শঙ্কা কাটেনি লিটনের ভালো আছেন মোস্তাফিজ

স্পোর্টস রিপোর্টার

খেলা ১৬ জুন ২০২১, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:১৬ পূর্বাহ্ন

ঢাকা প্রিমিয়ার লীগে আবাহনীর হয়ে একটি ম্যাচেও মাঠে নামতে পারেননি লিটন কুমার দাস। জাতীয় দলের এই তারকা ভুগছেন রিস্ট স্ট্রেন ইনজুরিতে। এরই মধ্যে জানা গেছে ৭০ ভাগ সুস্থ হয়ে উঠেছেন লিটন। তবে সুপার লীগে খেলা হবে কিনা তা এখনো অনিশ্চিত। যদিও আশা করা হচ্ছে জিম্বাবুয়ে সফরে যেতে পারবেন এই ওপেনার। তবে ম্যাচ ফিটনেস ফিরে পেতে হলে তাকে ম্যাচ খেলতেও হবে। তবেই নিশ্চিত হওয়া যাবে তিনি শঙ্কা মুক্ত কিনা। আপাতত তাকে নিয়ে কোনো ঝুঁকি নিচ্ছে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।
তবে সুস্থ হলে তাকে হয়তো ঢাকা লীগের শেষ দুই একটি ম্যাচ খেলতে দেখা যেতে পারে বলে জানিয়েছেন বিসিবি’র মেডিকেল বিভাগের প্রধান চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী। দৈনিক মানবজমিনকে তিনি বলেন, ‘লিটন এখন পর্যন্ত ৭০ ভাগ রিকভারি করেছে। তবে এটা নিশ্চিত যে, ঢাকা লীগে সামনে তিন বা চার ম্যাচে খেলার সম্ভাবনা নেই। তবে আরেকটা বিষয় হলো তার ম্যাচ ফিটনেসও আমাদের দেখতে হবে। তার ম্যাচ ফিটনেসের ওপর নির্ভর করছে জিম্বাবুয়ে সফর। আমরা তাকে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ওঠার জন্য আরও সময় দিচ্ছি।’ অন্যদিকে ঢাকা লীগে প্রাইম ব্যাংকের হয়ে খেলার সময় ব্যাক ইনজুরিতে পড়েন পেসার মোস্তাফিজুর রহমান। তার দলের ফিজিও ও বিসিবি’র মেডিকেল বিভাগ জানিয়েছে এখন তিনি ভালো আছেন। চাইলেই খেলতে পারবেন।
প্রাইম ব্যাংকের হয়ে টানা তিন ম্যাচ খেলছেন না মোস্তাফিজুর রহমান। জাতীয় দলের এই পেসারকে নিয়ে তাই চিন্তার ডালপালা মেলতে শুরু করেছিল। শেষ পর্যন্ত জিম্বাবুয়ে সফরে যেতে পারবেন তো! জানা গেছে, তার মেরুদণ্ডের নিচের দিকে হাড়ে ব্যথা রয়েছে। এরই মধ্যে চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী তার ইনজুরির কারণ নির্ণয় করে দলকে পরামর্শ দিয়েছেন তাকে বিশ্রামে রাখার। প্রাইম ব্যাংকের ফিজিও নূরুল হুদা সোহেল বলেন, ‘মোস্তাফিজের ব্যাক পেইন। বিসিবি’র চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী ও ফিজিও বায়জিদুল ইসলাম খান তাকে এরই মধ্যে পরীক্ষা করে দেখেছেন। তাদের কথামতো বিশ্রামে রাখা হয়েছে। তিন ম্যাচ খেলানো হয়নি তাকে। যদি প্রয়োজন হয় আরও বিশ্রাম তিনি নিতে পারবেন। তবে আমরা আশা করছি, সামনের ম্যাচ থেকে তাকে আপনারা পাবেন। এমন হতে পারে সুপার লীগের প্রথম ম্যাচ থেকেই খেলতে পারেন মোস্তাফিজ।’ জানা গেছে, আসন্ন জিম্বাবুয়ে সিরিজকে সামনে রেখে বিসিবি মোস্তাফিজকে নিয়ে কোনো ঝুঁকি নিতে চাইছে না। তাই প্রাইম ব্যাংক হয়তো তাকে বেশি খেলানোর চেষ্টা করবে না।  

ফেরার অপেক্ষায় শফিউল, অনিশ্চয়তায় হাসান
বাকি সারা জীবনই ইনজুরি নিয়ে খেলতে হবে পেসার শফিউল ইসলামকে। তবে খেলার জন্য জাতীয় দলের এই অভিজ্ঞ পেসারকে নিতে হবে ব্যথানাশক বিশেষ ইনজেকশন। এরই মধ্যে তাকে সেই ইনজেকশন দেয়া হয়েছে। তবে মাঠে ফেরার অপেক্ষায় থাকা শফিউলের এখনই খেলার সুযোগ হচ্ছে না। কারণ বিসিবি’র চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী তাকে আপাতত বিশ্রাম নেয়ারই পরামর্শ দিয়েছেন। এ ছাড়াও তরুণ পেসার হাসান মাহমুদ নিউজিল্যান্ড সফরে ইনজুরিতে পড়েন। গেল কয়েকদিন থেকে তিনি মাঠে নেমেছেন। তবে খুব সহসাই তার খেলায় ফেরা হচ্ছে না। এক কথায় দ্রুত তার মাঠে ফেরার নিশ্চয়তা নেই। এই দুজনকে নিয়ে বিসিবি’র প্রধান চিকিৎসক বলেন, ‘আমরা আগেই জানিয়েছিলাম শফিউল ইনজেকশন না নিলে খেলতে পারবে না। এরই মধ্যে সেটি তাকে দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে পরামর্শ দেয়া হয়েছে যেন এখনই খেলা শুরু না করে। কারণ দীর্ঘদিন থেকে ও মাঠের বাইরে আছে। হঠাৎ করে মাঠে নামলে সমস্যা হতে পারে। আর হাসান মাহমুদ রিহ্যাব শুরু করেছে। তবে ওকে আরও লম্বা সময় কাজগুলো করতে হবে। ওর মাঠে ফিরতে অনেক সময় লাগবে। এখনই ফেরা হচ্ছে না।’

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর



খেলা সর্বাধিক পঠিত



বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া টি-টোয়েন্টি সিরিজ

কোয়ারেন্টিনে আক্রান্ত দু’জন, আরও সতর্ক বিসিবি

DMCA.com Protection Status