পরিবহন মালিকদের দাবি- এনায়েত উল্যাহর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন (১ মাস আগে) ডিসেম্বর ৩, ২০২১, শুক্রবার, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৯:৩০ অপরাহ্ন

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহর বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে বলে অভিযোগ করেছেন পরিবহন মালিকরা। তারা বলছেন, শিক্ষার্থীদের হাফ পাস বাস্তবায়নসহ সব সময় পরিবহন মালিকরা সরকারের পাশে থেকে সহযোগিতা করে যাচ্ছে। এজন্য একটি চক্র তার বিরুদ্ধে উঠে পড়ে লেগেছে।

একাধিক পরিবহন নেতা গণমাধ্যমের কাছে অভিযোগ করেন, সম্প্রতি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় সরকারের অনুরোধে শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ ভাড়া কার্যকর করেছেন। যারা এই আন্দোলনকে ভিন্নখাতে নিয়ে ফায়দা লোটার চেষ্টা করেছে। তারা এখন ষড়যন্ত্র করছে। আন্দোলন যাতে ভিন্নখাতে চলে যায় তারা সেই চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

মালিক সমিতির নেতারা আরও বলেন, বিগত সময়ে হরতাল-অবরোধের সময় পরিবহন মালিকরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। ৯২ জন চালককে পুড়িয়ে হত্যা করাসহ বহু যানবাহন পোড়ানো হয়েছে।
তখনও সরকারের নির্দেশে মালিকরা রাস্তায় ছিলো। তাছাড়া করোনা মহামারির সময় খন্দকার এনায়েত উল্যাহ পরিবহন মালিক ও শ্রমিক ও চালকদের পাশে ছিলেন। তিনি সংগঠনের পাশাপাশি তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকেও সহায়তা করে গেছেন। ফলে তিনি পরিবহন মালিকদের প্রাণ হয়ে উঠেছেন। এই সুযোগেই একটি সংঘবদ্ধচক্র তার বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র করছে।

জানতে চাওয়া হলে খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, আমি দীর্ঘদিন ধরে পরিবহন সেক্টরটিকে শৃঙ্খলায় আনার জন্য সরকারের সঙ্গে কাজ করছি। নানা আন্দোলন সংগ্রামে সরকারের পাশে ছিলাম। ছাত্র আন্দোলনের সময় সরকারের পাশে থেকে কাজ করেছি। এখন আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। তারা নানা মিথ্য ও ভুয়া তথ্য দিয়ে আমাকে হেয় করার চেষ্টা করছে। এজন্য বিপুল পরিমাণ অর্থ খরচ করছে।

তিনি আরও বলেন, সরকারের পাশে থেকে পরিবহন সেক্টরের নানা অসঙ্গতি দূর করার চেষ্টা করে যাচ্ছি। পরিবহন খাতে অবৈধ চাঁদাবাজি বন্ধসহ শৃঙ্খলা আনার জন্য সরকারের সঙ্গে কাজ করছি।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Anwarul Azam

২০২১-১২-০৩ ০২:৪৫:০১

দঃখজনক। মন্তব্য পড়লাম। কোথায় যেন গ্যাপ রয়েছে।

মাক

২০২১-১২-০৩ ০১:৫৯:২১

কোভিডের সময় সরকারি এমন কি উনার নিজের পকেট থেকে মালিক শ্রমিক দের সহযোগিতার কথা বলা হয়েছে, কিন্তু আমার দুই তিন জন বন্ধু পরিবহন ব্যাবসার সাথে জড়িত রয়েছে, কোরোনার এই মহামারিতে তারা খুব ফিনান্সিয়াল কষ্টে ছিলো, কই, তখন তো পরিবহন মালিক সমিতির কোন বড় নেতা, পাতি নেতা কাওকে দেখলাম না তো দুই টাকা দিয়ে ওদের কে সাহায্য করতে। আর চাদাবাজীর কথা কিছু নাইবা বললাম।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



ফেনী আইনজীবী সমিতির নির্বাচন

বিএনপি-জামায়াত ১০টি, আওয়ামী লীগ ৪টিতে জয়ী

DMCA.com Protection Status