বিএসএমএমইউ’র গবেষণা

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা গ্রহণকারী ৯৮ শতাংশের শরীরে এন্টিবডি

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন (১ মাস আগে) আগস্ট ২, ২০২১, সোমবার, ১২:২২ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৮:২৮ অপরাহ্ন

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনা টিকার দুই ডোজ গ্রহণকারী ৯৮ শতাংশ মানুষের শরীরে এন্টিবডি তৈরি হয়েছে জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) গবেষকরা। চলতি বছরের এপ্রিল থেকে জুলাই পর্যন্ত অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নেয়া ২০৯ জনের ওপর পরিচালিত গবেষণায় এ ফলাফল উঠে আসে।

আজ বিএসএমএমইউর জনসংযোগ বিভাগের কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার মজুমদার গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, অক্সফোর্ডের তৈরি ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত কোভিশিল্ড দিয়ে বাংলাদেশ টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়। চলতি বছরের এপ্রিল থেকে জুলাই পর্যন্ত ২০৯ জন টিকাগ্রহীতা স্বেচ্ছায় এ গবেষণায় অংশ নেন।
টিকা গ্রহণকারী বিএসএমএমইউর স্বাস্থ্য কর্মী, চিকিৎসক, নার্স ও সাধারণ মানুষের ওপর এ গবেষণা চালানো হয়। তাদের মধ্যে পূর্বে করোনা আক্রান্ত ছিল ৩১ ভাগ। গবেষণায় দেখা যায়, যারা পূর্বে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন তাদের মধ্যেই এন্টিবডি তৈরি হয়েছে বেশি। এ গবেষণা থেকে বাংলাদেশের জনগণের ওপর টিকা প্রয়োগের কার্যকর এন্টিবডি তৈরির প্রমাণ পাওয়া যায়।

বিএসএমএমইউর ভিসি অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে গবেষণাটি পরিচালিত হয়। গবেষণা টিমের সদস্য ছিলেন প্রেভিসি (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. জাহিদ হোসেন, প্রেভিসি (শিক্ষা) ডা. একেএম মোশাররফ হোসেন, হেমাটোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক মো. সালাহউদ্দিন শাহ।।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi

২০২১-০৮-০২ ০১:৩১:৫৪

আরেকটি প্রশ্ন গবেষণার দরকার । এই এন্টিবডি তৈরি হয়েছে, কিন্তু কতদিন স্থায়ীত্ব থাকবে । Lasting করবে কত দিন । অবশ্য এর জন্য দীর্ঘদিন গবেষণা লাগবে । কিন্তু যারা গবেষণায় অংশ নিয়েছেন তাদেরকে প্রতি মাসে পরীক্ষা করতে হবে দীর্ঘদিন । যতদিন তাদের শরীরে এন্টিবডি পাওয়া যাবে, যতক্ষণ এন্টিবডি শেষ না হয় । তখন জানা যাবে টিকার কার্যকারিতা কতদিন স্থায়ী ।

জামশেদ পাটোয়ারী

২০২১-০৮-০২ ১৪:২০:৫৪

সুতরাং উন্নত বিশ্বের করোনা টিকা সংগ্রহের চেষ্টা বাদ দিয়ে আবার বন্ধু(?) দেশ ভারতে পিছনে ছুটো। কারণ তাদের সাথে অনেক কিছুতেই আগে থেকেই আন্ডাষ্টান্ডিং আছে।

Junaed Hossain

২০২১-০৮-০২ ১৩:২১:৩৮

মাত্র ২০৯ জনের উপর গবেষনা ২০ কোটি মানুষের দেশে ??!! এতেই কিছু প্রশ্ন থেকে যায় । - ২০৯ একটি ছোট সংখ্যা । এর ৩১% অর্থাৎ ৬৫ জন পূর্বে করোনা আক্রান্ত হয়েছিল । এত ক্ষুদ্র একটা সংখ্যা ৬৫, কেন এটা শতকরা হিসাবে দেখানো হল । ৬৫ জনের পূর্বে করোনা মানে ইনাদের আগে থেকেই এন্টিবডি ছিল । - বাকি যে ২০৯-৬৫= ১৪৪ জন, ইনারা যদি পূর্বে করোনা আক্রান্ত হয়েছিল কিনা তা কিভাবে বুঝা গেল? ইনাদের কি এন্টিবডি টেস্ট করা হয়েছিল? পুর্বে উপসর্গ ছাড়াই করোনা বহন করেছিল কিনা, সেই তথ্য আছে কি? - করোনা আক্রান্ত হচ্ছে একটি দেশের মোট জনসংখ্যার সর্বোচ্চ ২-৩%, যা আমরা দেখেতে পাচ্ছি । যদি এটাই সত্যি হয়ে থাকে, তাহলে বাকি ১৪৪ জনের ২-৩% যদি করোনা না হয়েও থাকে তারমানে এই ১৪৪ বা ১৪০ জনের করোনা হয় নাই বা হবে না তাদের ইমিউন সিস্টেমের কারনে ২-৩% হিসাবে । আর যদি ২-৩% হিসাবে কারচুপি করে থাকে পুরো বিশ্ব তবে হার্ড ইমিউনিটি আমরা গেইন করতে চাচ্ছি এবং এটি ছাড়া আর দ্বিতীয় কোন অপশন নাই । - আমাদের রিসার্চের পরিধি আরো বারানো উচিত ।

Mahmud

২০২১-০৮-০২ ১৩:০৬:৪৫

Indian je ?

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

শনাক্তের হার ৪.৪১

করোনায় আরো ২১ জনের মৃত্যু

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

আজমপুরে ট্রেনে কাটা পড়ে বৃদ্ধ নিহত

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

রাজধানীর উত্তরা আজমপুর এলাকায় ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাতনামা এক বৃদ্ধ (৬৫) নিহত হয়েছে। রবিবার (২৬ ...



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



ই-অরেঞ্জ গ্রাহকদের মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ

‘আজকের ভুক্তভোগী, আগামী দিনের অপরাধী’ (ভিডিও)

DMCA.com Protection Status