ওয়ান স্টপ সার্ভিস চান প্রবাসী বিনিয়োগকারীরা

এম এম মাসুদ, যুক্তরাজ্য থেকে ফিরে

এক্সক্লুসিভ ২৪ নভেম্বর ২০২১, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:২০ অপরাহ্ন

একটা সময় ছিল যখন যুক্তরাজ্যে বসবাসকারী বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা মাতৃভূমির টানে বিনিয়োগে আগ্রহী হতেন। কিন্তু এখন নতুন প্রজন্ম তৈরি হয়েছে। তাদের দেশের সঙ্গে সরাসরি  যোগাযোগ কম। এ প্রজন্মকে বিনিয়োগে আকৃষ্ট করতে হলে সব ধরনের বিনিয়োগ সেবা সহজ ও অনলাইনভিত্তিক করতে হবে। পাশাপাশি বিনিয়োগ পরিবেশ তৈরিসহ সব ধরনের সেবা এক জায়গায় তথা ওয়ান স্টপ সার্ভিস দরকার।
সম্প্রতি বাংলাদেশে বিনিয়োগ টানতে যুক্তরাজ্যের লন্ডন ও ম্যানচেস্টারের গুরুত্বপূর্ণ শহরে ‘বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্ভাবনা’ শীর্ষক সম্মেলন যৌথভাবে আয়োজন করে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি), বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) ও যুক্তরাজ্যের বাংলাদেশ দূতাবাস। সম্মেলনে মানবজমিনের সঙ্গে কথা হয় যুক্তরাজ্যে বসবাসরত বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের সঙ্গে। বাংলাদেশের সঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন ব্যবসায়ীরা।

ম্যানচেস্টারে ব্যবসারত আমিন বাবর চৌধুরী বলেন, একটা সময় আমরা যারা যুক্তরাজ্যে বসবাস করছি, ব্যবসা করছি, তারা মাতৃভূমির টানে বিনিয়োগে আগ্রহী ছিলাম। কিন্তু এখন নতুন প্রজন্ম তৈরি হয়েছে। তারা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হলেও দেশের সঙ্গে তাদের সরাসরি কানেকশন নেই। ডিজিটাল এই প্রজন্মকে বিনিয়োগে আকৃষ্ট করতে হলে সব ধরনের বিনিয়োগ সেবা সহজ ও অনলাইনভিত্তিক করতে হবে।
ইকবাল আহমেদ জানান, তিনি দেশ থেকে আম আমদানিতে বেশ আগ্রহী। কিন্তু এ জন্য যেসব সুবিধা দরকার, সেগুলোতে বাংলাদেশ এখনো পিছিয়ে আছে। আমরা যুক্তরাজ্যে রপ্তানি বাড়াতে পণ্যবাহী কার্গো বিমানসেবা চালুর সুবিধা চাই।
ম্যানচেস্টারের বিনিয়োগ সম্মেলনে গত এক যুগে বাংলাদেশের অর্থনীতির বদলে যাওয়ার গল্প তুলে ধরা হয়। সেই সম্মেলনে সিমার্ক গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী ইকবাল আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর গড়ে ৫ কোটি ডলার বা ৪০০ কোটি টাকার প্রক্রিয়াজাত মাছ ও নানা ধরনের শাকসবজি আমদানি করে সিমার্ক গ্রুপ। সরাসরি কার্গো বিমানের ফ্লাইট চালু করা হলে বাংলাদেশ থেকে রপ্তানি আরও বাড়বে। উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, যেমন; ইউরোপে সবজির চাহিদা ব্যাপক রয়েছে। বাংলাদেশে উন্নতমানের শাক-সবজি উৎপাদন হয়। দেশেও কৃষিভিত্তিক শিল্প গড়ে উঠছে। দামও সস্তা। তখন পৃথিবীর সব জায়গায় আমরা রপ্তানি করতে পারবো। বাংলাদেশের আম খুবই ভালো মানের। এটা কেনার জন্য ইউরোপের সুপার শপগুলোতে মানুষ হুড়োহুড়ি করে।
যুক্তরাজ্যের লন্ডনে বসবাসরত আরেক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্যবসায়ী এম আর চৌধুরী মাহতাব বলেন, আমরা এখন বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে চাই। প্রয়োজনে বৃটিশ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে নিয়ে দেশে বিনিয়োগ করবো। তিনি বলেন, এর মধ্যেই একটা প্রজেক্ট হাতে নিয়েছি। যেখানে বৃটিশ ব্যবসায়ীরা যুক্ত থাকবেন। তারা রেলপথ ও সমুদ্র বন্দর উন্নয়নে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। ইতিমধ্যেই সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করা হচ্ছে।

আপনার মতামত দিন

এক্সক্লুসিভ অন্যান্য খবর

২২ বিচারক ও অ্যাটর্নি জেনারেল করোনা আক্রান্ত

১৮ জানুয়ারি ২০২২

বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে বুনিয়াদি প্রশিক্ষণে অংশ নিতে আসা ২২ জন বিচারক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ...

ক্লাইমেট স্মার্ট প্রযুক্তির উদ্ভাবন ও হস্তান্তর বৃদ্ধির তাগিদ

১৩ জানুয়ারি ২০২২

ঢাকায় দুই দিনব্যাপী  ‘কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তা’ শীর্ষক সপ্তম ডি-৮ কৃষিমন্ত্রী পর্যায়ের সভা শুরু হয়েছে। ...

চট্টগ্রামের গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকতকে পর্যটন সংরক্ষিত এলাকা ঘোষণা

১২ জানুয়ারি ২০২২

 চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকতকে পর্যটন সংরক্ষিত এলাকা হিসেবে ঘোষণা করেছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ...

গার্মেন্টস পণ্য কেনাবেচায় ‘ফেব্রিক লাগবে’ অ্যাপের উদ্বোধন

১২ জানুয়ারি ২০২২

 টেক্সটাইল ও রেডিমেট গার্মেন্টস কারখানায় ব্যবহৃত যাবতীয় পণ্য ক্রয়-বিক্রয়, ট্রেডিং এবং সাপ্লাইয়ে বাংলাদেশে প্রথম ও ...

আইভীর প্রচারণায় একদিন

কখনো রিকশায় কখনো পায়ে হেঁটে যাচ্ছেন ভোটারদের কাছে

১১ জানুয়ারি ২০২২

হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন

ইমেজ ফিরিয়ে আনতে বিতর্কমুক্ত নেতৃত্ব চান তৃণমূল নেতাকর্মীরা

১০ জানুয়ারি ২০২২



এক্সক্লুসিভ সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status