উদ্বোধনের একদিন আগে জাপান অলিম্পিক অনুষ্ঠানের পরিচালক বরখাস্ত

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন (১ সপ্তাহ আগে) জুলাই ২২, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১২:৪৯ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৩৭ পূর্বাহ্ন

রাত পোহালেই বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া অনুষ্ঠান অলিম্পিক গেমস-২০২০ শুরু। এর একদিন আগে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরিচালক কোনতারো কোবায়েশিকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তিনি হলোকাস্ট নিয়ে ‘বেদনাদায়ক’ কৌতুক করেছিলেন বলে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ১৯৯০এর দশকে কোবায়েশির করা হলোকাস্ট বিষয়ক ওই কৌতুক সম্প্রতি প্রকাশ পেয়েছে। এর ফলে জাপান অলিম্পিকের প্রধান সেইকো হাশিমোতো বলেছেন, ইতিহাসের উদ্ভট এক বেদনাদায়ক বিষয় ওই ভিডিও। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। এতে বলা হয়, এবারের এই অলিম্পিক গেমসকে কেন্দ্র করে বেশ কিছু ধারাবাহিক কেলেঙ্কারির ঘটনা সামনে এসেছে। তার সর্বশেষ ঘটনা হলো কোবায়েশিকে বরখাস্তকরণ।
কয়েকদিন আগে অলিম্পিকের একজন সঙ্গীত পরিচালক টিম থেকে পদত্যাগ করেন। কারণ, তিনি স্কুলের বিকলাঙ্গ সহপাঠীদের নিয়ে মস্করা করেছিলেন এবং সেই বিষয়টি এখন সামনে চলে এসেছে। এ জন্য তিনি উদ্বোধীন অনুষ্ঠানের টিম থেকে পদত্যাগ করেছেন। মোটাসোটা কমেডিয়ান নাওমি ওয়াতানাবে’কে শূকরের সঙ্গে তুলনা করেন ক্রিয়েটিভ প্রধান হিরোশি সাসাকি। অলিম্পিক অনুষ্ঠানে ওয়াতানাবের উপস্থিতি হতে পারে ‘অলিমপিগ’ এমন তুলনা করেন তিনি। এ জন্য মার্চে পদত্যাগ করেন। ওই মন্তব্যের জন্য পরে তিনি ক্ষমা চেয়েছেন।

নারীদের নিয়ে এর আগে সমালোচনা করে মন্তব্য করেছিলেন ইয়োশিরো মোরি। তার ওই মন্তব্যের বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনা ওঠে। তিনি বলেছিলেন, নারীরা খুব বেশি কথা বলেন। আরো বলেন, পরিচালক পরিষদে বেশি নারী থাকলে মিটিংয়ে অনেক বেশি সময় নেবে। এ মন্তব্য নিয়ে সমালোচনার প্রেক্ষিতে ফেব্রুয়ারিতে তিনি আয়োজক কমিটির প্রধানের পদ ত্যাগ করতে  বাধ্য হন।
কিন্তু সর্বশেষ যে মন্তব্যের জন্য কোবায়েশিকে বরখাস্ত করা হয়েছে, তা এখন থেকে ২৩ বছর আগের। ওই সময় তিনি ছিলেন একজন কমেডিয়ান। তিনি এবং আরেক কমেডিয়ান শিশুদের বিনোদনে কৌতুক করতেন। ওই সময়ে তিনি সহকর্মীদের দিকে তাকিয়ে কাগজের কিছু পুতুলের দিকে ইঙ্গিত করে বলেছিলেন, তারা হলো ওই সময়কার। তুমি তাদেরকে বলতে পারো, চলো হলোকাস্ট অভিনয় করি। এ বিষয়ে সিমন উইসেনথাল সেন্টারের বৈশ্বিক সামাজিক একশন বিষয়ক পরিচালক ও এসোসিয়েট ডিন রাব্বি আব্রাহাম কুপার বলেন, নাৎসি গণহত্যার শিকার ব্যক্তিদের নিয়ে যেকেউ, তা তিনি যতটাই সৃষ্টিশীল হোন না কেন, তিনি কোনো কৌতুক, মস্করা করতে পারেন না।  
ওদিকে বরখাস্ত করার ইস্যুতে নিজে একটি বিবৃতি দিয়েছেন কোবায়েশি। তাতে বলেছেন, বিনোদনে মানুষকে ভুলে গিয়ে অস্বস্তিতে ফেলা যায় না। আমি বুঝতে পেরেছি ওই সময়কার বিষয়ে আমার‘স্টুপিড’ কথাবার্তা ভুল ছিল। এর জন্য আমি অনুশোচনা করছি।

তবে এসব ঘটনার পরও অলিম্পিক গেমস নিয়ে অস্বস্তি কিছুটা রয়েই গেছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক জরিপে দেখা গেছে, জাপানের শতকরা ৫৫ ভাগ মানুষ এই গেমসের বিরোধিতা করছেন। তাদের ভয়, এই গেমস হতে পারে করোনার সুপার-স্প্রেডার ইভেন্ট। এরই মধ্যে অ্যাথলেট ও কর্মকর্তাদের মধ্যে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এই গেমসের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট, অ্যাথলেট, কর্মকর্তাদের কমপক্ষে ৯১ জনের শরীরে এই ভাইরাস পাওয়া গেছে। এ পর্যন্ত দেশটিতে তিন ভাগের এক ভাগ মানুষকে টিকা দেয়া হয়েছে। গেমস চলাকালীন জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। ওদিকে অলিম্পিক গেমস অনুষ্ঠান বাতিলের আশঙ্কা উড়িয়ে দেননি আয়োজক কমিটির প্রধান তোশিরো মুতো। এরই মধ্যে বুধবার নারীদের ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তাতে নিউজিল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



নির্বাচনে হেরে আইন মন্ত্রণালয়ে ট্রাম্পের ফোন

আপনারা শুধু নির্বাচনে অনিয়মের কথা বলুন, বাকিটা আমি দেখবো

DMCA.com Protection Status