আইসিসির ইভেন্ট আয়োজন নিয়ে গোপনীয়তা রাখছে বিসিবি

স্পোর্টস রিপোর্টার

খেলা ২১ জুন ২০২১, সোমবার

২০২৪-২০৩১ সাল পর্যন্ত আট বছরের বিশ্বকাপ, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির মতো বৈশ্বিক ইভেন্টগুলোর সূচি ইতিমধ্যে প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা (আইসিসি)। প্রতিবছরই থাকছে কোনো না কোনো বৈশ্বিক টুর্নামেন্ট। গুঞ্জন ছিল এই আয়োজনে অংশ নেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি)। তবে গুঞ্জন উড়িয়ে সেই সত্যতাই প্রকাশ করেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। জানিয়ে দেন আইসিসির আগামী বৈশ্বিক ইভেন্ট  ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ যৌথভাবে আয়োজন করতে চায় বাংলাদেশ। এ ছাড়াও চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিও এককভাবে আয়োজন করতে চায়। তবে এরইমধ্যে আইসিসি নির্দেশ দিয়েছে এসব ইভেন্ট আয়োজনের ক্ষেত্রে রাখতে হবে কঠোর গোপনীয়তা। যে কারণে এই আয়োজনে কাজ শুরু করলেও তা প্রকাশ করতে পারবে না বলে নিশ্চিত করেছেন বিসিবির মিডিয়া বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।
দৈনিক মানবজমিনকে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, আমরা আইসিসির ইভেন্টগুলো আয়োজনের জন্য কাজ শুরু করে দিয়েছি। আমাদের যে প্রক্রিয়াগুলো আছে সেগুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে আইসিসির নির্দেশ এই বিষয়ে আমরা কোনো ধরনের তথ্য সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করতে পারবো না। তাই কোনটি আয়োজন করবো, একক নাকি যৌথভাবে তার কোনো কিছু নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত আমাদের পক্ষে প্রকাশ করা সম্ভব নয়।’ আইসিসির সূচি অনুসারে ২০২৩ এর পর দুটি ওয়ানডে বিশ্বকাপ আয়োজিত হবে ২০২৭ ও ২০৩১ সালে। এ ছাড়াও চারটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে ২০২৪, ২০২৬, ২০২৮ ও ২০৩০ সালে। ২০২৫ ও ২০২৯ সালে অনুষ্ঠিত হবে ৮ দলের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। আরও থাকছে চারটি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। সেগুলোর ফাইনাল মাঠে গড়াবে ২০২৫, ২০২৭, ২০২৯ ও ২০৩১ সালে। জানা গেছে, আইসিসির ঘোষিত উইন্ডোতে ২০২৫ ও ২০২৯ সালে দুটি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি রয়েছে। এককভাবে এই দুই টুর্নামেন্টের যেকোনো একটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করার জন্য বিড করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এ ছাড়া ২০২৭ ও ২০৩১ সালে রয়েছে দুটি ওয়ানডে বিশ্বকাপ। এর যেকোনো একটিতে যৌথভাবে স্বাগতিক হতে চায় বাংলাদেশ। তবে হাতে খুব বেশি সময় নেই। তাই কাজ শুরু করে দিয়েছে বিসিবি।
এ বিষয়ে সব শেষ বিসিবির পরিচালনা পরিষদে সভা শেষে সভাপতি নাজমুল হাসান বলেছিলেন, ‘এখানে কতগুলো সমস্যা আছে। আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ আয়োজন করতে ১০টা পরিপূর্ণ ভেন্যু দরকার। এটার আয়োজক তারাই হতে পারবে যাদের সব সুযোগ-সুবিধাসহ ১০টা পরিপূর্ণ ভেন্যু আছে। আমাদের তো নেই, এটা তো আমাদের পক্ষে সম্ভব না। যদি টি-টোয়েন্টিতে যাই, তাহলে অন্তত ৮টি ভেন্যু লাগবে। এটাও আমাদের জন্য কঠিন। আরেকটা আছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি, এটা আমাদের জন্য ঠিক আছে। এটা আমরা আয়োজন করতে পারি (এককভাবে)। আমরা ঠিক করেছি, এককভাবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি আয়োজনের চেষ্টা করবো। আর ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ একা পারবো না, যৌথভাবে করবো। আমাদের ইচ্ছা আছে এসিসির অধীনে যারা আছি তাদের সঙ্গে কথা বলে একসঙ্গে আয়োজনের প্রস্তাব দিবো। যৌথভাবে আয়োজন করলে পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। আমরা পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, ভারতের সঙ্গে কথা বলবো। সময় খুব কম। দুই একদিনের মধ্যেই সেরে ফেলতে হবে।’ সবশেষ ২০১১ বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কা ও ভারতের সঙ্গে যৌথভাবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ আয়োজন করে বিসিবি। এ ছাড়াও ২০১৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এককভাবে আয়োজন করে বাংলাদেশ। তবে এরপর থেকে আর কোনো আইসিসির ইভেন্ট আয়োজন করতে পারেনি টাইগারদের ক্রিকেট অভিভাবকরা। তবে জানা গেছে, এবার বিসিবি কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছে। এই বিষয়ে জালাল ইউনুস বলেন, ‘হ্যাঁ, আমাদের সভাপতি তো জানিয়েছেন হাতে তেমন সময় নেই। তাই কাজগুলো শুরু করে দিয়েছি। যেটা বললাম আমরা একটি সভাও করেছি। সেখানেও আইসিসির নির্দেশ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। যে কারণে কাজ শুরু করলেও এর বিস্তারিত জানানো যাবে নিশ্চিত হওয়ার পরই।’

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর



খেলা সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status