করোনা মহামারি, জলবায়ু পরিবর্তনকে প্রাধান্য দিয়ে বসছে এবারের জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশন

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন (৪ সপ্তাহ আগে) সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২১, রোববার, ৪:১৪ অপরাহ্ন

নিউ ইয়র্কে বসছে জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশন। এতে এবার দৃষ্টি দেয়া হবে করোনা মহামারি, জলবায়ু পরিবর্তনের ইস্যু। গত বছরের অধিবেশনে বিশ্ব নেতারা পাঠিয়েছিলেন ভিডিও বিবৃতি। এখনও বহু দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঊর্ধ্বগতিতে এবং টিকার সঙ্কট রয়েছে। তাই এবারও জাতিসংঘের ১৯৩টি দেশ একই রকম ভিডিও পাঠানোর পরিকল্পনা করছে। অন্য দেশগুলোর প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা সশরীরে যুক্তরাষ্ট্র সফর করবেন বলে মনে করা হচ্ছে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর এটাই প্রথম জাতিসংঘের অধিবেশন।
এতে তিনি সশরীরে উপস্থিত হয়ে ভাষণ দেবেন। তবে নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের এই অধিবেশন করোনা ভাইরাসের সুপার স্প্রেডার হয়ে উঠতে পারে এমন আশঙ্কায় বিশ্বনেতাদের নিউ ইয়র্কে যাওয়া অনুৎসাহিত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। অধিবেশনে যেসব নেতা প্রবেশ করবেন তাদেরকে ঘোষণা দিতে হবে যে, তারা টিকা নিয়েছেন। এ জন্য কোনো প্রমাণ দেখাতে হবে না। ফলে এই সুযোগ নিতে পারে ব্রাজিল। সেখানকার প্রেসিডেন্ট জায়ের বোলসনারো টিকার বিষয়ে সন্দিহান। গত সপ্তাহে তিনি ঘোষণা দিয়েছেন, তার টিকার প্রয়োজন নেই। কারণ, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর তিনি এমনিতেই সুস্থ হয়ে উঠেছেন।
সপ্তাহজুড়ে জাতিসংঘের বাইরে একটি ভ্যান অপেক্ষায় থাকবে। নিউ ইয়র্ক সিটি এর ব্যবস্থা করেছে। সেখানে বিনামূল্যে পরীক্ষা করা হবে। ফ্রিতে দেয়া হবে জনসন অ্যান্ড জনসনের এক ডোজের টিকা। জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরাঁ বলেছেন, যেসব কূটনীতিক সফর করবেন তাদের কতজনের রোগ প্রতিরোধ হয়েছে তা নিয়ে আলোচনা চলছে। এমনিতেই তিনি আগামী বছরের প্রথম ৬ মাসে বিশ্বের শতকরা ৭০ ভাগ মানুষকে টিকা দেয়ার প্রচেষ্টা সামনে ঠেলে দিচ্ছেন। এখন পর্যন্ত বিশ্বে ৫৭০ কোটি ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে আফ্রিকায়য় দেয়া হয়েছে শতকরা মাত্র ২ ভাগ। এ অবস্থায় বুধবার ওয়াশিংটন থেকে বিভিন্ন দেশের নেতা ও প্রধান নির্বাহীদের সঙ্গে ভার্চ্যুয়াল মিটিংয়ে মিলিত হবেন বাইডেন। এর উদ্দেশ্য হবে বিশ্বজুড়ে টিকা বিতরণ ব্যবস্থাকে আরো সমৃদ্ধ করা।

জাতিসংঘের এই অধিবেশনে করোনা ভাইরাস নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগের কথা তুলে ধরতে মাত্র ২৪ ঘন্টার জন্য নিউ ইয়র্ক অবস্থান করবেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এ সময়ে সোমবার তিনি সাক্ষাত করবেন অ্যান্তনিও গুতেরাঁর সঙ্গে। মঙ্গলবার জাতিসংঘে প্রথমবার প্রেসিডেন্ট হিসেবে বক্তব্য রাখবেন। ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জায়ের বোলসনারোর বক্তব্যের পরই তিনি বক্তব্য রাখবেন। জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের দূত লিন্ডা থমাস-গ্রিনফিল্ড বলেছেন, আমাদের শীর্ষ অগ্রাধিকার নিয়ে কথা বলবেন বাইডেন। করোনা মহামারি কিভাবে শেষ করা যায় তা নিয়ে কথা বলবেন। কথা বলবেন জনবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াই নিয়ে। এ ছাড়া মানবাধিকার, গণতন্ত্র, আন্তর্জাতিক শৃংখলার বিষয়ে তিনি বক্তব্য রাখবেন।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status