‘এবার মেসির ব্যালন ডি’অর জেতাটা রীতিমতো কেলেঙ্কারি’

স্পোর্টস ডেস্ক

খেলা ১ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ৭:২৫ অপরাহ্ন

২৩ বছর পর আর্জেন্টিনাকে কোনো শিরোপা উপহার দিয়েছিলেন লিওনেল মেসি সপ্তমবারের জিতলেন ব্যালন ডি’অর। সবাই যখন মেসি বন্ধনায় ব্যস্ত, তখন বিপরীত পথে হাঁটলেন জার্মানের সাবেক ফুটবলাররা। তাদের মতে ব্যালন ডি’অর নির্বাচনের প্রক্রিয়াটা যথাযথ ছিল না। তাদের মতে এবারের মেসির ব্যালন ডি’অর জেতাটা রীতিমতো একটা কেলেঙ্কারি।

নির্বাচিত ১৮০ জন সাংবাদিকের ভোটে ব্যালন ডি’অরের জন্য মনোনীত করা হয় ৩০ জন ফুটবলার। এরপর বিশেষজ্ঞ ৫০ জন সাংবাদিক তালিকা ছেঁটে করেন ৫ জনের। এরপর শুরু হয় ভোটাভুটি। ভোটার বিশ্বের বিভিন্ন জাতীয় দলের কোচ ও অধিনায়কেরা। এই ভোটাভুটিতে ৬১৩ পয়েন্ট পেয়ে এবারের ব্যালন ডি’অর জিতেন লিওনেল মেসি।
দ্বিতীয় সেরা বায়ার্ন মিউনিখের রবার্ট লেভানদোভস্কি পেয়েছেন ৫৮০ পয়েন্ট। লেভানদোভস্কিকে টপকে মেসির ব্যালন ডি’অরের এই ফল কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না জার্মানরা। জার্মানির সংবাদমাধ্যম, সাবেক ও বর্তমান খেলোয়াড় সবাই মিলে সমালোচনার ঝড় বইয়ে দিচ্ছেন। জার্মানির পত্রিকা বিল্ড ব্যালন ডি’অর নিয়ে তাদের লেখা খবরটির শিরোনাম দিয়েছে এ রকম, ‘এটা কীভাবে সত্যি হয়! এটা রীতিমতো একটা কেলেঙ্কারি।’

২০২০ সালের ব্যালন ডি’অর জয়ের লড়াইয়ে একচ্ছত্রভাবে এগিয়ে ছিলেন লেভানদোভস্কি। ২০১৯-২০ মৌসুমে বায়ার্নকে চ্যাম্পিয়নস লীগ, জার্মান কাপ ও জার্মান সুপার কাপ জেতাতে বড় ভূমিকা রাখেন তিনি। কিন্তু গত বছর করোনাভাইরাস মহামারির কারণে পুরস্কারটি দেয়নি ফ্রান্স ফুটবল। গত মৌসুমেও লেভা ছিলেন দুর্দান্ত। বায়ার্নকে বুন্দেসলিগা ও জার্মান সুপার কাপ জিতিয়েছেন তিনি। বুন্দেসলিগা জয়ের পথে গড়েছেন অনন্য এক গোলের রেকর্ড। ৪১ গোল করে ভেঙেছেন বুন্দেসলিগায় এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলের কিংবদন্তি গার্ড মুলারের ৪৯ বছরের রেকর্ড। এ মৌসুমেও পোলিশ স্ট্রাইকার আছেন দারুণ ছন্দে।

এখন পর্যন্ত বায়ার্নের হয়ে ২০ ম্যাচ খেলে করেছেন ২৫ গোল। অন্যদিকে মেসি গত মৌসুমে ক্লাব ফুটবলে তেমন কিছুই জিততে পারেননি। বার্সেলোনার জার্সিতে ভুলে যাওয়ার মতো একটি মৌসুমই কাটিয়েছেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। এ মৌসুমে পিএসজিতে নাম লেখালেও চোটে অনেকটা সময়ই ছিলেন মাঠের বাইরে। তবে এ বছর আর্জেন্টিনার হয়ে কাটিয়েছেন শিরোপা খরা। প্রথমবারের মতো জাতীয় দলের হয়ে জিতেছেন বড় কোনো শিরোপা। মেসি নিজেও মনে করেন, আর্জেন্টিনার হয়ে ২০২১ কোপা আমেরিকা জয়ই তাঁকে এনে দিয়েছে ক্যারিয়ারের সপ্তম ব্যালন ডি’অর। কিন্তু এসব যুক্তি মানতে পারছেন না বিশ্বকাপ জয়ী জার্মানির সাবেক অধিনায়ক লোথার ম্যাথাউস।

ব্যালন ডি’অর পুরস্কার ঘোষণার পর ১৯৯০ বিশ্বকাপ জয়ী ম্যাথাউস বলেছেন, ‘লিওনেল মেসি এবং মনোনীত বাকি সব খেলোয়াড়ের প্রতি পূর্ণ শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, লেভানদোভস্কির চেয়ে বড় দাবিদার আর কেউই নয়। ফ্রান্স ফুটবল গত বছর পুরস্কারটি দেয়নি। তবে শুধু শিরোপার হিসাব করা হলেও ২০২০ সালে লেভানদোভস্কি ব্যালন ডি’অর জয়ে ছিল অপ্রতিদ্বন্দ্বী।’

বর্তমান খেলোয়াড়দের মধ্যে লেভার ব্যালন ডি’অর জিততে না পারা নিয়ে কথা বলেছেন রিয়াল মাদ্রিদের জার্মান মিডফিল্ডার টনি ক্রুস। তাঁর কথা, ‘এমনটা ঘটা উচিত হয়নি।’ রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক গোলকিপার ইকার ক্যাসিয়ার এর সঙ্গে যোগ করেন, ‘কোনো সন্দেহ নেই যে দশকের সেরা ফুটবলার মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তবে এ বছর তাদের দুজনের চেয়ে অন্যরা এগিয়ে আছে।’

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর

বাংলাদেশে ফিরলেন রোডস

১৭ জানুয়ারি ২০২২

জয়ে ফিরলো লিভারপুল

১৭ জানুয়ারি ২০২২

বৃত্ত ভাঙলো পিএসজি

১৭ জানুয়ারি ২০২২

২৮শে নভেম্বর, ফরাসি লীগ ওয়ানের ম্যাচে সেন্ট এঁতিয়েনকে ৩-১ গোলে হারায় প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। ...



খেলা সর্বাধিক পঠিত



অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ

জয়ে শুরু অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কার

DMCA.com Protection Status