শিশু হত্যা

পুলিশ কনস্টেবল এবাদুরসহ তিনজনের ফাঁসি বহাল

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন (১ মাস আগে) জুন ২২, ২০২১, মঙ্গলবার, ১২:৪৮ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৭:৩৫ অপরাহ্ন

সিলেটে বহুল আলোচিত শিশু আবু সাঈদ অপহরণ ও হত্যা মামলায় পুলিশ কনস্টেবলসহ তিনজনের ফাঁসির সাজা বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার আসামিদের ডেথ রেফারেন্স ও আপিল শুনানি করে বিচারপতি শহিদুল করিম ও বিচারপতি আখতারুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন। যাদের ফাঁসি বহাল রাখা হয়েছে তারা হলেন- সিলেটের বিমানবন্দর থানার বহিষ্কৃত কনস্টেবল এবাদুর রহমান পুতুল, সিলেট জেলা ওলামা লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাকিব এবং র‌্যাবের কথিত সোর্স আতাউর রহমান গেদা।
রায়ের বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানান আসামিপক্ষের আইনজীবী মোহাম্মাদ শিশির মনির। তিনি বলেন,  আদালত পুলিশ কনস্টেবল এবাদুল সহ তিনজনের ফাঁসি বহাল রেখেছে।
আদালত সূত্র জানায়, শিশু সাঈদ হত্যা মামলায় ৩৭ জন সাক্ষীর বিপরীতে ২৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে। গত ১৭ই নভেম্বর চার্জগঠনের মাধ্যমে শিশু সাঈদ হত্যা মামলার বিচারকাজ শুরু হয়।

২০১৫ সালের ১১ই মার্চ নগরীর শাহ মীর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র আবু সাঈদ (৯) অপহৃত হয়। অপহরণের তিন দিন পর ১৪ই মার্চ নগরীর ঝর্ণারপাড় সোনাতলা এলাকায় পুলিশ কনস্টেবল এবাদুর রহমান পুতুলের বাসার ছাদের চিলেকোটা থেকে আবু সাঈদের বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর এই মামলায় চারজনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন কোতোয়ালি থানার ওসি মোশাররফ হোসেন।২০১৫ সালের ৩০ নভেম্বর সিলেটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আব্দুর রশিদ এই তিনজনকে ফাঁসির সাজা দিয়ে রায় ঘোষণা করেন। সেই রায়ের ডেথ রেফারেন্স ও আসামিদের করা আপিলে আবেদন শুনানি শেষে আজ এ রায় ঘোষণা করা হলো।।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

ফ্ল্যাট বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

‘জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করাটাই বাংলাদেশের উন্নতি’

৩ আগস্ট ২০২১

মমতার ‘খেলা হবে’

৩ আগস্ট ২০২১



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



সরানো হয়েছে 'ঘটনা সত্য', থামেনি প্রতিবাদ

আমার সন্তান পাপের শাস্তি নয়, সে একটা স্পেশাল গিফট

DMCA.com Protection Status