দক্ষিণ আফ্রিকায় গুলিতে দাগনভূঞার তামিম নিহত

ফেনী প্রতিনিধি

অনলাইন (১ মাস আগে) জুন ২০, ২০২১, রোববার, ৯:৩৯ পূর্বাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৪:৩৪ অপরাহ্ন

দক্ষিণ আফ্রিকায় কৃষ্ণাঙ্গ সন্ত্রাসীদের গুলিতে হুমায়ুন কবির তামিম (৩০) নামে এক বাংলাদেশি যুবক নিহত হয়েছেন। বাংলাদেশ সময় শুক্রবার রাতে দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গের অদূরে লেনেশিয়াতে এঘটনা ঘটে।

নিহত তামিম ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার ইয়াকুবপুর ইউনিয়নের মিদ্দাহাট এলাকার তাজমোহন পাটওয়ারী বাড়ির আবুল কাশেমের ছেলে।
নিহতের মামা ও দক্ষিণ আফ্রিকা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আউয়াল তানসেন জানান, প্রায় চার বছর আগে জীবন-জীবিকার তাগিদে তিনি ভাগিনা তামিমকে আফ্রিকা নিয়ে যান। সাউথ আফ্রিকার লেনেশিয়াতে নিজ দোকানে ভাগিনা তামিমকে চাকরি দেন। প্রতিদিনের মতো দোকানের কাউন্টারে কাজ করছিলেন তামিম। বাংলাদেশ সময় শুক্রবার রাতে ৭/৮ জনের সশস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ সন্ত্রাসী দোকানে হানা দেন। এসময় তারা দোকানের কাউন্টারের ক্যাশ থেকে নগদ টাকা লুট করতে চাইলে তামিম বাধা দেয়। এতে কৃষ্ণাঙ্গ সন্ত্রাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে তামিমের বুকে পরপর তিনটি গুলি করে। তারা দোকানের ক্যাশ ভেঙ্গে নগদ টাকা ও মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।
এসময় গুলিবিদ্ধ তামিম মাটিতে লুটিয়ে পড়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে স্থানীয়রা রক্তাক্ত তামিমকে পার্শ্ববর্তী একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

দাগনভূঞা উপজেলার ইয়াকুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য শাহাদাত হোসেন সোহেল জানান, দক্ষিণ আফ্রিকায় গুলিতে নিহত তামিম তাদের বাড়ির ছেলে ও সম্পর্কে তার ভাতিজা হয়। তামিমের এক স্বজন সে দেশ (আফ্রিকা) থেকে তার মৃত্যুর খবর দেশে পরিবারের কাছে পাঠিয়েছেন। তামিমের মৃত্যুর খবরে বারবার মূর্ছা যাচ্ছেন তার স্বজনরা। তামিমের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।  তামিমের মরদেহ দেশে আনার জন্য স্বজনরা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

দাগনভূঞার ইয়াকুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল ফোরকান বুলবুল জানান, তামিমের পরিবার বর্তমানে পার্শ্ববর্তী নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নে নানার বাড়ির পাশে একটি নতুন বাড়ি করে বসবাস করছে। তিনি আরো জানান, তামিমের মরদেহ দেশে নিয়ে আসার জন্য প্রয়োজনীয় সব সহযোগিতা করা হবে।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status