মাঠে সরব এমপি পক্ষ

পাকুন্দিয়া আওয়ামী লীগে উত্তাপ

আশরাফুল ইসলাম, কিশোরগঞ্জ থেকে

শেষের পাতা ২৫ জুলাই ২০২১, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:১২ অপরাহ্ন

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের নতুন আহ্বায়ক সাবেক এমপি এডভোকেট মো. সোহ্‌রাব উদ্দিনকে বাদ দেয়ার দাবিতে শুক্রবারের পর গতকাল শনিবারও কর্মসূচি নিয়ে মাঠে সরব ছিলেন কিশোরগঞ্জ-২ (কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া) আসনের বর্তমান এমপি নূর মোহাম্মদ সমর্থকরা। এদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচির মাধ্যমে পৌর সদরের মূল সড়ক দখলে রাখেন তারা। সরকার ঘোষিত ১৪ দিনের কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে এ কর্মসূচি পালন করা হলেও স্থানীয় প্রশাসন এক্ষেত্রে নীরব ভূমিকা পালন করে। আগের দিন শুক্রবারও লকডাউনের প্রথম দিন বিক্ষোভ মিছিল করেন এমপি সমর্থক নেতাকর্মীরা। গতকাল বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচি ছাড়াও সংবাদ সম্মেলন করেন তারা। স্থানীয় ডাকবাংলো সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পাকুন্দিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মোতায়েম হোসেন স্বপন। এসব কর্মসূচি থেকে পাকুন্দিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের নবঘোষিত আহ্বায়ক এডভোকেট মো. সোহ্‌রাব উদ্দিনকে বাদ দিয়ে ত্যাগী, পরীক্ষিত নতুন কাউকে দিয়ে পুনরায় কমিটি ঘোষণার দাবি জানানো হয়। এর আগে বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির এক সভায় সর্বসম্মতিক্রমে কিশোরগঞ্জ-২ (কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া) আসনের সাবেক এমপি এডভোকেট মো. সোহ্‌রাব উদ্দিনকে আহ্বায়ক নির্বাচিত করে একক কমিটি ঘোষণা করা হয়।
এছাড়া খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে জেলা নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করার জন্য নতুন আহ্বায়ক এডভোকেট মো. সোহ্‌রাব উদ্দিনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এতে বিক্ষুব্ধ হন বর্তমান সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ সমর্থকরা। এ পরিস্থিতিতে গত শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ পাকুন্দিয়ায় এলে তার সঙ্গে ডাকবাংলোয় বৈঠক করেন সমর্থক নেতাকর্মীরা। বৈঠকের পর বেলা সোয়া ১২টার দিকে ডাকবাংলোর সামনে থেকে নেতাকর্মীরা আহ্বায়ক সোহ্‌রাব উদ্দিনের অব্যাহতি চেয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। এ সময় সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ ডাকবাংলোতে অবস্থান করছিলেন। শুক্রবারের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ থেকেই শনিবার মানববন্ধন কর্মসূচির ঘোষণা দেয়া হয়। শনিবার সকালে মানববন্ধন কর্মসূচিকে ঘিরে উত্তাল হয়ে ওঠে পাকুন্দিয়া। সকাল ১১টার দিকে মানববন্ধন কর্মসূচি শুরু হলেও এর আগে থেকেই নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে পাকুন্দিয়া সদর ঈদগাহ মাঠ সংলগ্ন সড়কে জড়ো হতে থাকেন। বেলা ১২টা পর্যন্ত চলা এই কর্মসূচিতে বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী অংশ নিলে পাকুন্দিয়া পৌরসদরের মূল সড়ক তাদের দখলে চলে যায়। মানববন্ধন কর্মসূচিতে পাকুন্দিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মোতায়েম হোসেন স্বপন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট হুমায়ুন কবীর, জেলা শ্রমিক লীগের উপদেষ্টা আতাউল্লাহ সিদ্দিক মাসুদ, সুখিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল হামিদ টিটু, বুরুদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হুদা রুবেল, জাঙ্গালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান সরকার শামীম আহমেদ, নারান্দী ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম, উপজেলা কৃষকলীগের সাবেক সভাপতি বাবুল আহমেদ, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি নাজমুল হক দেওয়ানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন। মানববন্ধন কর্মসূচি শেষে ডাকবাংলো সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তৃতায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মোতায়েম হোসেন স্বপন বলেন, ‘আজকে সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমরা এখানে মানববন্ধন কর্মসূচি আয়োজন করছি এই পরিস্থিতিতে আমরা বাধ্য হয়ে এখানে সমবেত হওয়ার মূল উদ্দেশ্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও সভাপতি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কার্যকরী কমিটির দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য এবং মহামান্য রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সুদৃষ্টি কামনায় পাকুন্দিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্যাগী পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের পক্ষ থেকে আজকের এই মানববন্ধন কর্মসূচির মাধ্যমে জানাতে চাই, বিগত ২২শে জুলাই কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির মিটিংয়ে পাকুন্দিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক হিসেবে ঘৃণিত, বিতর্কিত এবং স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী পরিবারের সদস্য সোহরাব উদ্দিনকে আহ্বায়ক করার প্রচেষ্টা করায় আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই এবং সেই সঙ্গে আমরা আরও জানাচ্ছি সোহরাব সাহেব অদ্যাবধি জাতীয় এবং স্থানীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রতীকে কোনোদিন ভোট ও সমর্থন প্রদান করেননি।’
এদিকে সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করে টানা দুদিন পৌর সদরের মতো গুরুত্বপূর্ণ স্থানের প্রধান সড়কে রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনের বিষয়ে পাকুন্দিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) একেএম লুৎফর রহমান মানবজমিনকে বলেন, বিষয়টি আমাদের অগোচরে হয়েছে। আমরা জানতে পেরে কর্মসূচি সমাপ্ত করার কথা বলার পর তারা দ্রুত কর্মসূচি সমাপ্ত করেছেন এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকবেন বলে আমাদের কাছে অঙ্গীকার করেছেন।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

জোবায়ের হোসেন

২০২১-০৭-২৪ ১৯:২৪:০৭

শূধু কিশোরগঞ্জ কেন বাংলাদেশের অধিকাংশ অঞ্চলেই আওয়ামীলীগ ও বিএনপির রাজনীতিতে এমন দলীয় কোন্দল বিরাজমান। কারণ হলো এরা দলীয় রাজনীতিতে গনতন্ত্রের নামে অগনতান্ত্রিক পন্থা চর্চা করে থাকে। এরা যদি দলের মধ্যে গনতন্ত্র চর্চা করে তবেই আন্তদলীয় কোলাহল নিরশন হবে।

আপনার মতামত দিন

শেষের পাতা অন্যান্য খবর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চাকরির প্রলোভন

পুলিশের জালে প্রতারক চক্র

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

চীন থেকে সিনোফার্মের আরও ৫৪ লাখ টিকা এসেছে

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

চীন থেকে কেনা সিনোফার্মের আরও ৫৪ লাখ ১ হাজার ৩৫০ ডোজ করোনার টিকার চালান দেশে ...

অতিরিক্ত মদ্যপানে চট্টগ্রামের ২ ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ্যপানে রাফসান হাবিব (৩০) ও মোনতাসির পিয়াম (২১) নামে ...

কুমিল্লা-৭ আসন

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হচ্ছেন প্রাণ গোপাল দত্ত

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

কুমিল্লা-৭ আসনের উপনির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অধ্যাপক ...

এ পর্যন্ত মৃত্যু ৫৯

২৩২ জন নতুন ডেঙ্গু রোগী বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে ...

নিউ ইয়র্কের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা ত্যাগ

১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) ৭৬তম অধিবেশনে যোগ দিতে হেলসিঙ্কি হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের উদ্দেশে গতকাল ...

সাংবাদিক নেতাদের সংবাদ সম্মেলন আজ

১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

দেশের সাংবাদিকদের শীর্ষ ৬ সংগঠনের নেতৃবৃন্দের ব্যাংক হিসাব তলবের প্রতিবাদে আজ জাতীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ ...



শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status