বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়বে কিনা সিদ্ধান্ত আজ

স্টাফ রিপোর্টার

প্রথম পাতা ৩ আগস্ট ২০২১, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:২০ পূর্বাহ্ন

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে চলমান বিধিনিষেধ অব্যাহত থাকবে কিনা সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় বসছে সরকারের নীতিনির্ধারকরা। আজ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে ভার্চ্যুয়ালি এ সভা অনুষ্ঠিত হবে। গতকাল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত চিঠি সংশ্লিষ্টদের কাছে পাঠানো হয়েছে। সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী, কৃষিমন্ত্রী, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী মোট ১২ জন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এসব মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ ১৬ জন সচিব এতে অংশ নেবেন। এছাড়া সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার, পুলিশ মহাপরিদর্শক, বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার শীর্ষ কর্মকর্তা, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, আইইডিসিআর পরিচালকসহ সংশ্লিষ্টরা সভায় অংশ নেবেন। সংক্রমণ ঠেকাতে অন্তত ১০ দিন বিধিনিষেধ বাড়ানোর জন্য গত শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে সুপারিশ করা হয়। এদিন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ বি এম খুরশীদ আলম বলেন, যেভাবে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে, আমরা কীভাবে এ সংক্রমণ সামাল দেব? রোগীদের কোথায় জায়গা দেব? তিনি আরও বলেন, সংক্রমণ যদি এভাবে বাড়তে থাকে তাহলে কি পরিস্থিতি সামাল দেয়া সম্ভব? অবস্থা খুবই খারাপ হবে এতে কোনো সন্দেহ নেই।
এসব বিবেচনাতেই আমরা বিধিনিষেধ বাড়ানোর সুপারিশ করেছি। দেশে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার এখনো ঊর্ধ্বমুখী। এ অবস্থায় চলমান বিধিনিষেধের মেয়াদ আরও বাড়তে পারে। তবে জীবন-জীবিকার স্বার্থে কিছুক্ষেত্রে শিথিলতাও থাকতে পারে। এ বিষয়ে এ আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তির তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাস সংক্রমণে গত ২৪ ঘণ্টায় (রোববার সকাল ৮টা থেকে সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) দেশে আরও ২৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে দেশে করোনায় মোট মৃত্যু ২১ হাজার ছাড়িয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার ৯৮৯ জন। মোট ৫৩ হাজার ৪৬২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ২৯ দশমিক ৯১ শতাংশ। আগের দিন ২৩১ জনের মৃত্যু হয়েছিল। নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছিল ১৪ হাজার ৮৪৪ জন। পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার ছিল ২৯ দশমিক ৯৭ শতাংশ। আগামী ৫ই আগস্টের পরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে, হোটেল রেস্তরাঁ স্বাভাবিক নিয়মে খোলা রাখার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে বাংলাদেশ রেস্তরাঁ মালিক সমিতি। সোমবার সকালে রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) নসরুল হামিদ মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রেস্টুরেন্ট মালিকরা বলেছেন, পুরোপুরি খোলা সম্ভব না হলে অর্ধেক আসনে বসিয়ে হোটেল-রেস্তরাঁ চালু করতে দেয়া হোক। তারা বলছেন, চলমান বিধিনিষেধে রেস্তরাঁগুলো শুধু অনলাইন/টেকওয়ের মাধ্যমে খাবার বিক্রি করতে পারছে। কিন্তু এ সেবার অন্তর্ভুক্ত রেস্তরাঁর সংখ্যা সর্বোচ্চ ২ থেকে ৩ শতাংশ। এ কারণে সারা দেশে প্রায় ৮০ শতাংশ রেস্তরাঁ বন্ধ রয়েছে। বন্ধ থাকায় দিশাহারা অবস্থায় দিন কাটাচ্ছে এ খাতের উদ্যোক্তারা। ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্লাহ জানান, সরকারের কাছে তারা বারবার আবেদন জানিয়ে আসছেন স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনপূর্বক গণপরিবহন খুলে দেয়ার জন্য। কিন্তু তারা কোনো অগ্রগতি দেখছেন না। গণপরিবহন মালিকদের সঙ্গে এ নিয়ে সরকারের কোনো বৈঠকও হয়নি বলে জানান তিনি।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

LISA

২০২১-০৮-০৩ ০৮:৫০:০১

তামাশার রংগো মেলা। গার্মেন্টস খোলা মানে ঢাকা-চট্টগ্রামে কোটি মানুষের সংক্রমণের ঝুকির মধ্যে কাজ করার বাধ্য করানু হলো।

Mustafa Ahsan

২০২১-০৮-০২ ১৮:৩৩:৫৭

দেশের তিন কোটি দরিদ্র মানুষের খাদ্য ও অর্থের ব্যাবসতা সেই সাথে ভাড়াটিয়াদের বাড়ি ভাড়া পরিশোধের ব্যবসতা এবং বাড়ি মালিকদের বাৎসরিক মিউনিসিপাল টেকস মওকুফ সহ অন্যান্য বিলের ছাড দিতে হবে। না হলে সাধারন মানুষের নিদারুন দারিদ্রতা আরো বাড়বে এবং সামাজিক অস্তিরতার সিরিষটি হবে ,তা সরকারের সামাল দেওয়া কঠিন হবে। লক ডাউন কোন সমাধান নয় ,সমাধান হচ্ছে মাসক পরা বাদ্যতামূলক না পরলে পাঁচ হাজার টাকা ফাইন এবং সাতদিনের জেল, সেই সাথে গনহারে ভেকসিন প্রদান এর আশু ব্যবসতা এবং দূরত্ব বজায় রেখে চলাচলের জন্য প্রচার এর ব্যবসতা করতে হবে। মানুষ কর্ম না করলে এমনিতেই শেষ হয়ে যাবে ঘরে বনদি করে রেখে এত জনবহুল দেশে করোনা মোকাবিলা করা যাবে না ।আমেরিকার মত বড় দেশের জনসংখ্যা চৌতিরিশ কোটি আর পনচাশ সেটট এর এক ভাগ টেকসাস অংগ রাজ্যই বাংলাদেশের তিনগুন বড় সেখানে বাংলাদেশের জনসংখ্যা আঠারো কোটি কি ভাবে কি সামাল দিবেন গরিব দেশে লক ডাউন কোন ভাবেই সুফল বয়ে আনবে না ।কাজেই লক ডাউন লক ডাউন খেলা বন্ধ করেন এটা কোন সমাধান নয়।

রুহুল আমীন যাক্কার

২০২১-০৮-০২ ১১:৩৯:৫৮

যদ্দুর দেখা যাচ্ছে বা প্রতীয়মান হচ্ছে, লকডাউন বা 'বিধি-নিষেধ' করোনা সংক্রমণ বা মৃত্যু নিবারণে আশাতীত কার্যকর নয়। বরং মাস্ক পরিধান করোনা সংক্রমণ রোধে যথেষ্ট কার্যকর। ঐদিকে লকডাউনে লকডাউনে দেশের জনগণ অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে, অর্থনৈতিক অবস্থা শোচনীয়। তাছাড়া উন্নত বিশ্ব এখন আর এই বিধি নিষেধে বিশ্বাস করছেনা। আর যেহেতু আশানুরূপ ভ‍্যাকসিন আসছে তাই ভ‍্যাকসিন কার্যক্রম দ্রুতগতিতে চালানোর অনুরোধ করছি এবং দেশ ও জনগণের কল‍্যাণার্থে এই বিধিনিষেধ বা লকডাউন আর না দেয়ার আব্দার করছি।

shishir

২০২১-০৮-০২ ১১:০৬:৫১

অর্থনীতি তো পরের কথা,সংক্রমন নিয়ন্ত্রণে না এনে সব খুলে দিলে এর পরিনতি অকল্পনীয় হবে। যেটা ভারতের চেয়েও ভয়াবহ হবে।তাই যে ভাবেই হোক সংক্রমন কমাতে হবে।

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

খবর নেই বাস রুট পুনর্গঠনের

সড়কে বিশৃঙ্খলা

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

ইভানার মৃত্যু

অবশেষে মামলা, আলামত জব্দের দাবি

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

পাঠ্যবইয়ে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ভুল

এনসিটিবি’র চেয়ারম্যানকে তলব

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের পাঠ্য বইয়ে থাকা ভুলের ঘটনায় জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের ...

পেশাজীবীদের সঙ্গে বৈঠক করবে বিএনপি

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

ভবিষ্যৎ করণীয় ঠিক করতে দলের কেন্দ্রীয় ও অঙ্গ সংগঠনের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে দুই দফা সিরিজ ...

সংসদ সচিবালয়ের এ কেমন বার্তা?

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

করোনায় মৃত্যু শনাক্ত দুটোই কমেছে

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

 করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত দুটোই কমেছে। একদিনে আরও ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত মৃতের

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে ৮০ লাখ টিকা দেয়া হবে

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে গণটিকা কার্যক্রমের আওতায় একদিনে ৮০ লাখ মানুষকে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন দেয়ার পরিকল্পনা ...

ফাইজারের ২৫ লাখ টিকা আসছে আজ

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

ই-কমার্সে প্রতারিত বাণিজ্যমন্ত্রী নিজেই

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

ই-কমার্সে বা অনলাইনে গরু অর্ডার দিয়ে নিজেও প্রতারিত হয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। গতকাল ...



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত



ভারতে টাকা ফেরত পাচ্ছেন ভুক্তভোগীরা

গ্রাহকের টাকা ফেরানোর উপায় কি?

ডেসটিনি-যুবক থেকে ইভ্যালি

হতাশার যে গল্পের শেষ নেই

ইউনিয়ন ব্যাংকের ভল্টে ১৯ কোটি টাকার গরমিল

৩ কর্মকর্তা প্রত্যাহার তদন্ত কমিটি

DMCA.com Protection Status