ভার্জিনিয়ায় উদ্ধার ১৩০ বছরের পুরোনো টাইম ক্যাপসুল

মানবজমিন ডিজিটাল

রকমারি ২৯ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:৫০ পূর্বাহ্ন

ভার্জিনিয়ার রাজধানী রিচমন্ডে এক কনফেডারেট জেনারেল রবার্ট ই লি-এর মূর্তির পাদদেশে খোঁড়াখুঁড়ি চলছিল। তখনই খননকারীরা ১৩০ বছরের পুরোনো ওই টাইম ক্যাপসুলটি উদ্ধার করেন। মাঝারি মাপের চৌকো এই তামার বাক্সটি সম্ভবত ১৮৮৭ সালে মাটির গভীরে পুঁতে রাখা হয়েছিল। টাইম ক্যাপসুল হল এমন এক বাক্স যেটি মাটির গভীরে পুঁতে রাখা হয় ইচ্ছাকৃত ভাবেই। তার ভিতরে রাখা থাকে প্রত্নতাত্ত্বিক গুরুত্ব রয়েছে এমন বেশ কিছু জিনিস। যাতে পরবর্তী কোনও প্রজন্ম সেই বাক্স উদ্ধার করলে, তৎকালীন ইতিহাস ও মানবসভ্যতা সম্পর্কে আধুনিক যুগের মানুষ একটা ধারণা করতে পারে। আপাতত ভার্জিনিয়ায় উদ্ধার হওয়া এই টাইম ক্যাপসুল ঘিরে রীতিমত হৈচৈ পড়ে গেছে। বাক্সটির কিছু অংশ পানিতে ডুবে ছিল।
রাষ্ট্রীয় পরীক্ষাগারের প্রত্নতাত্ত্বিক সংরক্ষক ক্যাথরিন রিডগওয়ে ভেবেছিলেন বাক্সের ভেতরের প্রত্নতাত্ত্বিক দ্রব্যগুলিও হয়তো পানিতে নষ্ট হয়ে গেছে। কিন্তু না ক্যাপসুলের কিছু বিষয়বস্তু স্যাঁতসেঁতে হয়ে গেলেও তা অক্ষুন্ন আছে।

বাক্সটি খোলার পর কর্মকর্তারা, একটি বোতাম, একটি হাতে লেখা চিঠি, ১৮৬৫ সালের রাজনৈতিক ম্যাগাজিন হার্পারস উইকলির একটি স্যাঁতসেঁতে কপি, কনফেডারেট ব্যাঙ্কনোট এবং ফ্রেডেরিকসবার্গের যুদ্ধে ব্যবহৃত একটি শেলের টুকরো উদ্ধার করেন। বাক্সের ভেতর ওপর একটি অংশ থেকে উদ্ধার হয়েছে ১৮৮৩ সালের রৌপ্য মুদ্রা, একটি বাইবেল, রিচমন্ড ডিরেক্টরি এবং একটি মেসোনিক প্রতীক এবং পতাকা, উভয়ই কাঠে খোদাই করা এবং একটি খামে মোড়ানো ছিল। এছাড়াও নর্দার্ন ভার্জিনিয়ার সেনাবাহিনীর ব্যাজযুক্ত একটি খাম ,সৈনিকদের জীবন নিয়ে লেখা একটি বই , ১৮৮৩ সালের একটি সংবাদপত্র মিলেছে বাক্স থেকে। সংরক্ষকরা হার্পারস উইকলি থেকে একটি মুদ্রিত চিত্র খুঁজে পেয়েছেন যা আব্রাহাম লিঙ্কনের কফিনের।

এটাই প্রথম বার নয়। ভার্জিনিয়ায় গত সপ্তাহেই সন্ধান মিলেছিল মাটির গভীরে পোঁতা আর একটি টাইম ক্যাপসুলের। আবার ১৮৮৭ সালে প্রকাশিত এক খবরের কাগজের প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানা যায়, কনফেডারেট জেনারেল রবার্ট ই লি-র মূর্তির তলায় ঠিক এই ধরনের একটি বাক্স রাখা হয়েছিল। শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসার ডেরেক শভিনের অত্যাচারে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর পরে আমেরিকা জুড়ে শুরু হয়েছিল বর্ণবিদ্বেষ-বিরোধী আন্দোলন ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার। সেই সময়েই দাবি উঠেছিল, দাসপ্রথা ও বর্ণবিদ্বেষের প্রতীক ওই সব কনফেডারেট জেনারেলের মূর্তি অবিলম্বে ভেঙে ফেলা হোক। তার পর থেকেই বিভিন্ন প্রদেশে এই ধরনের মূর্তি ভেঙে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কিছু প্রদেশের প্রশাসন।সেই মতোই গত কয়েক দিন ধরে ভাঙা হচ্ছিল রিচমন্ডের ওই মূর্তিটি। তখনই মূর্তির পাদদেশ থেকে উদ্ধার হয় তামার বাক্সটি। জানিয়েছেন ভার্জিনিয়ার গভর্নর রালফ নর্থহাম।

সূত্র : theguardian.com

আপনার মতামত দিন

রকমারি অন্যান্য খবর

এই ফল সোনার থেকেও দামি

৯ নভেম্বর ২০২১



রকমারি সর্বাধিক পঠিত



তৈরী হচ্ছে রেলকোচের ১৬০ প্রকার পণ্য

সৈয়দপুরে অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিকদের কারিশমা

DMCA.com Protection Status