২ রাজ্যের বিরোধ, আসামের মুখ্যমন্ত্রীসহ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মামলা মিজোরামের

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন (১ মাস আগে) জুলাই ৩১, ২০২১, শনিবার, ১২:৪৫ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১১:১৩ পূর্বাহ্ন

আসাম ও মিজোরাম সীমান্তের উত্তেজনা এখনও অব্যাহত আছে। সোমবার দুই রাজ্যের পুলিশ বাহিনী সীমান্তে পুরোপুরি ‘যুদ্ধে’ লিপ্ত হয়। এতে আসামের ৬ পুলিশ নিহত হয়। এ উত্তেজনাকে কেন্দ্র করে মিজোরাম রাজ্য আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমান্ত বিশ্বশর্মাসহ কয়েকজন শীর্ষ স্থানীয় কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে। এ মামলায় আরো আসামী করা হয়েছে আসামের ইন্সপেক্টর জেনারেল, ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল এবং একজন এসপিকে। তাদের বিরুদ্ধে আসামের কাছার এবং মিজোরামের কোলাসিব সীমান্তে ভাইরেংটি পুলিশ স্টেশনে হত্যা চেষ্টাসহ ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। বলা হয়েছে, হিমান্ত বিশ্বশর্মার নির্দেশনার অধীনে কাজ করেছে আসাম পুলিশ। ঘটনার দিন তাদেরকে আন্তরিক আলোচনার আহ্বান জানায় মিজোরাম পুলিশ।
কিন্তু তারা সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে। তারা জোরপূর্বক কোলাসিবের এসপিকে জানায় যে, ওই এলাকা আসাম সীমান্তের ভিতর পড়েছে। তাই আসামের মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী তারা সেখানে একটি ক্যাম্প নির্মাণ করবে। মামলায় আরো বলা হয়েছে, তারা ক্যাম্প নির্মাণের তাঁবু ও অন্যান্য সরঞ্জাম নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। এতে পরিষ্কার হয়ে যায় শক্তি প্রয়োগ করে তারা মিজোরাম বিওপিতে দখল নিতে চায়। কারণ, তাদের গাড়িবহরের মধ্যে ছিল এম্বুলেন্সও। ছিল ২০টি গাড়ি।
এ মামলায় কাছার জেলার ডেপুটি কমিশনারকেও আসামী করা হয়েছে। তার সঙ্গে যোগ করা হয়েছে অজ্ঞাত ২০০ পুলিশ সদস্যকে। অভিযুক্তদেরকে ১লা আগস্ট ভাইরেংটি পুলিশ স্টেশনে উপস্থিত হতে বলা হয়েছে। আসামের সিনিয়র ৬ পুলিশ কর্মকর্তাকে উপস্থিত হতে নোটিশ দিয়েছে মিজোরাম পুলিশ। আবার একই দিনে মিজোরামের পুলিশ কর্মকর্তাদের ও অন্যদেরকে মিজোরামের রাজ্যসভার এমপি কে ভানলালভেনার সঙ্গে দিল্লিতে সাক্ষাতের জন্য সমন পাঠিয়েছে আসাম পুলিশ। উল্লেখ্য, এই দুটি রাজ্যের মধ্যে সীমান্ত নিয়ে বিরোধ চলছে কয়েক দশক ধরে। তার মধ্যে গত সপ্তাহে পরিস্থিতির ভয়াবহ অবনতি হয়। সোমবার সীমান্তে দুই পক্ষের মধ্যে ভয়াবহ সহিংসতা দেখা দেয়।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status