মার্কিন রিপোর্ট

পারমাণবিক সক্ষমতা বাড়াচ্ছে চীন

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন (১ মাস আগে) জুলাই ২৯, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১০:৫৪ পূর্বাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ২:১১ অপরাহ্ন

মার্কিন বিজ্ঞানীরা বলেছেন, পারমাণবিক সক্ষমতা বাড়াচ্ছে চীন। পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্রের মজুদ এবং তা উৎক্ষেপণ সক্ষমতা বাড়াচ্ছে তারা। ফেডারেশন অব আমেরিকান সায়েন্টিস্টস (এফএএস) এক রিপোর্টে বলেছে, চীনের পশ্চিমাঞ্চলীয় সিনজিয়াং প্রদেশ থেকে স্যাটেলাইটে ছবি ধারণ করা হয়েছে। তাতে দেখা যাচ্ছে, সেখানে একটি পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্রের সাইলো ফিল্ড নির্মাণ করছে চীন। এ খবরে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিষয়ক কর্মকর্তারা। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

এ নিয়ে গত দু’মাসের মধ্যে চীনের পশ্চিমাঞ্চলে দ্বিতীয় সাইলো ফিল্ড নির্মাণের তথ্য পাওয়া গেল। দ্বিতীয় স্থাপনায় প্রায় ১১০টি সাইলো রাখা যাবে।
সেখানে আছে ভূগর্ভস্থ স্থাপনা, যা ব্যবহার হয় ক্ষেপণাস্ত্র মজুদ ও উৎক্ষেপণে। গত মাসে ওয়াশিংটন পোস্ট রিপোর্ট করেছে যে, গানসু প্রদেশের ইউমেন এলাকায় এক মরু এলাকায় একটি স্থাপনা নির্মাণ করেছে চীন। সেখানে ১২০টি সাইলো দেখা গেছে।

সোমবার এফএএস তার রিপোর্টে বলেছে যে, ইউমেনের উত্তর-পশ্চিমে প্রায় ৩৮০ কিলোমিটার দূরে হামি এলাকায় নির্মাণ করা হচ্ছে নতুন স্থাপনা। ২০২০ সালে পেন্টাগন বলেছে যে, চীন তার পারমাণবিক অস্ত্রের মজুদ দ্বিগুণ করেছে। রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্র যখন অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আলোচনার জন্য প্রস্তুত তখন এই নতুন খবর এলো। যুক্তরাষ্ট্রের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়েন্ডি শেরম্যান এবং রাশিয়ার উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রায়াবকভ প্রথম তাদের মধ্যে স্থবির হয়ে পড়া আলোচনা শুরু করতে যাচ্ছেন। এর উদ্দেশ্য, পারমাণবিক অস্ত্র কমিয়ে আনা। কিন্তু এখন পর্যন্ত অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সমঝোতায় অংশ নেয়নি চীন। যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্র্যাটেজিক কমান্ড সর্বশেষ রিপোর্টে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে টুইটে। তারা বলেছে, দুই মাসের মধ্যে এটা দ্বিতীয়বার। জনগণ দেখেতে পেয়েছে যে, বিশ্ব হুমকির মুখে।

উল্লেখ্য, সিনজিয়াংয়ের সাইলো ফিল্ড শনাক্ত করা হয়েছে বাণিজ্যিক স্যাটেলাইটের ছবি ব্যবহার করে। এতে উচ্চ মাত্রার রেজ্যুলুশনের ছবি ধারণ করা হয়েছে। ২০২০ সালে চীনের কাছে কমপক্ষে ২০০ ওয়্যারহেড পারমাণবিক অস্ত্রের মজুদ ছিল। পেন্টাগন বলেছে, তারা এখন সেই ওয়্যারহেড দ্বিগুন করছে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে আছে প্রায় ৩৮০০ ওয়্যারহেড।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Md. Akash Roy Chowhu

২০২১-০৭-২৯ ১২:৩৯:৩৬

Amar mote, China thik kajti koreche. Ameriker bis dhad vhenge deya uchit.

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

ট্যাক্সিতে এখন ছাদবাগান

১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status