাকির হোসাইন। অনুমোদিত কমিটিতে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সাইদুর রহমানকে সভাপতি, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুর রহমান মাহিকে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করা হয়। এদিকে দায়িত্ব পালনের একপর্যায়ে ২০২০ সালের জুলাই মাসে মাধবপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের পদ দেয়ার কথা বলে এক ছাত্রলীগ কর্মীর কাছ থেকে ২০ লাখ টাকা নেয়ার অভিযোগ ওঠে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাঈদুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মহিবুর রহমান মাহির বিরুদ্ধে। বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অভিযোগটি করেন মাধবপুরের ছাত্রলীগ নেতা মাহতাবুর আলম জাপ্পি। বিষয়টি নিয়ে জেলা ও জাতীয় পর্যায়ে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় ওঠে। পরে ২০২০ সালের ৩০শে জুলাই জেলা ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত করে কেন্দ্রীয় কমিটি। কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল নাহিয়ান খান ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা দেয়া হয়। ওই নির্দেশনায় সংগঠনের নীতি-আদর্শ ও শৃঙ্খলাপরিপন্থি কাজে জড়িত থাকায় হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলা ছাত্রলীগের কর্মী মাহতাবুর আলম ওরফে জাপ্পিকে সংগঠন থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়। এরপর থেকে নানা বিতর্কের মধ্যে চলে জেলা ছাত্রলীগের কার্যক্রম।
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com