সাম্প্রদায়িক হামলা

‘ভবঘুরে’ ইকবাল গ্রেপ্তারে যে সকল প্রশ্নের সুরাহা জরুরি

কাজল ঘোষ

মত-মতান্তর ২২ অক্টোবর ২০২১, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:৪০ পূর্বাহ্ন

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ‘ভবঘুরে’ ইকবালকে কক্সবাজার থেকে কুমিল্লায় আনা হয়েছে। পুলিশ বলেছে সে ভবঘুরে। এছাড়াও খবরে প্রকাশ সে নাকি মাদকাসক্ত। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, একজন ভবঘুরে বা পাগল কি করে সারাদেশে সাম্প্রদায়িক হামলার ফিতা কাটলো? কুমিল্লায় মন্দিরে কোরআন রাখলো আর দেশজুড়ে হামলা, আগুন, লুট শুরু হয়ে গেল। বিষয়টি কি এত সহজ? অঙ্কের হিসাবে দুইয়ে দুইয়ে চার, এটাই কি? নিশ্চয় তা নয়। এতোটা সরল অঙ্ক ভাবার কোনো কারণ নেই।

ধর্মীয় অবমাননার অভিযোগ এনে একটি সম্প্রদায়ের কোটি কোটি মানুষের উৎসবকে কান্নায় রূপান্তরের ঘটনা একজন ভবঘুরে ইকবালকে দিয়ে হয়ে গেল? সাধারণ মানুষ যেমন এটি বিশ্বাস করছে না। খোদ সরকারও তা বিশ্বাস করে না। পুলিশও একই প্রশ্ন করছে গ্রেপ্তার হওয়া ইকবালকে নিয়ে।
সরকারি দল বা সনাতন সম্প্রদায়ের নেতারাও প্রশ্ন তুলেছেন এ নিয়ে। এর পেছনে কারা তাদের মুখোশ উন্মোচন জরুরি।

কক্সবাজারে শনাক্ত হওয়া আসামী গ্রেপ্তারের পর বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত সাংবাদিকদের বলেছেন, ইকবাল হোসেন নামে যাকে চিহ্নিত করা হয়েছে, তার নামের আগে একটা শব্দ জুড়ে দিল। সেটা হলো ভবঘুরে। কখনো কখনো এমন যাদের ধরা হয়, কখনো বলে পাগল, না হলে বলে ভবঘুরে। এই ভবঘুরে কীভাবে পবিত্র কোরআন শরিফ চিনল? এটি কোনো ভবঘুরের কাজ হতে পারে না। এটি পূর্বপরিকল্পিত ঘটনা। চক্রান্তকারীরা পেছনে আছে। এদের বের করা রাষ্ট্র ও সরকারের দায়িত্ব।

চিহ্নিত হওয়া ইকবালকে নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামালও সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বলেছেন, কাজটি পরিকল্পনা মাফিক করা হয়েছে। এর পেছনে কেউ রয়েছে। তদন্ত সংশ্লিষ্টরাও এমন বেশকিছু প্রশ্ন নিয়ে কাজ করছেন।

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য দৃষ্টান্ত বলে আমরা পরিচয় দিতে গর্ববোধ করি। কিন্তু নিকট অতীতের এই ঘটনা আমাদের আত্মপরিচয়কে প্রশ্নের মুখে ফেলেছে। নতুন করে ভাবিয়ে তুলেছে আমরা কি এমন দেশ চেয়েছিলাম? এমন দেশের জন্যই কি একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিল? একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তেই বাংলাদেশের জন্ম। অথচ পঞ্চাশ বছর পরেও একটি সম্প্রদায়ের মানুষ চরম নিরাপত্তহীনতায় দিন কাটাচ্ছে। তাই অবিলম্বে ইকবালের পেছনে কারা, তাদের খুঁজে বের জরুরি। আর দেশজুড়ে হামলা ছড়িয়ে দেয়ার নেপথ্যের পরিকল্পনাকারী কারা তাদেরকে শনাক্ত করে বিচারের আওতায় আনা দরকার। না হলে বরাবরের মতোই বিচারহীনতার জটে আটকা পরে যাবে ঘটনার মূল হোতারাও।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

rifat

২০২১-১০-২৮ ১৫:৪৪:৩৭

@আবুল কাসেম সুদীর্ঘ বকবক গুছিয়ে পোস্ট করার আগে ঘটনার গভীরতা আরও মানবিকভাবে ভেবে কমেন্ট করবেন। আপনার রাজনৈতিক কন্সপিরেসি টাইপ বাজে অভিযোগকারী দেশে কম নেই। আপনাদের কোন নির্মম ঘটনা ঘটলেই দেখা যায় ভারতকে টেনে আনেন। আরে ভাই এখন সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে গেলেই দেখা যায় দেশ কতটা মৌলবাদে অসুস্থ। এমনকি ভারতের একটি সস্তা বলিউড অভিনেত্রীর পেজে গিয়েও বাংলাদেশীরা কমেন্ট করে নামাজ পড়ুন এই সেই। আগে নিজের দেশের মানসিক স্বাস্থ্যর কথা ভাবুন ঘটনাকে কন্সপিরেসি থিওরি বানাবেন না যেটা আপনাদের স্বভাব।

Morshed Bhuiyan

২০২১-১০-২২ ০৫:২৯:৫৯

ঘঠনাস্হলের পাশের বাড়ীর হিন্দু ছেলেটি পরের দিন ফেইস বুকে পোষ্ট দিয়ে বলেছিল ঘঠনার রাএে ৩ - ৩.৩০ মিঃ এর মত সেখানে তারা ৩ জন ছিল ঐ সময় পূজা মন্ডপ ও মুর্তি সবই ঠিকই ছিল এমনকি তাদেরকে নাকি রাএে ৩ টার দিকে পুলিশ ঐসে জিজ্ঞাসা ও করেছে অথচ আজ দুদিন ধরে শুনছি সাদা পেকেট নিয়ে যাওয়া ইকবাল ২ টা কত মিনিটে কোরান শরীপ মসজিদ থেকে ( যেহেতু মসজিদ উদের ভাষায় খোলা থাকে ) নিয়ে মূর্তিতে রেখেছে পরে আবার বলছে মাজারের দুই জন দিয়েছে আবার আধুনিক সি সি টিভির ক্যামেরা ও কখনও গুরিয়ে কখনও জুম করে কখনও শব্দ করিয়ে রেকর্ড করছিল আরো মজার বিষয় হলো ৬ টি হিন্দু পরিবারের বসবাস এলাকায় এবারই দূর্গা পূজায় ভারতের সাথে মিল রেখে হনুমানের মূর্তিও রেখেছে আর সকল জায়গায় সি সি টিভির ক্যামেরা থাকলেও শুধু মাএ এবারই প্রথম এত জৈলুস পূর্ন ঐ পূজা মন্ডপে জন্য কোন সি সি টিভির ক্যামেরার ব্যাবস্হা রাখতে পারে নাই এটা ও আপসোস করার বিষয় বটে।

Ferdous

২০২১-১০-২২ ০৫:০৮:২১

সহজ সমাধান। যে আগে দেখল এবং Facebook এ পোস্ট দিল তাকে ধরেন আর রাম ধোলাই দিলে সুরসুর করে বলে দিবে। এত বছর পূজা হলো কোন কিছু হলো না বরং অনেক আনন্দে উত্সব পালন করলো। fac3 এ পোস্ট করা লোক যদি মানুষ হতো তাহলে চুপিচুপি কোরআন শরীফ সরিয়ে ফেলত। কারণ এটা একটা ধর্মীয় sentiment ।

আবুল কাসেম

২০২১-১০-২২ ০৪:০৩:৫২

প্রশ্ন-১. হঠাৎ করে শেষ রাতের দিকে রাত যখন ভোর হওয়ার কাছাকাছি পূজামণ্ডপের বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে বাতি নিভে গেলো কেনো, কেমন করে? প্রশ্ন-২. সুক্ষ্ম কোনো পরিকল্পনাকারী, যে বা যারা মূর্তির পায়ের নিচে কুরআন মজিদ রাখলো সে বা তারা কি মণ্ডপের বাতি নিভিয়ে দিয়েছে? প্রশ্ন-৩. যদি তা-ই হয় তাহলে 'ভবঘুরে', 'মাদকাসক্ত' ইকবালের পক্ষে কি তা করা সম্ভব? প্রশ্ন-৪. মাদকাসক্ত ও ভবঘুরে ইকবাল স্থানীয় কাউন্সিলর সহ সকলের পরিচিত ছিলো। প্রশ্ন-৫. পশ্চিম বাংলা থেকে বিজেপি নেতা শুভেন্দু বলেছেন, বাংলাদেশের পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় তিনি কয়েকগুন বেশি ভোট পাবেন। তিনি বেশি ভোট পাওয়ার জন্য কার ইন্ধনে এসব লঙ্কাকাণ্ড ঘটে গলো? প্রশ্ন-৬. নানা ছুতায় বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের মামলা হামলা দিয়ে কাবু করা হচ্ছে দশবারো বছর ধরে। এই ঘটনার পরে চট্টগ্রামে বিএনপির তিনজন জেলবন্দীকেও আসামি করা হয়েছে এবং নূরের দলের কয়েকজনকে এরেস্ট করা হয়েছে। তাতে কি বুঝা যায়, এই ঘটনা কাকতালীয়, নাকি পূর্বপরিকল্পিত, রাজনৈতিক সুবিধা লাভের জন্য করা হয়েছে? প্রশ্ন-৭. পূজামণ্ডপের আলো নিভিয়ে দেওয়ার কিছুক্ষণ আগে সেখানে কয়েকজন যুবকের সঙ্গে পুলিশের কথোপকথন হয়েছে। কি কথা হয়েছে? যুবকেরা কারা? বাতি নিভিয়ে দেওয়ার কিছুক্ষণ আগে পুলিশ স্থান ত্যাগ করেছে কেনো? প্রশ্ন-৮. নাশকতার পরিকল্পনার কিছুই কি গোয়েন্দা সংস্থা টের পায়নি? যেখানে বিরোধী দলের কয়েকজন নেতা বা কর্মীর ঘরোয়া বৈঠকের আগাম খবর তারা পেয়ে যেতে অসুবিধা হয়না। সর্বশেষঃ যদি দেখা যায়, বিরোধিতা রাজনৈতিক দলের কাউকে অহেতুক ফাঁসানো হয়েছে তাহলে জনগণের কাছে অতীতের গায়েবি মামলার মতো ভিন্ন একটা বার্তা যাবে। হ্যাঁ, যদি ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকে তাহলে কোনো কথা নেই। তবে, লাখ লাখ মামলা ও হামলায় জর্জরিতরা এমন একটা কাণ্ড ঘটানোর ক্ষমতা রাখে কিনা তাও একটা প্রশ্ন। কিন্তু, ভবঘুরে ইকবালের মাথা থেকে এতো বড়ো লঙ্কাকাণ্ড ঘটানোর পরিকল্পনা বের হয়েছে এবং তার যে সামাজিক অবস্থান ও যোগ্যতা তা হিসেবে নিয়ে বলা যায়, তার নিজের একার পক্ষে এতো বড়ো লঙ্কাকাণ্ড ঘটানো অসম্ভব।

Salim Khan

২০২১-১০-২২ ০২:৩৮:০১

অতীতের ঘটনাগুলোর বিচার হলে না কেন? সেগুলোর প্রতিবেদন কি? জাতি জানতে চায়। নইলে মানুষের ধারনা সরকারের ষড়যন্ত্র সেটাই আমরা ধরে নেব।

আপনার মতামত দিন

মত-মতান্তর অন্যান্য খবর

আইন, অধিকার, গণতন্ত্র

২৩ নভেম্বর ২০২১



মত-মতান্তর সর্বাধিক পঠিত



দেখা থেকে তাৎক্ষণিক লেখা

কোটিপতিদের শহরে তুমি থাকবা কেন?

কাওরান বাজারের চিঠি

ছবিটির দিকে তাকানো যায় না

DMCA.com Protection Status