দেখা থেকে তাৎক্ষণিক লেখা

কোটিপতিদের শহরে তুমি থাকবা কেন?

সাজেদুল হক

মত-মতান্তর ২৮ জুন ২০২১, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:৪৩ অপরাহ্ন

সোমবার সকাল নয়টা। শেওড়াপাড়া বাসস্ট্যান্ড। অসংখ্য মানুষের ভিড়। রাস্তায় বিপুল সংখ্যক রিকশা। প্রাইভেট কারের আধিক্য। সিএনজি চালিত অটোরিকশার সংখ্যা কম। ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলও খুব একটা নেই। বাস বা অন্য কোনো গণপরিবহনতো নেইই।

আপনাদের তো এরইমধ্যে জানা হয়ে গেছে, আজ অফিস আদালত যথারীতি খোলা।
তো এই বিপুল সংখ্যক মানুষ তারা যাবেন কীভাবে? কিন্তু এ প্রশ্ন আপনি কাকে করবেন? করোনা বিরোধী লড়াইয়ে লকডাউনসহ প্রায় সব সিদ্ধান্তই আমরা জানতে পারছি আমলাদের কাছ থেকে। তাদের মেধা নিয়ে তো কোনো প্রশ্ন নেই। কিন্তু এই মেধাবী আমলাদের আপনি প্রশ্ন করবেন সে সুযোগ কোথায়?

আরও একবার রাস্তা থেকে ঘুরে আসি। তো লোকজন কর্মক্ষেত্রে যাচ্ছেন কিভাবে? যাদের প্রাইভেট কার আছে তাদের কোনো সমস্যা নেই। এবং আশা করা যায় বিত্তবানরা এক্ষেত্রে সমস্যামুক্ত। বড় বড় সরকারি আমলাদের কোনো সমস্যা নেই। অন্য সরকারি চাকরিজীবীদের বেশিরভাগেরই অফিস কর্তৃক পরিবহনের ব্যবস্থা আছে। কিছু কিছু বেসরকারি অফিসেরও একই ব্যবস্থা আছে। কিন্তু এর বাইরে বিপুল সংখ্যক মানুষের জন্য দিনটি রীতিমতো লড়াইয়ের। রিকশাচালকরা অবশ্য খুশি। তারা ভাড়া হাঁকাচ্ছেন অনেক বেশি। তাও দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করেও দেখা মেলে না একটা খালি রিকশার। এই পরিস্থিতিতে অনেকেই হেঁটে গন্তব্যে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। অনেক মধ্য বয়স্ক মানুষকেও দেখলাম দীর্ঘপথ হাঁটছেন। কেউ আবার ভ্যানে করে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। কেউবা কোনো কোম্পানির গাড়ি থামিয়ে আকুতি করছেন একটু পৌঁছে দেয়ার জন্য।

আমরা যারা জনগণ তাদের আসলে এই নগরীতে আকুতি করা ছাড়া আর কিইবা করার আছে। যারা বিপুল বিত্তবান তারা ছাড়া, সবারই তো এখন এ শহরে টেকা দায়। তো কেউ প্রশ্ন করতে পারেন, তুমি এ শহরে পড়ে আছো কেন? কে তোমাকে অনুরোধ করেছে এ শহরে থাকতে? দেখো না করোনার ধাক্কায় কত মানুষ ঢাকা ছেড়ে চলে গেছেন তো তুমি বসে আছো কেন?

দেখো না টিভিতে, প্রেস ব্রিফিংয়ে বড় বড় মানুষেরা বলেন, সব দোষ জনগণের। তারা লকডাউন মানেন না! তারা স্বাস্থ্যবিধি মানে না। তারা টিকাও দেয় না সেটা অবশ্য এখন আর বলতে পারছেন না। যে ১৪ লাখের বেশি মানুষ প্রথম ডোজ টিকা নিয়ে দ্বিতীয় ডোজ পাননি তারা কাদের কাছে জবাব চাইবেন? জবাব, সেটা আবার কি!
সর্বশেষ শুক্রবার থেকে লকডাউন নিয়ে কত রকম সিদ্ধান্তই না হয়ে গেলো? কাদের জন্য এসব সিদ্ধান্ত? নিশ্চয় জনগণকে সুরক্ষা দেয়ায় জন্য! কিন্তু সে জনগণের ভালো মন্দ না ভেবে, তাদের ঘরে চাল-ডাল আছে কি-না সেটা না চিন্তা করে শুধু প্রজ্ঞাপন জারি করে দিলেই সব মিটমাট হয়ে যায় না। এই দুঃসহ দিনে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন ভালোবাসা আর প্রজ্ঞার।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

আজাদ

২০২১-০৭-০১ ২২:৫৪:১৪

শেরা লিখেছেন ধন্যবাদ

সৈয়দ মুরাদ

২০২১-০৬-২৮ ০৩:৪২:১৬

আমাদের তো ভাতের ক্ষুধা নেই প্রজ্ঞাপন খেয়ে দিব্যি চলে যাচ্ছে প্রতিটি দিন। আছে শত শত টিভি চ্যানেল নিউজ পেপার কত কত সুস্বাদু খবরে উদর পূর্তি হচ্ছে।

Habib Razu

২০২১-০৬-২৮ ১৫:১২:২৯

খুব সুন্দর লেখনী, সাধারণ মানুষের হয়ে একদম বাস্তব প্রশ্নগুলি তুলে ধরেছেন। আমাদের মত অসহায় মধ্যবিত্ত মানুষের ঢাকায় বাস করার কোন অধিকার নেই। কোটিপতির শহরে শুধু কোটিপতিরাই থাকুক আর সরকারের আমলা কামলারা থাকুক সাথে পা চাটা খুত্তারাও থাকুক। শহর থেকে নিন্মবিত্ত মধ্যবিত্ত আমাদের কে লাথি মেরে বের করে দেন। আপনি অফিসও খোলা রাখবেন আবার গাড়িও বন্ধ রাখবেন তাহলে বিষয় টা কি দাড়ালো? সম্পুর্ন মশকারা ছাড়া আর কিছুই না।

No name

২০২১-০৬-২৮ ০২:০১:১৯

Self censored but good written?

মোঃ তরীবুল্লাহ্ আকন্

২০২১-০৬-২৮ ০১:৫৯:৩২

প্রথম ডোজ নেয়া চৌদ্দ লক্ষ প্রাণী তো মানুষ না, সাধারণ জনগন। এদের মধ্যে তো ক্ষমতাধর মন্ত্রী, এমপি কিংবা মেধাবী আমলা বা তাদের পরিবারের সদস্য অন্তর্ভুক্ত নাই।তাই প্রথম ডোজ নেয়া আমাদের মত 'সাধারন জনগন' এর জীবনের কোন দামও নাই।

ক্ষুদিরাম

২০২১-০৬-২৮ ০১:৫২:৩৪

বেহায়া এবং একই সাথে যে সরকার অবৈধ এবং যারা এই দেশটাকে লুটেপুটে খাচ্ছে সে সরকারের নিকট মানবিক বাণী পৌছানোর ব্যার্থ চেস্টা কেন করছেন দাদা !! আর তাছাড়া সরকারের মত ঢাকাও এখন মাফিয়াদের দখলে। তো সেখানে বসবাস করতে হলে হয় নিজেকে মাফিয়ার চ্যালা মেনে নিতে হবে নয়তো গ্রামের বাড়ি যেতে কেওতো নিষেধ করেনি বাপু !!

নেজাম

২০২১-০৬-২৮ ০১:৪৫:০৮

অল্প লেখাতেই মাশাহললাহ যারা বুঝার বূঝে নিবে , যাদের বূঝা দরকার তারা দেখবেনা দেখলেও পাওা দিবেনা. যাক আমি একজন ৯০ দশকের রাজপথের যোদ্ধা . আমার দল আজ ক্ষমতায় কিন্ত তারাও ওদের সূরে কথা বলে .হায়রে নিয়তি কবে সৎ এবং যোগ্য লোক তার পদে বসবে.

কাজি

২০২১-০৬-২৮ ০১:২৩:৫৯

লকডাউন ঘোষণার আগে মানুষের খাবারের ব্যবস্থা করতে হয়। বিশ্বের উন্নত দেশে রীতিমতো বেতনের সমান ভাতা চালু আছে, লকডাউন ঘোষণার পর থেকে । লকডাউনে যারা চাকরি হারিয়েছে সবাই অবস্থা স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত ভাতা পেয়ে যাবে ।

mamun

২০২১-০৬-২৮ ১৩:৫৩:০৫

যে দেশের মানুষ বিএনপি জামাতকে ভোট দেয় তাদের ভোটাধিকার থাকা উচিত নয়। কি বলেন?

Razzak (From, KSA)

২০২১-০৬-২৮ ১৩:৪২:১২

SHUNDOR LIKHAYSAEN SIR, THANKS

Masud

২০২১-০৬-২৮ ১৩:৪১:১৪

আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। অনেক চমৎকার লিখা। এই দেশের আমলাদের শিক্ষাদিক্ষা নিয়ে সন্দেহ করবেন কি ভাবে, দেশের বড় বড় শিক্ষা প্রতিষ্টানগুলো থেকে উনারা শিক্ষা গ্রহন করে। তবে তাদের বুদ্বি-শুদ্বির ব্যপারে তো প্রশ্ন করতেই পারি। এই জাতী তাদের কাছ থেকে চুরি আর চামারী ছাড়া আর কি কিছু পেয়েছে..?

Md.Mosharaf

২০২১-০৬-২৮ ১৩:৩৪:২৭

niti nirtarokder tu ontorer chok bondo sudu bahirer akchok khola

MD. ALAMGIR JALIL

২০২১-০৬-২৮ ১৩:১০:৫৪

Shajedul Haque, you have embodied the current crisis fantastically. There is no one to see and listen to.

FAKHRUL ISLAM NIPU

২০২১-০৬-২৮ ১৩:০৮:৫৯

Dear bro every one should think for other (specially high officials of the Govt). When you start thinking for all automatically you will get right path. Now a days every body think for self or for a group that is the problem.

Foyez Ahmed

২০২১-০৬-২৭ ২৩:৫০:৫৪

ভালোই লিখেছেন.... পড়ে অনেক বিনোদন পেলাম, আসলে এগুলো অরন্য রোদন ছাড়া কিছুই নয়। আমাদের নীতি নির্ধারকদের চোখে টিনের চশমা লাগানো এবং কান ঠশা হয়ে গেছে। সাধারণ মানুষের ভালো মন্দ দেখার কেউ কোথাও নেই।

হেদায়েত উল্লাহ।

২০২১-০৬-২৭ ২৩:৫০:০৪

সাজেদুল হক, আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। আমাদের মনের কথা আপনার লেখায় প্রতিফলিত হয়েছে।

shukriya

২০২১-০৬-২৮ ১২:৪৬:৫৯

Right, Thank u so much

Monir

২০২১-০৬-২৭ ২৩:৪৪:০৪

Sorkar hocche moddho jogio raja ar sey rajar kache ei golam projader kono protibad kora cholena. Kor jore anurudh kora jete pare ar setao sorkar sunbe kina sondeho..

জামশেদ পাটোয়ারী

২০২১-০৬-২৮ ১২:৩৮:০৪

এই সরকারের মন্ত্রী এমপিদের কথায় এই সরকার জনগণের সরকার। সুতরাং সরকার যা করছে তার অনুমতি জনগণ তাদের দিয়েই দিয়েছে। শুধু পার্থক্য হলো সেই জনগণ রাতে ভোট দিয়েছে, দিনে সুর্যের তাপে লম্বা লাইনে দাড়িয়ে কষ্ট করে তাদের ভোট দিতে হবে তাই তারা রাতে চুপি চুপি এসে ভোট দিয়ে চলে গেছে। যেহেতু জনগণের অনুমতি(?) আছে তাই কোন প্রশ্ন করা যাবেনা। প্রশ্ন করলেই আপনি হয় জামাত অথবা বিএনপি। ইদানীং সরকারের লোকজন বা মূখপাত্র জামাত নিয়ে কোন কথা বলেনা, কারণ তাদের মতে জামাত ধ্বংস হয়ে গেছে, ধ্বংস প্রাপ্ত জামাতকে নিয়ে কথা বলে সময় নষ্ট করার দরকার কি, সুতরাং যত দোষ চাপাও বিএনপির উপর। রাতদিন চব্বিশ ঘন্টা বিএনপিকে নিয়ে এতই গবেষণা করে তাতে মনে হয়, তারা মনে প্রাণে বিশ্বাস করে বিএনপিই দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় দল. তাই তাদের ঘাড়ে যত বেশী দোষ চাপিয়ে জনগণের মন থেকে মুছে ফেলা যায় ততই লাভ। পুলিশের গুলিতে কেউ নিহত হলে প্রশ্ন করা যাবেনা, কারণ পুলিশ হত্যা করে প্রচার করে নিহত ব্যক্তি হত্যা মামলার আসামী ছিল বা ধর্ষণ মামলার আসামী ছিল। তাই তাকে হত্যা করা জায়েয, সেই হিসাবে তাকে বিচারের মুখোমুখি করার কোন যুক্তি নাই, এবং এ ব্যাপারে কোন প্রশ্ন করা যাবেনা। কথিত বন্দুক যুদ্ধে প্রথমেই পুলিশ বন্দুক যুদ্ধের যোদ্ধার শরীরের এমন জায়গা টার্গেট করে যাতে পুলিশের দিকে গুলি ছুড়তে না পারে, এবং তৎক্ষণাত মৃত্যুবরণ করে। আর সেই যোদ্ধা এতই প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত থাকে যে, পুলিশের দিকে গুলি তো ছুড়তে পারেই না পুলিশের গুলি থেকে বাঁচতেও পারেনা।

পথচারী

২০২১-০৬-২৮ ১২:২৬:৫১

"কোটিপতিদের শহরে তুমি থাকবা কেন?" অসাধারণ লিখেছেন...

আপনার মতামত দিন

মত-মতান্তর অন্যান্য খবর

৯/১১-এর ছায়া!

১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

তালেবান ও ভারতের সমীকরণ

১১ সেপ্টেম্বর ২০২১

তালেবানদের কাতার কানেকশন!

৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

ফিরে দেখা ৯/১১

৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

আবার আফগান দৃশ্যপটে পানশির

৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

দিন দিন হাসির খোরাক হচ্ছে পাকিস্তানি কূটনীতি

৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

গত জুলাই মাসে ঘটনা। ইসলামাবাদের কূটনীতিক পাড়ায় খুব কাছাকাছি সময়ের দূটো ঘটনা। প্রথম ঘটনায় একজন ...



মত-মতান্তর সর্বাধিক পঠিত



দেখা থেকে তাৎক্ষণিক লেখা

কোটিপতিদের শহরে তুমি থাকবা কেন?

কাওরান বাজারের চিঠি

ছবিটির দিকে তাকানো যায় না

DMCA.com Protection Status