স্কুলে যেতে চেয়ে তালেবানদের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন আফগান কিশোরী

মানবজমিন ডিজিটাল

অনলাইন (৩ সপ্তাহ আগে) সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১, শনিবার, ৫:৩৮ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৩:২১ অপরাহ্ন

'আমি একটি নতুন প্রজন্মের মেয়ে, আমি শুধু খাওয়া, ঘুমানো এবং বাড়িতে থাকার জন্য জন্মাইনি। আমি স্কুলে যেতে চাই। দেশের উন্নয়নের জন্য কাজ করতে চাই  এবং তার জন্য শিক্ষার গুরুত্ব অপরিসীম।' এভাবেই গোটা বিশ্বের কাছে কাতর আর্জি জানিয়েছেন এক আফগান কিশোরী। তার ভিডিও রীতিমতো ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।  এক আফগান সাংবাদিক বিলাল সারোয়ারি টুইটারে শেয়ার করার পর আফগান কিশোরীর এই ভিডিও ক্লিপটি ভাইরাল হয়। কিশোরীর সাহসিকতার জন্য তাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন নেটিজেনরা।  এক মিনিটের দীর্ঘ ভিডিওতে, তাকে তালেবান নেতাদের উদ্দেশ্যে নির্ভয়ে বলতে শোনা গেছে যে, 'আল্লাহর কাছে যখন পুরুষ এবং নারী উভয়ই সমান তখন তালেবান কেন মেয়েদের তাদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত করছেন'। তার কথায় আফগানিস্তানের মেয়েরা যদি শিক্ষা না পায়, তাহলে আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম আমাদের থেকে কী আশা করবে? শিক্ষার গুরুত্ব তুলে ধরে মেয়েটি যোগ করেছে, 'আমরা যদি শিক্ষা না পাই, তাহলে এই পৃথিবীতে আমাদের কোনও মূল্য থাকবে না'।  আফগানিস্থানের মসনদ কবজা করার পর তালেবানরা মেয়েদের পড়াশোনায় বাধা দিতে শুরু করেছে।  দেশে ছেলেদের পড়াশোনার জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে স্কুল। কিন্তু মেয়েদের ভবিষ্যৎ এখনও প্রশ্নের মুখে। তাঁদের স্কুল কবে খুলবে, নেই কোনও নিশ্চয়তা।
এর আগে তালেবান নেতৃত্ব জানিয়েছিল, উচ্চশিক্ষায় কোনওভাবেই ছেলে-মেয়েদের এক সঙ্গে ক্লাস করতে দেওয়া যাবে না। সেক্ষেত্রে ক্লাস রুমে পর্দা দিয়ে ছেলে-মেয়েদের আলাদা করে বসার ব্যবস্থা করা যেতে পারে। কাবুলের একটি বেসরকারি স্কুলের শিক্ষকের প্রস্তাব ছিল ছেলে  ও মেয়দের আলাদা আলাদা সময়ে ক্লাস করার ব্যবস্থা হতে পারে। ছেলেদের ক্লাস নেবেন পুরুষ শিক্ষকরা। মেয়েদের ক্লাস নেবেন শিক্ষিকারা। তবে সবই রয়েছে আলোচনার স্তরে। এদিকে আফগানিস্তানে মহিলা শিক্ষা নিয়ে ‘গভীর উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছে রাষ্ট্রসঙ্ঘ। দ্রুত উঁচু ক্লাসের মেয়েদের স্বাভাবিক স্কুল শুরু করার দাবি জানিয়েছে তারা।  এসবের মাঝেই আফগান কিশোরীর এই কাতর আর্জি আগামীদিনে  আরো প্রতিবাদীদের জন্ম দেবে বলে মনে করছেন বিশ্বের শিক্ষা মহল।  

সূত্রঃ : দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

shahab

২০২১-০৯-২৬ ০৮:৫৫:৫৮

Whose in power I don't care. I like to say must be need to girls education. Open please girl school collage and university.

Kazi

২০২১-০৯-২৫ ১৬:৪৩:৪৫

Taliban does not worth recognition. They not only killed 4 people but also hang them in 4 different squares. They are cruel Hayena. Not human.

Mohammad Chowdhury

২০২১-০৯-২৬ ০১:১২:০০

Faltu Indian agenda.

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

ইভ্যালি পরিচালনায় বোর্ড গঠন-

সাবেক বিচারপতি মানিককে চেয়ারম্যান করে চার সদস্যের কমিটি

১৮ অক্টোবর ২০২১

স্কুলের আয়া নিয়োগে কলেজছাত্রীকে দিয়ে সাজানো পরীক্ষা!

১৮ অক্টোবর ২০২১

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরের মতিরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে আয়া নিয়োগে কলেজছাত্রীকে দিয়ে সাজানো পরীক্ষার অভিযোগ উঠেছে। মোটা অঙ্কের ...



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



তদন্ত কমিটি গঠন

চাঁদপুরে সংঘর্ষ, নিহত ৩

DMCA.com Protection Status