জানেন আমেরিকায় অতিথিদের জন্য কী কী উপহার নিয়ে গেলেন মোদি?

মানবজমিন ডিজিটাল

অনলাইন (৪ সপ্তাহ আগে) সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১, শনিবার, ৪:৫৮ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১১:০৪ পূর্বাহ্ন

ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথমবার কমালা হ্যারিসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আত্মিক সম্পর্ক রয়েছে ভারতের । প্রথম সাক্ষাতে ভারতীয় বংশোদ্ভূত কমালা হ্যারিসকে সেই শিকড়ের সঙ্গে দেখা করালেন মোদি । তার মায়ের বাবা অর্থাৎ দাদুর সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে এমন একটি সরকারি নোটিফিকেশনের কপি মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্টের হাতে তুলে দিলেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী। তার দাদু শ্রী পি ভি গোপালন ছিলেন সরকারি কর্মচারী। তার স্মৃতিসম্বলিত সেই নোটিফিকেশনের কপি বাঁধিয়ে কমালাকে  উপহার দেয়া হলো।   এছাড়া ভাইস প্রেসিডেন্ট  হ্যারিসকে  একটি বারানসীর  মিনাকারি হাতের কাজ করা দাবার বোর্ডওউপহার দিয়েছেন মোদি। দাবা বোর্ডের উজ্জ্বল রংগুলি যেন বারানসীর স্পন্দনকে প্রতিফলিত করছিলো মার্কিন দরবারে । মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলাপচারিতার পর তাকে 'অনুপ্রেরণার আধার' হিসেবে উল্লেখ করেছেন মোদি।
এ প্রসঙ্গে তার টুইট, 'ভাইস প্রেসিডেন্ট হ্যারিসের সঙ্গে মোলাকাত করতে পেরে আমি আপ্লুত। তিনি বিশ্বের কাছে অনুপ্রেরণা।' কোয়াডের নেতাদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী। অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে তার । তাকেও বারানসীর  মিনাকারি হাতের কাজ করা রুপোর একটি ময়ূরপঙ্খী জাহাজ উপহার দিয়েছেন তিনি। জাপানের প্রধানমন্ত্রীকে চন্দন কাঠের একটি বুদ্ধমূর্তি উপহার দিয়েছেন মোদি।  ভারত এবং জাপানকে একসূত্রে বাঁধার কাজ করেছে বৌদ্ধ ধর্ম। গৌতম বুদ্ধের চিন্তনেই উদ্বুদ্ধ জাপান। সেই দেশ সফরের সময় একাধিক বৌদ্ধ মন্দির দর্শন করেছিলেন  মোদি। প্রথা অনুযায়ী এই সমস্ত হাইভোল্টেজ বৈঠকে  উপহার বিনিময় করে সৌজন্য দেখান রাষ্ট্রনেতারা। সেই উপহারের তালিকাতেও নজর কাড়ল ভারত। কৌশলে আমেরিকা, জাপান এবং অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় করা হলো। চমক ছিল মার্কিন প্রেসিডেন্টের জন্যও।  এবারের মার্কিন সফরে জো বাইডেনের হাতে ভারতে বসবাসকারী তাঁর পরিজনদের সম্পর্কে তথ্য তুলে দিয়েছেন মোদি।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

শওকত আলী

২০২১-০৯-২৭ ১৭:২২:২৫

ভারতের মুসলমানদেরকে হত্যা ও দেশ থেকে বিতাড়িত/উচ্ছেদ করার জন্য উপহার-সামগ্রী দিয়ে আমেরিকাকে খুশি রাখতে চাচ্ছে। ভারতের মুসলমানদের জন্য একমাত্র পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জোরালো প্রতিবাদ জানালেও অন্য কোন মুসলিম শাসকেরা একেবারে নিরবতা পালন করে যাচ্ছে। প্রতিবেশি দেশ হয়েও আমাদের দেশের সরকার কোন প্রতিবাদ এ পর্যন্ত করতে দেখেনি।

Kazi

২০২১-০৯-২৫ ১২:০০:১৩

বাইডেনের জন্য কিছু নিলেন না ? আসল ক্ষমতা তো বাইডেনের হাতে । একেই বলে Discrimination.

জামশেদ পাটোয়ারী

২০২১-০৯-২৫ ২০:০৮:০৩

আমেরিকার সহায়তা করা ছাড়া চীনকে মোকাবেলা করা মোদির পক্ষে সম্ভব নয়। তাই ঠিক ঐ জোটের (আমেরিকা, জাপান এবং অষ্ট্রেলিয়া) সাথেই উপহার বিনিময় করলেন। আফগানিস্তানে আমেরিকার কাছ থেকে এত বড় ধাক্কা খাওয়ার পরও আমেরিকা মোদির বিষয়ে নিজেদের স্বার্থ ছাড় দিবেনা তা বুঝেও মোদির আমেরিকা থেকে দুরে থাকার কোন উপায় নাই। কারণ ইতিমধ্যেই মোদি আমেরিকার বুকে ঢুকে রাশিয়াকে হারিয়েছে।

Khaja

২০২১-০৯-২৫ ০৫:১৬:১৭

নরেন্দ্র মোদির লজ্জা শরম বলতে কিছু নেই। নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের জন্য কেম্পেইন করে এখন কমলা হারিছের কৃপা লাভের চেষ্টা করছে।

Amirswapan

২০২১-০৯-২৫ ০৪:৩৯:৪৮

যেকোন আমেরিকান প্রেসিডেন্ট ভারতের যেকোন প্রধানমন্ত্রীকে একটু আলাদা স্নেহকরবেনততদিন, যতদিন চীনের সাথে ভারতের দা-মাছ সম্পর্ক থাকবে।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



বাইডেন মনোনীত বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত

২০২৩ সালের নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্পূর্ণ গণতান্ত্রিক অংশগ্রহণে কাজ করবো

DMCA.com Protection Status