খালেদা জিয়াকে সুচিকিৎসার জন্য অনতিবিলম্বে বিদেশে পাঠানোর আহ্বান ২৩ বিশিষ্ট নাগরিকের

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন (১ মাস আগে) ডিসেম্বর ১, ২০২১, বুধবার, ৭:২৪ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১১:০৭ পূর্বাহ্ন

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে সুচিকিৎসার জন্য অনতিবিলম্বে বিদেশে পাঠানোর আহ্বান জানিয়েছেন ২৩ বিশিষ্ট নাগরিক। এক বিবৃতিতে তারা বলেন, গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ অনুসারে, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা এখন আশংকাজনক পর্যায়ে রয়েছে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন দূরারোগ্য রোগে ভূগছেন এবং করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর তার অবস্থার ক্রমেই আরো অনেক অবনতি হয়েছে।

সরকারের কাছে বেগম জিয়ার পরিবার সুচিকিৎসার জন্য তাকে অবিলম্বে বিদেশে পাঠানোর সুযোগ দেয়ার অনুরোধ করেছে।  আমরা সরকারকে এই অনুরোধ সহৃদয়তার সাথে বিবেচনা করে বেগম জিয়াকে অনতিবিলম্বে বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ দেয়ার আহবান জানাচ্ছি। সরকার এধরনের মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি দেখালে তা উন্নত রাজনৈতিক সংস্কৃতি সৃষ্টির জন্যও ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে বলে আমরা মনে করি। বিবৃতিদাতারা হলেন- ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, অধ্যাপক আহমেদ কামাল, অধ্যাপক স্বপন আদনান, আলোকচিত্রী শহিদুল আলম, অধ্যাপক পারভীন হাসান,  অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, অধ্যাপক ড. শাহনাজ হুদা, মানবাধিকার কর্মী শিরিন  হক, নূর খান লিটন, রেহনুমা আহমেদ,  হানা শামস আহমেদ, নারী নেত্রী ফরিদা আখতার ও ডা. নায়লা জেড খান,  ড. নাসরিন খন্দকার, মির্জা তাসলিমা সুলতানা, অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস, অধ্যাপক মাইদুল ইসলাম , এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, এডভোকেট হাসনাত কাইযুম, গবেষক রোজিনা বেগম, সংস্কৃতিকর্মী অরূপ রাহী, সাংবাদিক সায়েদা গুলরুখ, সমাজকর্মী নাসের বখতিয়ার।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi

২০২১-১২-০২ ০০:০৭:১৭

বুদ্ধিজীবীদের মাঝে দলাদলি না থাকলে তাদের বক্তব্য গুরুত্বপূর্ণ হত। যারা বক্তব্য দিয়েছেন তারা বিএনপির সমর্থক, তাই আওয়ামীলীগ ঘরানার বুদ্ধিজীবীরা সমর্থন দিবে না, সরকার ও গুরুত্ব দেবে না। এটাই বাংলাদেশের ট্র্যাজেডি । তাছাড়া ক্ষমতায় থাকাকালীন হাসিনার উপর গ্রেনেড হামলার আছড় তো থাকবেই।

কালাম ফয়েজী

২০২১-১২-০২ ০৮:১২:৫৬

স্বনামধন্য ও খ্যাতিমান গুণী মহানুভব ব্যক্তিদের এ সত্যনিষ্ঠ বিবৃতিকে স্বাগত জানাই। ভাবছি বুদ্ধিজীবীদের বুদ্ধি এবং বিবেকবানদের বিবেক এখনো বুঝি একেবারে নি:শেষ হয়ে যায় নি। ধন্যবাদ

য়াবুল

২০২১-১২-০২ ০৭:৪৩:৪৪

ইন ডিমিনিটি আইন করে দেশে আইনের শাসনকে নস্ট করে দিয়েছিল।

Zahir uddin

২০২১-১২-০১ ০৭:১৭:৩১

আমরা একটা সাধারণ কথা জানি আইন মানুষের জন্য আইনের জন্য মানুষ নয় কিন্তু অত্যন্ত দুঃখ এবং লজ্জার সঙ্গে লক্ষ্য করছি বেগম খালেদা জিয়ার বেলায় তার ঠিক উল্টোটা এ ব্যাপারে মাননীয় প্রধান বিচারপতি এবং আপিল বিভাগের বিচারপতিগণের অতি শীঘ্রই হস্তক্ষেপ কামনা করছি। সময় শেষ হয়ে গেলে আমরা কেউই এই দায়ভার এড়াতে পারব না মনে রাখতে হবে আমরা কেউই বিচারের ঊর্ধ্বে নয়। এ বিষয়টা বিচার ব্যবস্থার উপর সাধারণ মানুষের আস্থা পুনরুদ্ধারের জন্য বিচারপতিগণের একটা বিশেষ সুযোগ বলে আমি মনে করি। এটা একটা দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। কারণ এখানে অভিযুক্ত বলেন আর নিরপরাধ বলেন ব্যক্তিটি হল দেশের রাজনীতিতে সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব এ ব্যাপারে কোনো দ্বিমত আছে বলে আমি মনে করিনা।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

গণফোরামের প্রতিনিধি দলের প্রশ্ন

শাবির শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে কেনো রাজনীতিকরণ করা হচ্ছে?

২৫ জানুয়ারি ২০২২

টিআই’র প্রতিবেদন প্রকাশ

দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ১৩তম

২৫ জানুয়ারি ২০২২



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status