১৫ বছর পর সিলেটে চালু হচ্ছে জননেত্রী শেখ হাসিনা শিশুপার্ক

ওয়েছ খছরু, সিলেট থেকে

এক্সক্লুসিভ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:৫১ অপরাহ্ন

পরীক্ষামূলক চালুর পর উদ্বোধন করা হবে সিলেটের ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা শিশুপার্ক’। আগামীকাল শনিবার এ পার্কটি দর্শনার্থীদের জন্য পরীক্ষামূলক খুলে দেয়া হচ্ছে। ১৫ বছর আগে দক্ষিণ সুরমায় পার্ক নির্মাণের কার্যক্রম শুরু করা হয়েছিল। নানা জটিলতায় এতদিন চালু করা সম্ভব হয়নি। কোটি কোটি টাকায় ক্রয় করা রাইডার নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা সিদ্ধান্ত নিয়ে দ্রুত পার্কটি চালু করা হচ্ছে। সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এখন পরীক্ষামূলক কার্যক্রম চালু করা হচ্ছে। পরে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে। দক্ষিণ সুরমার আলমপুরে ২০০৬ সালে একটি পার্ক নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছিলেন সাবেক অর্থ ও পরিকল্পনামন্ত্রী এম সাইফুর রহমান।
পার্কটি নির্মাণের উদ্যোগ হিসেবে ওই সময় মাটি ভরাট, সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, বৈদ্যুতিক সাবস্টেশন স্থাপন, দৃষ্টিনন্দন তোরণ নির্মাণসহ পার্কের অবকাঠামোগত কাজ শেষ হয়। পরে পার্কটি এম সাইফুর রহমানের নামে করার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু সরকার বদলের পর পার্কের চলমান কাজ স্থবির হয়ে পড়ে। ২০১৩ সালে আরিফুল হক চৌধুরী মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর এই পার্ক চালুর ব্যাপারে আবার উদ্যোগ নেয়া হয়। পার্কটিতে সর্বমোট ১৫ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়েছে। চলতি অর্থ বছরের বাজেটে পার্কের প্রকল্প বাবদ আরও দুই কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। ২০১৭ সালে পার্কে বিভিন্ন রাইডস বসানোর কাজ শুরু হয়। চীন থেকে এনে বিভিন্ন আধুনিক রাইডস বসানো হয়েছে। এরই মধ্যে পার্কের বিদ্যুৎসংযোগ চালুসহ অন্যান্য কাজও শেষ করা হয়েছে। সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, স্থাপিত ম্যাজিক প্যারাসুটে একসঙ্গে ১৮ জন ৭০ ফুট উঁচুতে ওঠানামা করতে পারবেন। মনোরেলে মাটি থেকে ১৫ ফুট উচ্চতায় এক হাজার ৩৬১ ফুট দূরত্ব অতিক্রম করা যাবে। এটি থাকবে পার্কের চারপাশজুড়ে। এছাড়া, রয়েছে পাইরেটশিপ, টুইস্টার, বাম্পার কার, ফ্রুট ফ্লাইং চেয়ার, ক্যারসেল, জাম্পিং ফ্রগ ও ভিজিটিং ট্রেন। ভিজিটিং ট্রেন দিয়ে একসঙ্গে ২৬ জনকে নিয়ে ৪২০ ফুট ঘোরা যাবে। এদিকে, নামকরণ নিয়ে এ পার্কের জটিলতা দেখা দিয়েছিল। মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী চেয়েছিলেন পার্কের নামকরণ সাবেক অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমানের নামে করতে। কিন্তু মন্ত্রণালয় এই প্রস্তাবে রাজি হয়নি। পরবর্তীতে সাবেক অর্থমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল মাল আবদুল মুহিতের একটি ডিও লেটারের সূত্র ধরে পার্কটির নামকরণ হয় ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা শিশুপার্ক’। পরে মন্ত্রণালয় এই প্রস্তাব গ্রহণ করে। মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী জানিয়েছেন, পার্কটি চালু করার আগে নামের প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল। পরে সাবেক অর্থমন্ত্রী আরেকটি ডিও দেন। এই ডিওর প্রেক্ষিতে পার্কের নামকরণ করা হয়েছে। রাইড বসানোর কাজ শেষ হয়েছে। এজন্য চালু করে দেয়া হচ্ছে। সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিধায়ক রায় চৌধুরী মানবজমিনকে জানিয়েছেন, পার্কের রাইডগুলো অনেক আগেই বসানো হয়েছে। এখন এগুলো চালু করা না হলে নষ্ট হয়ে যাবে। সেই বিবেচনায় আপাতত পরীক্ষামূলক পার্কটি চালু করা হচ্ছে। পরে সুবিধাজনক সময়ে পার্কটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে।

আপনার মতামত দিন

এক্সক্লুসিভ অন্যান্য খবর

দুদক কর্মকর্তার অনৈতিক সুবিধা দাবি, ব্যাখ্যা দিতে হাইকোর্টে তলব

২৬ অক্টোবর ২০২১

দুদক তদন্ত কর্মকর্তা তদন্ত করতে গিয়ে অনৈতিক সুবিধা দাবি করার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে দুদকের তদন্ত ...

ব্যারিস্টার সালামের গ্রামের বাড়িতে নেতাকর্মীদের ঢল

পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে দক্ষিণ সুরমায় ছাত্রদলের সমাবেশ

২২ অক্টোবর ২০২১



এক্সক্লুসিভ সর্বাধিক পঠিত



ব্যারিস্টার সালামের গ্রামের বাড়িতে নেতাকর্মীদের ঢল

পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে দক্ষিণ সুরমায় ছাত্রদলের সমাবেশ

DMCA.com Protection Status