বিশ্বকাপে ‘কোয়ারেন্টিন’ ধোঁয়াশায় বাংলাদেশ!

স্পোর্টস রিপোর্টার

খেলা ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, শুক্রবার

মিরপুরে নেট অনুশীলনে নুরুল হাসান সোহানের সঙ্গে অপারেশন্স কমিটির ডেপুটি ম্যানেজার শাহরিয়ার নাফীস
সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ৩রা সেপ্টেম্বর, আইসিসি বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব টি-টোয়েন্টির আসর খেলতে ওমান যাবে টাইগাররা।  সেখানেই হবে প্রস্তুতি দলের ক্যাম্প। এমনটাই জানা গেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সূত্রে। তবে করোনার এই মহামারির বিশ্বে ক্রিকেটারদের যে কোনো সফরের সঙ্গে জড়িয়ে গেছে কোয়ারেন্টিন ও বায়ো বাবলের মতো কঠিন শর্ত। তবে ওমানে মাত্র ১ দিন কোয়ারেন্টি করে পার পেলেও দুবাইয়ে বিশ্বকাপের মূল পর্বে আইসিসির শর্ত অনুসারে থাকতে হবে ৬ দিন কোয়ারেন্টিনে। আর সেটি না করতে চাইলে আগে থেকেই বায়ো বাবলে থেকে চাটার্ড বিমানে যেতে হবে দুবাইয়ে। তবে এসবই এখনও পরিকল্পনা। আইসিসি থেকে সঠিক কোনো গাইডলাইন এখনো পায়নি বিসিবির মেডিকেল বিভাগ। সেটি না পাওয়া পর্যন্ত একরকম ধোঁয়াশাতেই আছে বাংলাদেশ।
গতকাল বিসিবি’র মেডিকেল বিভাগের প্রধান দেবাশিষ চৌধুরী ওমান ও দুবাইয়ে বাংলাদেশ দলের কোয়ারেন্টিন ও বায়ো বাবল নিয়ে নির্দিষ্ট করে কোনো তথ্য দিতে পারেননি। বিশ্বকাপের মাত্র ১ মাস বাকি থাকলেও এখনো বিসিবি জানেই না তাদের করণীয় কী! এ বিষয়ে দেবাশিষ চৌধুরী বলেন, ‘আইসিসি ওয়ার্ল্ডকাপের মেডিকেল প্ল্যানও আমরা পূর্ণাঙ্গভাবে পাইনি। তো সব মিলিয়ে আমরা আশা করি আগামী দুই একদিনের মধ্যে আমরা ওয়ার্ল্ডকাপের মেডিকেল প্ল্যান এবং ওমান থাকাকালীন কিভাবে আমরা আগাবো সে ব্যাপারে একটা পূর্ণাঙ্গ ডিসিশন নেয়া যাবে।’ বিশ্বকাপের আগে প্রস্ততি ম্যাচের ভেন্যু ওমানে ক্যাম্প আয়োজন করবে বাংলাদেশ। স্বস্তির খবর সেখানে মাত্র ১ দিন কোয়ারেন্টিন শেষে অনুশীলন শুরু করতে পারবে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দল। এ বিষয়ে দেবাশিষ চৌধুরী বলেন, ‘আপাতত আমাদের কাছে যে ইনফরমেশন আছে ওমানে এখান থেকে করোনা  টেস্টর নেগেটিভ রিপোর্ট নিয়ে যেতে হবে। সবাইকে ভ্যাক্সিনেশন সম্পন্ন করতে হবে। আমরা যতটুকু জানি যে ওখানে ২৪ ঘণ্টার একটি কোয়ারেন্টাইন পিরিয়ডের কথা বলা আছে। এটা সম্পন্ন করে আমাদের প্র্যাকটিসটা চালিয়ে যেতে পারবো।’ এছাড়াও প্রস্তুতি নিয়ে ওমান ও বিসিবির সার্বক্ষণিক যোগাযোগ হচ্ছে বলেও জানান বিসিবির প্রধান চিকিৎসক। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপে অফিসিয়াল যে সাপোর্টটা সেটা ৯-১০ তারিখে শুরু হবে। আগে বাংলাদেশ দল নিজের খরচে এবং নিজের তত্ত্বাবধানে তাদের প্র্যাকটিস সম্পন্ন করবে। এ ব্যাপারে ক্রিকেট বোর্ডের ক্রিকেট অপারেশন্স এবং ওমান ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা হচ্ছে। আমরা আশা করছি আগামী দুই একদিনের মধ্যে একটা পূর্ণাঙ্গ পরিকল্পনা আমরা জানতে পারবো। ওমানে থাকাকালীন সময়ে আমরা কিভাবে প্ল্যানটা করবো।’
তবে ওমানে কোনো জটিলতা না থাকলেও মূল পর্বের আগে বাংলাদেশের জন্য কোয়ারেন্টি কী হবে সেটি এখনো জানে না বিবিসি। প্রস্ততি ক্যাম্প চলাকালে ৮ বা ৯ই অক্টোবর ওমানে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ দল। সেখান থেকে টাইগাররা যাবে দুবাইয়ে আইসিসি নির্ধারিত বিশ্বকাপের দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে। ১২ ও ১৪ই অক্টোবর ম্যাচ খেলে বাংলাদেশ দল ফের ফিরে যাবে ওমানে। সেখানে ১৭, ১৯ ও ২১শে অক্টোবর খেলবে বাছাই পর্বের তিন ম্যাচ।  সেটি শেষ করে মূল পর্বের টিকিট নিয়ে ফের টাইগারদের আসতে হবে দুবাইয়ে সুপার-১২ তে অংশ নিতে। কিন্তু তার আগেই ৬ দিনের কোয়ারেন্টিনের শর্তের কথা বলেছে আইসিসি। আর  সেটি নিয়ে শুরু হয়েছে জটিলতা। তবে সমস্যার সমাধান বড় কিছু নয় বলেই জানা গেছে বিসিবির সূত্রে। জানা গেছে বাছাই পর্বের আগে টাইগাররা যে বায়ো বাবলে ঢুকবে তা না ভাঙলেই আর কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে না টাইগারদের। তবে ওমান থেকে মূল পর্বে খেলতে আসতে হবে চার্টার্ড বিমানে। তবে সব সমস্যার সমাধান পাওয়া যাবে আইসিসি মেডিকেল গাইডলাইন প্রকাশ করার পরই।

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর



খেলা সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status