তবে কি সম্পর্কের বরফ গলছে দুই কোরিয়ার!

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন (৩ সপ্তাহ আগে) সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১, রোববার, ১১:৪২ পূর্বাহ্ন

তবে কি দুই কোরিয়ার মধ্যকার সম্পর্কের বরফ গলতে শুরু করেছে! একে অন্যের সঙ্গে পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও পক্ষপাতিত্বহীন এক বিরল সম্পর্ক গড়ে তুলছে! অন্তত দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইনের বক্তব্যের পর উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের মূল উপদেষ্টা ও তার প্রভাবশালী বোন কিম ইয়ো-জংয়ের কথাবার্তায় তারই ইঙ্গিত মিলছে। অনলাইন গার্ডিয়ান লিখেছে, উত্তর কোরিয়ায় প্রভাবশালী হিসেবে দেখা হয় কিম ইয়ো-জংকে। তিনি উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে একটি আন্তঃসম্মেলন হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন। বলেছেন, এমনটা হতে পারে শুধুমাত্র পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও পক্ষপাতিত্বহীনতার নিশ্চয়তার ভিত্তিতে। দুই দিনের মধ্যে শনিবার এটা তার দ্বিতীয় বিবৃতি। দক্ষিণ কোয়িার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন আনুষ্ঠানিকভাবে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে তার রাষ্ট্রের যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটানোর ঘোষণা দেয়ার আহ্বান জানান। এরপরই শুক্রবার কিম ইয়ো-জং দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, পিয়ংইয়ংয়ের বিরুদ্ধে শত্রুতাপূর্ণ নীতির ইতি ঘটাতে হবে।

উল্লেখ্য, ১৯৫০ সাল থেকে ১৯৫৩ সালের মধ্যে দুই কোরিয়ার মধ্যে যুদ্ধ বন্ধ হয় অস্ত্রবিরতির মধ্য দিয়ে। এক্ষেত্রে কোনো শান্তিচুক্তি হয়নি। ফলে কৌশলগত দিক দিয়ে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া কমপক্ষে অর্ধ শতাব্দীর বেশি সময় একে অন্যের বিরুদ্ধে যুদ্ধে লিপ্ত থেকেই যায়। বিশ্লেষকরা বলেন, দক্ষিণ কোরিয়া সুর নরম করেছে। তাই আন্তঃকোরিয়া যোগাযোগের মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইনের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে চাইছে উত্তর কোরিয়া। এই চাপ এই জন্য যে, মুন জায়ে-ইন যাতে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে দেয়া যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন অবরোধ শিথিল করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে উদ্বুদ্ধ করেন। উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক অস্ত্র কর্মসূচির বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র অবরোধ দিয়েছে। তাই উত্তর কোরিয়া চাইছে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া যেন যৌথ সামরিক মহড়া স্থগিত করে। এ অবস্থায় উত্তর কোয়িার সরকারি বার্তা সংস্থা কেসিএনএ’তে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এমন একটি আন্তঃকোরিয়া সম্মেলনে পক্ষপাতিত্বহীনতা এবং একে অন্যের প্রতি শ্রদ্ধার বিষয়টিতে গ্যারান্টি চেয়েছেন কিম ইয়ো-জং। তিনি আরো বলেছেন, গঠনমূলক আলোচনার মাধ্যমে এমন আন্তঃকোরিয়ান সম্মেলনের তারিখ চূড়ান্ত করা যেতে পারে। সুর আরো নরম করেছেন তিনি। বলেছেন, উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার একে অন্যের ত্রুটি ধরে অথবা বাকযুদ্ধ চালিয়ে আর সময় নষ্ট করা উচিত নয়। শুক্রবারের বিবৃতিতে তিনি দক্ষিণ কোরিয়াকে অসম দ্বিমুখী অবস্থান পরিত্যাগের আহ্বান জানান।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

আসলে কি ঘটছে পাকিস্তানে!

১৮ অক্টোবর ২০২১



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status