এরিকসেন স্মরণের ম্যাচে নায়ক ডি ব্রুইনা

স্পোর্টস ডেস্ক

খেলা ১৮ জুন ২০২১, শুক্রবার

ডেনমার্ক-বেলজিয়াম ম্যাচে না থেকেও ছিলেন ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন। কোপেনহেগেনের পার্কেন স্টেডিয়ামেই ফিনল্যান্ডের বিপক্ষে খেলার সময় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মাঠে পড়ে যান এরিকসেন। স্টেডিয়াম থেকে কয়েকশ মিটার দূরের হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তার। বৃহস্পতিবার ডেনমার্ক-বেলজিয়াম ম্যাচে ঘড়ির কাঁটা ১০ মিনিট ছুঁতেই পুরো স্টেডিয়ামের দর্শকরা এরিকসেনের সম্মান ও সমর্থনে হাততালি দিতে থাকেন। খেলা থামিয়ে দেন রেফারিও। পরে দর্শকদের সঙ্গে যোগ দেন দু’দলের খেলোয়াড়রা। এরিকসেনের জার্সি নম্বরের সঙ্গে মিল রেখে ম্যাচের দশম মিনিটকে বেছে নেন দর্শকরা।

আগের ম্যাচে এরিকসেনকে হারানোর সঙ্গে ফিনল্যান্ডের কাছে হারের হতাশা যোগ হয়েছিল ডেনিশদের। হতাশা মুছে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর দল বেলজিয়ামের বিপক্ষে ভালো শুরু পায় তারা।
ম্যাচের ৯৯ সেকেন্ডের মাথায় গোল করেন ইউসুফ পোলসেন। লাইপজিগ ফরোয়ার্ডের ৯৯ সেকেন্ডের এই গোল ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের ইতিহাসে দ্বিতীয় দ্রুততম। সবচেয়ে দ্রুততম গোলটি ৬৫ সেকেন্ডে; ২০০৪ আসরে গ্রিসের বিপক্ষে করেছিলেন রাশিয়ার দিমিত্রি কিরিচেনকো।

প্রথমার্ধে মাঠে ছিলেন না বেলজিয়ামের মাঝমাঠের প্রাণ কেভিন ডি ব্রুইনা। মাত্রই ইনজুরি থেকে ফেরা ম্যানসিটি তারকা মাঠে নামেন বিরতির পর। দুর্দান্ত মৌসুম কাটানো এই মিডফিল্ডারের ছোঁয়ায় বদলে যায় বেলজিকরা। ৫৫তম মিনিটে থরগান হ্যাজার্ডের সমতা ফেরানো গোলে অবদান ডি ব্রুইনার। রোমেলু লুকাকু ডান দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে ছোট পাস দেন ডি ব্রুইনাকে। দারুণভাবে প্রথম ছোঁয়ায় বল ধরে গোলমুখে বাড়ান তিনি। ফাঁকায় বল পেয়ে লক্ষ্যভেদ করতে ভুল হয়নি থরগান হ্যাজার্ডের। প্রথম ইউরোপীয় ফুটবলার হিসেবে এই নিয়ে শেষ চারটি মেজর টুর্নামেন্টে (২০১৪ ও ২০১৮ বিশ্বকাপ এবং ২০১৬ ও ২০২০ ইউরো) অ্যাসিস্ট করলেন ডি ব্রুইনা। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে টানা দ্বিতীয়বার সেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছেন সময়ের অন্যতম সেরা এই মিডফিল্ডার। জয়সূচক গোল করে বেলজিয়ামকে তুলে দিলেন শেষ ষোলোয়। ২০ গজ দূর থেকে দারুণ এক গোল করেন ব্রুইনা।

‘বি’ গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে সোমবার ফিনল্যান্ডের মুখোমুখি হবে আসরের অন্যতম ফেভারিট বেলজিয়াম। একই দিন ডেনমার্কের প্রতিপক্ষ রাশিয়া।

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর



খেলা সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status