পর্তুগালের বিপক্ষে প্রতিশোধ নিতে পারবে ফ্রান্স?

স্পোর্টস ডেস্ক

খেলা ২৩ জুন ২০২১, বুধবার

৯০ মিনিটের ধ্রুপদী দ্বৈরথে মেটেনি হিসাব। ম্যাচ গড়ালো অতিরিক্ত সময়ে। ১০৯ মিনিটে দু’জনকে কাটিয়ে এদারের ডিফেন্সচেড়া গোল, ঝাঁপিয়েও বলের নাগাল পেলেন না হুগো লরিস। ডাগআউটে দাঁড়িয়ে আনন্দে কেঁদে ফেললেন চোটাগ্রস্ত ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো- এসবকিছুই ২০১৬ ইউরো ফাইনালের স্মৃতি মনে করিয়ে দেয়। গোটা আসরে দুর্দান্ত খেলেও পর্তুগালের কাছে ১-০ গোলে  হেরে শিরোপা হারানোর বেদনায়ক স্মৃতি আজও তাজা ফরাসিদের মনে। এবার গ্রুপ পর্বেই ফাইনালের প্রতিশোধ নেয়ার সুযোগ পেলো বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। আজ রাত ১টায় বুদাপেস্টের পুসকাস অ্যারেনা স্টেডিয়ামে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের মুখোমুখি হবে দিদিয়ের দেশমের শিষ্যরা। চলতি ইউরো আসরে উড়ন্ত সূচনা হয়েছে পর্তুগাল-ফ্রান্সের।
তবে জয়ের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে পারেনি দু’দলের কেউই। হাঙ্গেরির বিপক্ষে দাপুটে ৩-০ গোলের জয়ের পর জার্মানির কাছে নাকানিচুবানি খেতে হয় ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোদের। পর্তুগিজ অধিনায়কের গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর খেই হারিয়ে ফেলে গতবারের চ্যাম্পিয়নরা। জার্মানির ক্ষুরধার আক্রমণের কাছে ৪ বার পরাস্ত হয় ফার্নান্দো সান্তোসের রক্ষণভাগ। এরপর অবশ্য একটি গোল পরিশোধ করে পর্তুগাল। ৪-২ গোলের হারের স্মৃতি নিয়ে মাঠে নামবে পর্তুগিজরা। অপরপক্ষে প্রথম ম্যাচে জার্মানির ম্যাটস হামেলসের আত্মঘাতী গোলে জয় উপহার পায় ফ্রান্স। দ্বিতীয় ম্যাচে হাঙ্গেরির বিপক্ষে দাপট দেখিয়েও হারতে বসেছিল ফরাসিরা। ১-০ গোলে পিছিয়ে থাকার পর শেষ অংশে অঁতোয়ান গ্রিজম্যানের গোলে হার এড়ায় দলটি। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ফ্রান্সের চেয়ে ৩ ধাপ পেছনে পর্তুগাল। ফ্রান্স দুইয়ে, পর্তুগালের অবস্থান পাঁচে।
 সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সেও রোনালদোদের চেয়ে এগিয়ে ম্যানুয়েল নয়্যাররা। শেষ পাঁচ ম্যাচের তিন জয়ের বিপরীতে এক হার ও এক ড্র পর্তুগালের। অপরদিকে ৪ জয়ের বিপরীতে ফ্রান্সের ড্র একটি ম্যাচে। ‘হেড টু হেড’ পরিসংখ্যানও ফেভারিট মানছে ফ্রান্সকে। ২৭ দেখায় ১৯টি ম্যাচে জিতেছে ফ্রান্স। পর্তুগালের সাফল্য মাত্র ৬টি ম্যাচে। আন্তর্জাতিক ফুটবলে দু’দলের সর্বশেষ দেখা গত বছর। ন্যাশনস লীগের গ্রুপ পর্বের ম্যাচটিতে পর্তুগালকে ১-০ গোলে হারায় ফ্রান্স। তবে ২০১৬ ইউরো ফাইনাল জয়ের স্মৃতি পর্তুগিজদের আত্মবিশ্বাসের দিক থেকে এগিয়ে রাখবে। জার্মানির বিপক্ষে ৪-২ গোলের হারের নিজের কৌশলগত ত্রুটির কথা বলেছিলেন ফার্নান্দো সান্তোস। ফ্রান্সের বিপক্ষে জয়ে ফিরতে মরিয়া পর্তুগাল কোচ। তিনি বলেন, ‘গত ম্যাচের পর্যালোচনা করলে স্পষ্ট যে, এখন আমাদের কী করা উচিত। ফ্রান্সের বিপক্ষে খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি ম্যাচ খেলতে নামছি আমরা।’ ফরাসি
কোচ দিদিয়ের দেশম বলেন, ‘সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, স্ট্রাইকারদের মতো পুরো দলের উপরই ভরসা রয়েছে আমার। ফরোয়ার্ডরা যখন গোল পায় না, বাকিদের কাজটা সহজ করতে হয়।’ ইউরো ১৬’র ফাইনালের পুনরাবৃত্তি ঠেকাতে প্রস্তুত আছেন ফরাসি স্ট্রাইকার অঁতোয়ান গ্রিজম্যান। তিনি বলেন, ‘ম্যাচটি ফাইনালের মতো। কিন্তু
বাকি দু’টি ম্যাচের মতোই খেলব আমরা। আমরা জানি, আমাদের উন্নতির জন্য একটা ভালো ফলাফল দরকার। জয়ই হতে পারে সর্বোত্তম ফলাফল। মাঠে তাদের (পর্তুগালের) কাজগুলো কঠিন করাই থাকবে আমাদের প্রথম লক্ষ্য।’ করোনাভাইরাসের প্রকোপে ইউরোর স্টেডিয়ামগুলোতে শতভাগ দর্শকের উপস্থিতির অনুমতি দেয়নি উয়েফা। তবে হাঙ্গেরিতে করোনার প্রকোপ কম থাকায় ভরা গ্যালারি নিয়ে হচ্ছে ম্যাচগুলো। গ্রিজম্যান বলেন, ‘ স্টেডিয়ামটি পুরো দর্শকে ভরা থাকবে। এমন পরিবেশে খেলতে আমি পছন্দ করবো।’

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর



খেলা সর্বাধিক পঠিত



বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া টি-টোয়েন্টি সিরিজ

কোয়ারেন্টিনে আক্রান্ত দু’জন, আরও সতর্ক বিসিবি

DMCA.com Protection Status