শিক্ষকের মৃত্যুর জের, কুয়েট বন্ধ ঘোষণা

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে

প্রথম পাতা ৪ ডিসেম্বর ২০২১, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:৪৬ পূর্বাহ্ন

অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেনের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে সৃষ্ট পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে আগামী ১৩ই ডিসেম্বর পর্যন্ত খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। একইসঙ্গে বিকাল ৪টার  মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। গতকাল দুপুর ১২টায় সিন্ডিকেটের ৭৬তম সভা শেষে কুয়েটের ভিসি অধ্যাপক কাজী সাজ্জাত হোসেন এ তথ্য জানান। এদিকে হঠাৎ হল ত্যাগের নির্দেশনায় ভোগান্তিতে পড়েছেন শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণার পর ক্যাম্পাস ছাড়তে শুরু করলেও বাস বা ট্রেনের টিকিট পাওয়া নিয়ে অনেকের মধ্যে শঙ্কা দেখা দেয়। ক্যাম্পাস খোলার কিছুদিনের মধ্যে আবার বন্ধ ঘোষণা করায় পিছিয়ে পড়ার আশঙ্কাও করছেন শিক্ষার্থীরা।
হারুণ নামে যন্ত্রকৌশল বিভাগের তৃতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী জানান, ‘হঠাৎ করে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা শিক্ষার্থীর জন্য চরম ভোগান্তির। ট্রেনের টিকিট পেলে বাড়ি যাব। আর না পেলে কি করবো, ভাবতে পারছি না।’ আরেক শিক্ষার্থী তানভীর বলেন, ‘করোনার বন্ধের পর গত ২৫শে অক্টোবর ক্যাম্পাসে এসেছিলাম।
আবার বন্ধ হয়ে গেল। এখন পড়াশোনা শেষ করতে কতদিন লাগবে জানি না।’ তবে অনেকেই বলেছেন, যেহেতু তদন্তের স্বার্থে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে, তাই আমরা চাই সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত দোষীরা চিহ্নিত হোক। এদিকে বেলা সাড়ে ৩টার দিকে ছাত্রলীগের একাংশ আবাসিক হল না ছাড়ার জন্য প্রশাসন ভবনের সামনে অবস্থান নেয়। ঘণ্টাখানেক অবস্থান শেষে বিকাল ৪টার দিকে তারা প্রশাসন ভবনের সামনে থেকে সরে যায়।
এর আগে বেলা ১১টায় খুলনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছে কুয়েট শাখা ছাত্রলীগ। এ সময় তারা তদন্ত ছাড়া কাউকে বহিষ্কার না করার দাবি তুলেছেন। শিক্ষক সেলিমের স্বাভাবিক মৃত্যুকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তারা। লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন এই ঘটনায় অভিযুক্ত কুয়েট ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সাদমান নাহিয়ান সেজান। এ সময় তাদের কর্মসূচি পালনের ঘোষণাও দেয়া হয়।
উল্লেখ্য, নিজের মনোনীত প্রার্থীকে কুয়েটের লালন শাহ হলের ডিসেম্বর মাসের ডাইনিং ম্যানেজার নির্বাচিত করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদমান নাহিয়ান সেজান হল প্রভোস্ট ড. সেলিম হোসেনকে নিয়মিত হুমকি দিয়ে আসছিলেন। তারই ধারাবাহিকতায় গত ৩০শে নভেম্বর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সাদমান নাহিয়ান সেজানের নেতৃত্বাধীন ছাত্রলীগের একটি গ্রুপ ক্যাম্পাসের রাস্তা থেকে ড. সেলিম হোসেনকে জেরা করা শুরু করে। পরে তারা শিক্ষককে অনুসরণ করে তার ব্যক্তিগত কক্ষে (তড়িৎ প্রকৌশল ভবন) প্রবেশ করে। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, তারা আনুমানিক আধঘণ্টা ওই শিক্ষকের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করে। পরে ওই শিক্ষক ড. সেলিম হোসেন দুপুরে খাবারের উদ্দেশ্যে ক্যাম্পাস সংলগ্ন বাসায় যান। দুপুর ২টা ৩০ মিনিটের দিকে তার স্ত্রী লক্ষ্য করেন তিনি বাথরুম থেকে বের হচ্ছেন না। পরে দরজা ভেঙে তাকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের একটি অংশের দাবি ছাত্রলীগ নেতাদের মানসিক নির্যাতনের ফলেই কুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ও লালন শাহ হলের প্রাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মো. সেলিম হোসেন হার্ট অ্যাটাকে মারা যান। এটাকে হত্যাকাণ্ড দাবি করে দোষীদের শাস্তিতে উত্তাল হয়ে ওঠে কুয়েট ক্যাম্পাস।

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

আতঙ্ক

২৫ জানুয়ারি ২০২২

শাবি শিক্ষার্থীদের প্রতি সংহতি, প্রতীকী অনশন

আন্দোলনে অনড়

২৫ জানুয়ারি ২০২২

অর্ধেক জনবলে চলবে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান

২৫ জানুয়ারি ২০২২

করোনা সংক্রমণ রোধে অর্ধেক সংখ্যক কর্মকর্তা-কর্মচারী দিয়ে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করতে নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ...

পাস হচ্ছে কাল

দুই বিষয় সংশোধন করে ইসি আইন চূড়ান্ত

২৫ জানুয়ারি ২০২২

ডলার সংকট দাম বাড়ছে

২৫ জানুয়ারি ২০২২

ইসি গঠনে আইন

সংসদের ভেতরে বাইরে বিতর্ক

২৪ জানুয়ারি ২০২২

রাজনৈতিক নেতাদের প্রতিক্রিয়া

এ আইন প্রশ্নবিদ্ধ

২৪ জানুয়ারি ২০২২

সুজনের সংবাদ সম্মেলন

নাগরিক সমাজের সন্দেহ

২৪ জানুয়ারি ২০২২

শাবি ভিসি’র বাসভবন ঘেরাও

২৪ জানুয়ারি ২০২২

পুলিশ সপ্তাহের উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

গণতন্ত্র সমুন্নত রাখতে কাজ করতে হবে

২৪ জানুয়ারি ২০২২

শনাক্ত ৩১ শতাংশ ছাড়িয়েছে

৯৭,৩৯৪ রোগী বাসায়

২৪ জানুয়ারি ২০২২



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত



সুজনের সংবাদ সম্মেলন

নাগরিক সমাজের সন্দেহ

রাজনৈতিক নেতাদের প্রতিক্রিয়া

এ আইন প্রশ্নবিদ্ধ

রেহাই পাচ্ছে না পুলিশও

অজ্ঞান পার্টির দাপট

শাবি শিক্ষার্থীদের প্রতি সংহতি, প্রতীকী অনশন

আন্দোলনে অনড়

DMCA.com Protection Status