সিলেটে শফি চৌধুরীকে পাল্টা জবাব হাবিবের

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে

শেষের পাতা ১৭ জুন ২০২১, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:২৯ অপরাহ্ন

সিলেট-৩ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নেতা শফি আহমদ চৌধুরীর বক্তব্যের জবাব দিয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান চৌধুরী। বলেছেন, ‘প্রয়াত এমপি’র স্ত্রী ফারজানা চৌধুরী আমার সঙ্গে রয়েছেন। দলীয় প্রার্থী হিসেবে তিনি আমাকেই সমর্থন দিয়েছেন। আমার সঙ্গে আছেন এবং থাকবেনও। শফি চৌধুরী তাকে নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন সেটি ঠিক নয়।’ নৌকা মার্কার এমপি প্রার্থী মনোনীত হওয়ার পর গতকাল দুপুরে তিনি সিলেটের একটি হোটেলে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এ কথা বলেন। মনোনয়পত্র দাখিলের আগের দিন শফি আহমদ চৌধুরী সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন- প্রয়াত এমপি’র স্ত্রী তাকে সমর্থন জানিয়েছেন। এর বাইরেও আরো কয়েকজন তাকে সমর্থন দিয়েছেন। এ কারণে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হচ্ছেন বলে জানিয়েছিলেন।
এছাড়া- আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবকে চিনেন না বলেও মন্তব্য করেছিলেন। এদিকে- সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব জানিয়েছেন- ‘সিলেট-৩ আসনে দল  থেকে যারা মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন, তাদের সবাই গ্রহণীয় এবং বরণীয়। মেধা, যোগ্যতা এবং আপন রাজনৈতিক প্রজ্ঞায় তাদের সকলেরই নিজস্ব একটি অবস্থান রয়েছে। আমি আগামীর সকল কার্যক্রমে তাদের পরামর্শ, আন্তরিকতা এবং সহযোগিতা নিয়েই এগিয়ে যেতে চাই। আমার এই চাওয়া শুধু নির্বাচনকালীন প্রয়োজনে নয়, আমার আগামী সকল রাজনৈতিক কর্মযজ্ঞে, তারাই হবেন আমার মূল চালিকাশক্তি।’ হাবিব বলেন- ‘দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জ নিয়ে সিলেট-৩ আসনের নির্বাচনী সীমানা। এই আসনে টানা তিনবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ছিলেন মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী কয়েস। গত ১১ই মার্চ ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। প্রয়াত এমপি’র বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে হাবিব বলেন, গেল দু’টি নির্বাচনেও সিলেট-৩ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলাম। দলীয় মনোনয়ন না পেলেও দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছি। এই আসনের মাটি ও মানুষের সঙ্গে জন্মঋণ রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন- সম্পর্ক এবং ভালোবাসার তাগিদ এই দুইয়ের সমন্বয় সাধন করতেই প্রচেষ্টা চালাতে চাই।’ সভায় সভাপতিত্ব করেন সিলেট জেলা পরিষদের  চেয়ারম্যান ও সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রবীণ রাজনীতিবিদ এডভোকেট লুৎফুর রহমান ও পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান। এছাড়া মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন- সাবেক সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা হক,  জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট নিজাম উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কবির উদ্দিন আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট রঞ্জিত সরকার, আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট আজমল আলী, কৃষিবিষয়ক সম্পাদক হাজী ফারুক আহমদ, ধর্ম-বিষয়ক সম্পাদক হাজী রইছ আলী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট ছালেহ্‌ আহমদ হীরা, উপ-প্রচার সম্পাদক মতিউর রহমান মতি,  কোষাধ্যক্ষ শমসের জামাল, সদস্য এডভোকেট বদরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, শহিদুর রহমান শাহিন, মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য তাহমিন আহমদ, বালাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তাকুর রহমান মফুর, সাধারণ সম্পাদক আনহার মিয়া, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শামীম আহমদ,  ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত আলী ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাসিত টুটুল প্রমুখ।
শফি আহমেদ চৌধুরীকে বিএনপি’র শোকজ: দলের জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য শফি আহমেদ চৌধুরীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে বিএনপি। আসন্ন সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দেয়ায় দলের পক্ষ থেকে তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে তার কাছে এ চিঠি পাঠানো হয় এবং আগামী তিনদিনের মধ্যেই চিঠির জবাব দেয়ার জন্য জানানো হয়েছে। বিষয়টি মানবজমিনকে নিশ্চিত করেছেন বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক ও দলটির চলতি দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত এমরান সালেহ প্রিন্স। তিনি বলেন, আসন্ন উপনির্বাচনগুলোতে বিএনপি অংশ না নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তারপরেও সিলেট-৩ আসন থেকে বিএনপি’র জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য শফি আহমেদ চৌধুরী নির্বাচন করার ঘোষণা দেয়ায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। আগামী তিনদিনের মধ্যে তার জবাব দেয়ার জন্য বলা হয়েছে।
দলীয় সূত্রে জানা যায়, শফি আহমেদ চৌধুরীকে পাঠানো চিঠিতে উল্লেখ ছিল, আপনি নিশ্চয়ই অবগত আছেন যে, দেশের নির্বাচন ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভাবে ভেঙে পড়ায় এবং বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অযোগ্যতা ও প্রতিটি নির্বাচনে সরকারের নগ্ন হস্তক্ষেপের কারণে গত ২২শে মে তারিখে অনুষ্ঠিত বিএনপি’র জাতীয় স্থায়ী কমিটির সভায় সর্বসম্মতিক্রমে জাতীয় সংসদের সিলেট-৩, লক্ষ্মীপুর-২, ঢাকা-১৪ এবং কুমিল্লা-৫ আসনের উপনির্বাচনে অংশ না নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। দলের এই সিদ্ধান্ত ইতিমধ্যে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানানো হয়েছে এবং তা বিভিন্ন জাতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত ও প্রচারিত হয়েছে।
চিঠিতে আরও বলা হয়, আমরা লক্ষ্য করছি যে, আপনি দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে আসন্ন জাতীয় সংসদের সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনে অংশগ্রহণ করার ঘোষণা দিয়েছেন।
গতকাল বিভিন্ন সংবাদপত্রে সেটি প্রকাশিত হয়েছে। এ ছাড়াও আপনার একটি ভিডিও ক্লিপ পাওয়া গেছে যেখানে আপনি আসন্ন উপনির্বাচনে অংশ নেয়ার কথা জানিয়ে অনেক কথা বলেছেন। আপনার এ ধরনের বক্তব্য ও আচরণ দলের সিদ্ধান্ত এবং শৃঙ্খলা পরিপন্থি বিধায় আপনার বিরুদ্ধে কেন সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, তা আগামী তিনদিন অর্থাৎ ১৮ই জুন ২০২১ এর মধ্যে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বরাবর লিখিতভাবে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ জানাচ্ছি।

আপনার মতামত দিন

শেষের পাতা অন্যান্য খবর

৭ই আগস্ট থেকে দেশজুড়ে টিকার ক্যাম্পেইন

২৬ জুলাই ২০২১

 আগামী ৭ই আগস্ট থেকে সারা দেশে ৬ দিনব্যাপী করোনার টিকা দেয়ার জন্য ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হবে। ...

সড়কে কড়াকড়ি

২৫ জুলাই ২০২১

মাঠে সরব এমপি পক্ষ

পাকুন্দিয়া আওয়ামী লীগে উত্তাপ

২৫ জুলাই ২০২১



শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত



রাজশাহীতে ২২ গরু নিলামে

নিঃস্ব মালিকদের বাড়িতে কান্নার রোল

পাকুন্দিয়ায় আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে নতুন মেরূকরণ

আহ্বায়ক সোহরাব, এমপি পক্ষের বিক্ষোভ, রেনুর না

কড়া নজরদারি পুলিশের

ঢাকায় পশুর হাট নিয়ে শঙ্কা

DMCA.com Protection Status