গণআন্দোলন গড়ে তোলাই মূল লক্ষ্য: ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন (১ মাস আগে) সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১, রোববার, ১:৫০ অপরাহ্ন

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, একটি ফ্যাসিস্ট দানবীয় সরকার নির্বাচন না করেই ক্ষমতায় বসে আছে। আমাদের এখন মূল লক্ষ্য হবে এদেশের মানুষকে সাথে নিয়ে একটি গণআন্দোলন গড়ে তোলা। ইনশাআল্লাহ আমরা নবগঠিত কৃষকদলের এই কমিটির মাধ্যমে সেটা করতে সফল হবো ।
রোববার রাজধানীর চন্দ্রিমা উদ্যানে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মাজার জিয়ারত শেষে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে নবগঠিত কৃষক দলের নেতাদের নিয়ে মাজার জিয়ারত ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন তিনি।
জাতিসংঘ সফরে প্রধানমন্ত্রীর কি অর্জন দেখছেন এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, অর্জন তার একটাই, আরো বেশি মিথ্যাচার কিভাবে করা যায়। আপনারা লক্ষ্য করবেন, দেশে গণতন্ত্র নেই। দেশে মানুষের অধিকারগুলো হরণ করা হয়েছে। দেশে নির্বাচন কমিশনকে সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে। নির্বাচন ব্যবস্থার সাথে জড়িত সকল প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী কিভাবে এই সমস্যাগুলোর সমাধান করবেন জাতিসংঘে দেয়া তার গোটা বক্তব্যের কোথাও তিনি তা উল্লেখ করেন নাই।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে মিথ্যাচার করেছেন। তার বিরুদ্ধে পত্রপত্রিকায় যেসব লেখালেখি হয়েছে তা খ-ানোর জন্য দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সম্পর্কে তিনি অনেকগুলো নেতিবাচক কথা বলেছেন। আমরা তার এই মিথ্যাচারের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। পাশাপাশি আমরা আশা করি দেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরিয়ে দেয়ার জন্য সরকারের শুভবুদ্ধির উদয় হবে এবং তারা পদত্যাগ করে একটি নিরপেক্ষ নির্বাচনী সরকার ব্যবস্থার মাধ্যমে ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করবেন। যাতে সত্যিকার অর্থে একটি জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা হতে পারে।
তিনি বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে এখন পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী বলুন আর এই সরকার বলুন কেউ ইতিবাচক ভূমিকা পালন করেনি। এখন পর্যন্ত তারা এই সমস্যা সমাধানের পথ বের করতে পারেনি। তারা এই ইস্যুটাকে জিইয়ে রেখে একটি আন্তর্জাতিক সুবিধা গ্রহণের চেষ্টা করছে।
এসময় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী, প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, কৃষক দলের সভাপতি কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন, সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বাবুল, সিনিয়র সহ- সভাপতি হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, সহ- সভাপতি অ্যাডভোকেট গৌতম চক্রবর্তী, যুগ্ম সম্পাদক প্রকৌশলী টিএস আইয়ুব, যুগ্ম সম্পাদক মোশারফ হোসেন এমপি ও দপ্তর সম্পাদক মো. শফিকুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

khaled

২০২১-০৯-২৭ ০০:৫৯:১৮

Mr. Fakrul, you had better resign from your post. you are good for nothing.

hjj

২০২১-০৯-২৬ ২১:৪০:৩৩

৩৬৫ দিন ফুল দিয়ে .. করা, কোন ইসলাম ?????

Munir Hossain

২০২১-০৯-২৬ ০৬:০৯:৩৭

ফখরুল সাহেব কে দিয়ে কোন কিছুই হবেনা উনি শুধু বলবে বন্দু গন আমাদের কে এটা করতে হবে ওটা করতে হবে

আবুল কাসেম

২০২১-০৯-২৬ ০১:১৮:৫৭

গণআন্দোলন তর্জন গর্জন হাওয়ায় যেন মিলিয়ে না যায়। কথাটা যেন কথার কথা না হয়। Do ro Die. আপনারা নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবেননা। আন্দোলন করে তত্বাবধায়ক সরকারের দাবিও আদায় করতে পারবেননা। এই অবস্থা চলতে থাকলে বিএনপি মানুষের মন থেকে বিলীন হয়ে যেতে পারে। তবে জনগণকে বুঝাতে সক্ষম হন, কেন আপনারা নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করছেননা তার যৌক্তিকতা কি তাহলে হয়ত জনগণ আপনাদেরকে আরেকটি সুযোগ দিতে পারে। কিন্তু, আন্দোলনের ব্যর্থতা জনগণ মেনে নেবে কোন যুক্তিতে? শুধু ক্ষমতায় যাবেন, মন্ত্রী হবেন এই আশায় বসে থাকলে আম চালা দুটোই খোয়াতে হবে। জনগণের জন্য কর্মসূচি দিন। দ্রব্য মূল্য বৃদ্ধির জন্য বানিজ্য ও গুম নিখোঁজের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি দিন। কোন কোন জায়গায় মানুষের অধিকার ক্ষুন্ন হচ্ছে দেখুন, মানুষের অধিকারের দাবীতে সোচ্চার হোন, কর্মসূচি দিন। Do or Die.

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status