চিকিৎসকের অভাবে সিরাজদিখানে অস্ত্রোপচার বন্ধ

সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি

বাংলারজমিন ১০ জুন ২০২১, বৃহস্পতিবার

মুন্সীগঞ্জের  সিরাজদিখানে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটির অস্ত্রোপচার সেবা বন্ধ রয়েছে প্রায় দুই বছর। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রশাসন বলছে, লোকবল সংকটের কারণে এই সেবা বন্ধ।  তাই  বাধ্য হয়ে রোগীরা ছুটছেন ব্যক্তি মালিকানাধীন হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতে। ফলে বিপাকে পড়েছেন সেবা প্রত্যাশী ও নিম্নআয়ের খেটে খাওয়া মানুষ। দুই বছর অস্ত্রোপচার কক্ষ বন্ধ থাকায় বিকল হওয়ার পথে রয়েছে অস্ত্রোপচার সংক্রান্ত সকল যন্ত্রপাতি। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, গত প্রায় দুই বছর আগে এনেসথেসিয়া বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা. মহিউদ্দিন সুমন পদোন্নতি পেয়ে অন্যত্র যোগদান করেন। এরপর থেকে এই পদটি শূন্য অবস্থায় রয়েছে। এছাড়া দীর্ঘদিন খালি থাকার পর একজন অস্ত্রোপচার চিকিৎসক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে পদোন্নতির কারণে তিনিও চলে যান। এরপর থেকে গত এক বছর ধরে এ পদটিও শূন্য অবস্থায় রয়েছে।
গত দুই বছর আগেও এখানে প্রসূতি মায়েদের প্রসবসেবা, টিউমার, ফোঁড়াসহ বেশ কয়েকটি অস্ত্রোপচার নিয়মিত হতো।
নিম্ন ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষ এখানে অল্প টাকায় এই সেবা গ্রহণ করতে পারতেন। কিন্তু এনেসথেসিয়া চিকিৎসকের অভাবে গত দুই বছর ধরে বন্ধ রয়েছে এ সকল কার্যক্রম। হাসপাতালের চিকিৎসকগণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বহির্বিভাগে   চার শতাধিক রোগীকে প্রতিদিন  সেবা প্রদান করে। কিন্তু হাসপাতালে গাইনি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক থাকার পরও শুধুমাত্র এনেসথেসিয়া চিকিৎসকের অভাবে  প্রাই ২ বছর   ধরে বন্ধ রয়েছে অস্ত্রোপচার সেবা।
চিকিৎসা নিতে আসা উপজেলার জৈনসার এলাকার ফিরোজা বেগম জানান, হাসপাতালে নিতে এসেছিলেন টিউমারের অপারেশন করাতে। এখানে চিকিৎসক না থাকায় ফিরে যাচ্ছেন। তাকে বাধ্য হয়ে এখন ব্যক্তি মালিকানাধীন হাসপাতালে ছুটতে হবে। বাড়তি টাকার চিন্তা এখন তাকে ভাবাচ্ছে।
হাসপাতালের নিকটবর্তী রাসেল জানান, প্রতিদিন ৫-৬ জন গর্ভবতী নারী উপজেলার  বিভিন্ন এলাকা থেকে এখানে ভর্তি হতে আসেন। কিন্তু হাসপাতালে গর্ভকালীন অস্ত্রোপচার সেবা বন্ধ শুনে তারা হতাশ হয়ে ফিরে যান। চিকিৎসক আর জরুরি প্রয়োজনে অস্ত্রোপচার বন্ধের শুনে আতঙ্কে রুগীর স্বজনরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এরিয়ে জান  ।  
এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (টিএইচও) ডাঃ আঞ্জুমান আরা  বলেন, এনেসথেসিয়া ও সার্জারি চিকিৎসক না থাকায় বড় অস্ত্রোপচারগুলো চলছে না। তবে ছোটখাটো অস্ত্রোপচারগুলো করা হচ্ছে। শূন্য পদে চিকিৎসক চেয়েছি কতৃপক্ষ বলেছে চিকিৎসক দেবেন । আমরা যন্ত্রপাতিগুলো নিয়মিতভাবে পরিচর্যা করছি।

আপনার মতামত দিন

বাংলারজমিন অন্যান্য খবর

দোহারে সাংবাদিকদের কার্যালয় ভাঙচুর

১৯ জুন ২০২১

দোহার উপজেলার জাতীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিকস মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের অফিস ভাঙচুর করা হয়েছে। দোহার পুলিশের ...

নোয়াখালীতে ছোট ভাইকে ছুরিকাঘাতে হত্যা, গ্রেপ্তার ৩

১৯ জুন ২০২১

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে ছোট ভাইকে ছুরিকাঘাতে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ...

‘ডিজিটালাইজেশনের মাধ্যমে ঘরে বসে মানুষ বিচারিক তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে’

১৯ জুন ২০২১

সিলেট মহানগর দায়রা জজ মো. আব্দুর রহিম বলেছেন, বিচারিক কার্যক্রম ডিজিটালাইজেশনের আওতায় আনা হলে মানুষ ...

বড়লেখায় ৮ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

১৯ জুন ২০২১

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় ৮ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসব ...

স্বাস্থ্যবিধি না মানায় দৌলতপুরে ৫ জনকে জরিমানা

১৯ জুন ২০২১

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে করোনা স্বাস্থ্যবিধি না মানাসহ পৃথক মামলায় ৫ জনের সাড়ে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড ...

চাঁদপুরে করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে ১ জনের মৃত্যু

১৯ জুন ২০২১

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। তার নাম রফিকুল্লাহ ...



বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত



শাল্লায় গৃহনির্মাণে অনিয়ম

৫৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা ফেরত দিলেন ইউএনও

শাল্লায় গৃহনির্মাণ অনিয়ম

৫৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা ফেরত দিলেন ইউএনও

কুমিল্লা-৫ আসনের উপনির্বাচন

নৌকা ও লাঙ্গলের প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

DMCA.com Protection Status