ভোগান্তি নিয়ে কর্মস্থলে ফিরছেন গার্মেন্ট শ্রমিকরা

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন (১ মাস আগে) জুলাই ৩১, ২০২১, শনিবার, ১১:০৩ পূর্বাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৩:৫৪ অপরাহ্ন

একদিকে আগামীকাল রোববার থেকে খোলা সবধরনের শিল্প-কলকারখানা। অন্যদিকে বন্ধ দূরপাল্লার যানসহ সবধরনের গণপরিবহন। তাই শত ভোগান্তি মাথায় নিয়ে কর্মস্থলে ফিরছেন হতভাগ্য শ্রমিকরা। গার্মেন্ট খোলার খবরে আজ সকাল থেকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে নারী-পুরুষের ঢল নেমেছে। ছোট ছোট যানে করে ভেঙে ভেঙে তারা গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা হন। ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেল, অটোরিকশা, সিএনজি ও ভ্যানগাড়িতে করে কর্মস্থলে ফিরছেন গার্মেন্ট শ্রমিকরা। ভাড়াও গুণতে হচ্ছে কয়েকগুণ বেশি। অনেকে দীর্ঘপথ হেঁটে রওনা হচ্ছেন কর্মস্থলের উদ্দেশে।

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর থেকে জানান, পোশাক কারখানা খুলে দেয়ায় ঢাকা- ময়মনসিংহ ও ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক হয়ে পোশাক শ্রমিকরা দলে দলে আসছেন গাজীপুর ও ঢাকা অভিমুখে। রাত থেকেই দুটি মহাসড়কে ভিড় বেড়ে যায়। হঠাৎ করেই কারখানা খুলে দেয়ার ঘোষণায় আর গণপরিবহন বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়ছেন পোশাক শ্রমিকরা। হালকা যানবাহনে ভেঙে ভেঙে আবার দীর্ঘ পথ পায়ে হেঁটে তারা ছুটছেন গন্তব্যের দিকে। ভোগান্তি যেমন রয়েছে তেমনি গুনতে হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া। মহাসড়কের স্কয়ার মাস্টারবাড়ী, জৈনাবাজার, নয়নপুর, মাওনা চৌরাস্তা, গড়গড়িয়া মাস্টারবাড়ী, বাঘের বাজার, রাজেন্দ্রপুর, গাজীপুর চৌরাস্তা ও টঙ্গী এলাকায় এ দৃশ্য চোখে পড়েছে।

এদিকে স্টাফ রিপোর্টার, মানিকগঞ্জ থেকে জানান, গার্মেন্ট খোলার খবরে ভিড় বেড়েছে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ফেরিঘাটে। সকাল থেকেই দৌলতদিয়া ঘাট থেকে ছেড়ে আসা প্রতিটি ফেরিতে যাত্রীদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে মোটরসাইকেল, প্রাইভেটকার, রিকশা, ভ্যান, পিকআপে ছুটছেন গন্তব্যে। পাটুরিয়া ফেরিঘাট থেকে নবীনগর, সাভার আশুলিয়া পর্যন্ত প্রাইভেটকারে ভাড়া ১০০০ হাজার টাকা আর গাবতলী পর্যন্ত ভাড়া যাত্রী প্রতি ১৫০০ টাকা।

পাটুরিয়া ঘাটে নাজমা নামে এক শ্রমিক জানান, ফরিদপুর থেকে ভেঙে ভেঙে পাটুরিয়া ঘাটে এসেছেন। এখন প্রাইভেট কারে সাভার পর্যন্ত ভাড়া চাচ্ছে ১৫০০ টাকা। এখন বাধ্য হয়ে বাড়তি ভাড়া দিয়ে যেতে হবে।
উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে চলমান কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে আগামীকাল রোববার (১ আগস্ট) থেকে রফতানিমুখী শিল্প-কারখানা খুলে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। গতকাল সরকারের তরফ থেকে জারি করা একটি প্রজ্ঞাপনে এ ঘোষণা দেয়া হয়।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi

২০২১-০৭-৩০ ২৩:৫১:০৪

এরাই জাতির মেরুদণ্ড। অথচ এদের ভোগান্তির সীমা নাই। সিদ্ধান্ত নিবার আগে এরা কিভাবে ঢাকায় ফিরবে তা চিন্তা করা উচিত ছিল। এসব অপরিকল্পিত সিদ্ধান্ত করোনা দ্রুত ছড়ানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। লকডাউন দিয়ে অন্য দিকে গরিব মারার ফন্দি হচ্ছে । সরকার এ ব্যাপারে ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছে । ব্যবসায়ীদের ফাঁদে সরকার পা দিচ্ছে ।

LISA

২০২১-০৭-৩১ ১২:৪৯:৫২

একজন মানুষ সংক্রমণ তার সুস্থ্য হতে কত খরচ বহন করতে হয় সরকার নিশ্চয় যানেন তাহলে কি বলবো না কারখানা খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত আত্মঘাতী? সংক্রমণ ঠেকাতে এই দেশের জন্য প্রয়োযন কারফিউ অথচ আপনরা দুই সপ্তাহ টিকতে পারছেন না ?

LISA

২০২১-০৭-৩১ ১১:৫৯:০২

একজন মানুষ সংক্রমণ তার সুস্থ্য হতে কত খরচ বহন করতে হয় সরকার নিশ্চয় যানেন তাহলে কি বলবো না কারখানা খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত আত্মঘাতী? সংক্রমণ ঠেকাতে এই দেশের জন্য প্রয়োযন কারফিউ অথচ আপনরা দুই সপ্তাহ টিকতে পারছেন না ?

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

পাঠ্যবইয়ে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ভুল তথ্য

এনসিটিবির চেয়ারম্যানকে তলব

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

শনাক্তের হার ৪.৪১

করোনায় আরো ২১ জনের মৃত্যু

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status