অশনি সংকেত

সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী

প্রথম পাতা ২০ অক্টোবর ২০২১, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:০১ অপরাহ্ন

বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির জন্য বিশ্বে বিখ্যাত। কিন্তু সহসা দেশে যে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা দেখা যাচ্ছে এটা ভয়ঙ্কর ঘটনা। এ ধরনের ঘটনা কখনো  কাম্য  নয়। এটা খুবই দুঃখজনক। এর আগে কখনো এই ধরনের সাম্প্রদায়িক সহিংসতা আমরা দেখিনি। আমরা দেখি যে,  এসব ঘটনা ঘটলে তদন্তের আগেই অপরাধীকে চিহ্নিত করা হয়। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়, এটি বিরোধী দলের কাজ। আর বিরোধী দল বলে সরকারের ভেতরের লোকের কাজ।
পরস্পরবিরোধী বক্তব্যে আসল অপরাধী ধরা পড়ে না। অপরাধকে আরও উৎসাহ দেয়া হয়। আগেও পূজার সময় প্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। সেসব ঘটনার সঠিক তদন্ত করে বিচার হয়নি বলেই আজ সহিংসতা ছড়িয়ে পড়েছে। সরকার আন্তরিক হলে অবশ্যই আসল অপরাধীকে ধরা সম্ভব। এ ঘটনার সূত্রপাত যেখান থেকে শুরু তার তদন্ত আগে করতে হবে।
কারা পূজামণ্ডপে কোরআন শরীফ নিয়ে গেল। কেন তারা এ কাজ করলো। কিংবা কি তাদের অভিপ্রায় ছিল। কারা এটি সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দিলো তার কারণ আগে খুঁজে বের করতে হবে। গোয়েন্দাদের তো জানার কথা এটা কারা করেছে। কোনো ধর্মপ্রাণ মসুলমানের পক্ষে এ কাজ করা সম্ভব নয়। আবার হিন্দুদের পক্ষেও এটি সম্ভব না। কুমিল্লার ঘটনার রেশ ধরেই পরবর্তী সহিংসতাগুলো হয়েছে। তাহলে কী সহিংসতা ছড়াতেই এ ঘটনা ঘটিয়েছে। যারা এ কাজ করেছে তারা হয়তো ভাবছে মস্তবড় কাজ করেছে। অপরাধের যে নগ্ন রূপ আমরা দেখেছি এটি দেশের জন্য একটা অশনি সংকেত। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোনো গুজবকে কেন্দ্র করে সহিংসতার ঘটনা দিনে দিনে বেড়ে চলেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে আমরা বিনোদন হিসেবে নিয়েছি। এতদিন এর শুধু সুফল দেখেছি। আসলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম মানুষকে আসক্ত করে ফেলেছে। সামাজিকতা থেকে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ভয়ঙ্কর দিক আমরা দেখতে পেলাম  রংপুরের পীরগঞ্জের জেলে পল্লীতে। একটি গুজবকে কেন্দ্র করে একটি পল্লীকে জ্বালিয়ে দেয়া হলো। সম্প্রতি ফেসবুকের এক কর্মকর্তাও এর ক্ষতিকর দিক তুলে ধরেছেন। শুধু মুনাফার জন্যই কাজ করে এই সামাজিক  যোগাযোগ মাধ্যমগুলো।
আমাদের দেশে তরুণ সম্প্রদায় হতাশাগ্রস্ত, মাদকাসক্ত হওয়ার কারণে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের মধ্যে বেশি অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ক্ষতিকর দিকগুলো কীভাবে প্রতিকার করা যায় তা নিয়ে আমাদের এখনই ভাবতে হবে। তা-না হলে দেশে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা আরও বাড়বে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

shiblik

২০২১-১০-২০ ২৩:৩৩:৫৬

অশনি সংকেতটা বহু বছর আগে মওলানা ভাসানি দিয়ে গিয়েছিলেন।

Md Hidayat ullah

২০২১-১০-১৯ ২২:২৯:৩০

ওনারা{সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী )জ্ঞানী লোক।কিন্তু ওনারা জাতিকে কেবল বিভক্তিরদিকেই ঠেলে দিয়েছেন।

Monir

২০২১-১০-২০ ০৯:৫৭:৪৪

১৯৪৭ এ দেশভাগ হয়েছে ধর্মের ভিত্তিতে, হিন্দুদের দেশ ভারত, মুসলমানের পাকিস্তান । পাকিস্তানের সাথে আমাদের ধর্ম নিয়ে যুদ্ধ হয়নি । তাহলে এখন কেন এদেশকে ধর্ম নিরেপেক্ষ বলা হয় ? এদেশে হিন্দুদের প্রভাব বৃদ্ধি করতেই কি এই নতুন তত্ত্ব ?

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

বৃটেন, জার্মানি, ইতালিতে শনাক্ত

২৯ নভেম্বর ২০২১

বৃটেন, জার্মানি, ইতালিতে শনাক্ত হয়েছে করোনাভাইরাসের ভয়াবহ ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন। নতুন এই ভ্যারিয়েন্টকে কেন্দ্র করে আবার ...

আবরার হত্যা

রায় ঘোষণা ৮ই ডিসেম্বর

২৯ নভেম্বর ২০২১

নির্বাচন কমিশন

সংসদের গত সেশনেই আইন করার সুযোগ ছিল

২৯ নভেম্বর ২০২১

নির্বাচন কমিশন

আগামী দুই অধিবেশনের মধ্যে ইসি গঠনের আইন

২৯ নভেম্বর ২০২১

করোনায় আরও তিনজনের মৃত্যু

২৯ নভেম্বর ২০২১

গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ২৭ হাজার ...

হাফ ভাড়ায় নারাজ মালিকরা

আন্দোলনে অনড় শিক্ষার্থীরা

২৮ নভেম্বর ২০২১



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত



কেমন আছেন খালেদা জিয়া

বিএনপি’র নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

১০০০ ইউপি নির্বাচন আজ

বিনা ভোটে জয়ী ৫৬৯ জন

হাফ ভাড়ায় নারাজ মালিকরা

আন্দোলনে অনড় শিক্ষার্থীরা

DMCA.com Protection Status