তুরস্ককে কঠিন পরিণতির হুমকি তালেবানের

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন (২ মাস আগে) জুলাই ১৩, ২০২১, মঙ্গলবার, ৬:৪১ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৫৯ পূর্বাহ্ন

আফগানিস্তানে সেনা মোতায়েন রাখার সিদ্ধান্ত নিয়ে তুরস্ককে হুঁশিয়ারি বার্তা দিয়েছে তালেবান। চুক্তি অনুযায়ী সকল বিদেশি সেনারই আফগানিস্তান ছাড়ার কথা রয়েছে। তবে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েফ এরদোগান জানিয়েছেন, মার্কিনিদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে কাবুল বিমানবন্দরকে তালেবানের হাত থেকে সুরক্ষিত রাখবে তুরস্ক। এরমধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নের চেষ্টা করছেন তিনি। তবে তালেবান বলছে, তুরস্কের এই সিদ্ধান্ত নিন্দনীয় এবং এর জন্য দেশটিকে পরিণতি ভোগ করতে হবে।

তুরস্ক নিজেই কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তা দেয়ার বিষয়টি প্রস্তাব দিয়েছিল। গত কয়েক দিন ধরে ওয়াশিংটনের সঙ্গে অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও আনুসাঙ্গিক সকল সমর্থনের বিষয়ে কথা চলছে আঙ্কারার। তুরস্ক বারবার বলে আসছে, আফগানিস্তানে থাকা কূটনৈতিক মিশনগুলোর জন্য এই বিমানবন্দর চালু থাকা জরুরি।
তবে এর জবাবে তালেবান একটি বিবৃতি দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, তুরস্কের এই সিদ্ধান্তের নিন্দা জানাচ্ছে তালেবান। তুরস্ক যদি তার সিদ্ধান্ত না বদলায় তাহলে তাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলবে তালেবান। তার পরিণতির দায় তুরস্ককেই বহন করতে হবে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Zakiul Islam

২০২১-০৭-১৪ ১৫:৪১:০০

তালেবানদের সঙ্গে আলোচনা করে এবং তাদের সম্মতি পেলে,তবেই তুরস্কের সেখানে থাকা উচিৎ । শুধু F-35 বিমান কেনার জন্য সৈন্য মোতায়েন করা ঠিক হবেনা । বিমান বন্দর রক্ষা করার জন্য নয় , তুরস্কের উচিৎ মধ্যস্ততা কারির ভুমিকা পালন করা । ভায়ে ভায়ে রক্ত যেন না ঝরে । বরতমান আফগান সরকার জনগন দ্বারা নির্বাচিত নন, তিনি আমেরিকার দ্বারা নির্বাচিত । আফগান জনগন তাকে আমেরিকার পুতুল মনে করে । এরদোগান শুধু তুরস্কের নেতা নন, সারা মুস লিম জাহানের নেতা । এই আবেগ তাকে ধরে রাখতে হবে ।

ইউসুফ সেখ

২০২১-০৭-১৩ ২০:১৩:০৫

নিজেদের মধ্য যুদ্ধে জড়িয়ে কোন লাভ হবে না বরং উভয়ের ই ক্ষতি যেহেতু মুসলিম। মার্কিন এর চক্রান্ত এগুলো সে এখন তালেবানের সঙ্গে তুরস্কের সেনাদের যাতে খেলাটা জমে সে কাজ করল মার্কিন আর খেলাটা দেখবে এবং সে পুতুল নিয়ে নাচবে মার্কিন। আমার মনে হয় তুরস্কের উচিত হবে সেখান থেকে সরে যাওয়া যা করছে তা করতে দেওয়া তালেবান দের কে এবং তালেবানেরা সেটিকে অথাং রাজধানী কাবুল দখল করে নিয়ে পুরো আফগানিস্থান তাদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নিবে এবং একটি মুসলিম খাটি মুসলিম রাষ্ট্রে পরিণত হবে এটাই সব থেকে ভাল কাজ হবে । আমি বুঝতে পারছি না কেন তুরস্ক ও খানে গিয়ে দোহাই দিচ্ছে।

Imam

২০২১-০৭-১৩ ১৩:৪২:৩২

তুরস্ক এখন না বুঝলেও পরে তারা বুঝবে যে এটা তাদের ভুল ইনশাআল্লাহ একদিন আফগান স্বাধিন হবে

বাশার পাটোয়ারী

২০২১-০৭-১৩ ০৯:৩৩:৪৯

বিশ্বে রাজনৈতিক দাবাড়ু হিসেবে এরদোয়ানের সুখ্যাতি আছে। আর তালেবানরা সেটা ভালো করেই জানে এবং তাদের হুমকি লোক দেখানো বা কাউকে খুশি করতেই দেয়া! আফগানিস্তানের মধ্যস্থতাকারী কাতার - পাকিস্তান হলো তুরস্কের সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ। এছাড়াও আফগানিস্তানের পাশেই রয়েছে তুর্কী প্রভাববলয়ে থাকা তাজিকিস্তান, উজবেকিস্তান, কাজাখস্তানের মত দেশ এবং জাতিগোষ্ঠী। সুতরাং তুরস্কের হিসাব -কিতাবে ভুল থাকার কথা নয়!!

Borno bidyan

২০২১-০৭-১৩ ০৮:২৬:৫৪

ধর্মীয় মতানৈক্যের কারণে তুরস্ক ও ইরান দুটো দেশ দুই মেরুর! তালেবানদের সাথে তাদের দূরত্ব অনেক! আমেরিকা নিজে বাঁচতে আফগান ও তুরস্কের সাথে ভ্রাতৃত্ব সংঘাত সৃষ্টি করে কেটে পড়লো! মনে হচ্ছে রাশিয়া থেকে S400 ক্রয় নিয়ে আমেরিকা প্রতিশোধ নিতে তুরস্ককে ফাঁদে ফেলে দিলো! সামনে তালেবান সংকট আরও প্রকট হবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই !

ভেসেল

২০২১-০৭-১৩ ০৬:৫৭:৩৫

তালিবানরা পুনরায় নিজেদের বিপদ ডেকে আনছে । এটা ঠিক এরা পরাশক্তি খেকো । কিন্তু বিশ্বের মধ্যে প্রথম ইসলামিক দেশ (ইরানের প্রসঙ্গ ভিন্ন) হিসাবে আত্মপ্রকাশ ও টিকে থাকার জন্য বহিঃবিশ্বের সাথে সুসম্পর্ক জরুরি । উগ্র হঠকারী সিদ্ধান্ত যেন তারা পরিহার করতে পারে । তুরস্ক কে যদি মিত্র ভাবতে না পারে তবে তালিবানদের জিওপলিটিক্স সম্পর্কিত জ্ঞান শূন্যের কোঠায় ধরে নিতে হবে ।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status