কলকাতা কথকতা

বাংলার বিজেপিতে বড়োসড়ো পরিবর্তনের আভাস, দলবদলুরা যোগাযোগ রাখছেন রাহুল গান্ধীর সঙ্গেও

জয়ন্ত চক্রবর্তী, কলকাতা

কলকাতা কথকতা (১ সপ্তাহ আগে) জুন ৯, ২০২১, বুধবার, ৯:৫৩ পূর্বাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৫:৩২ অপরাহ্ন

মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় বিরোধী বিজেপি দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে বৈঠক করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও বিজেপি সভাপতি জগৎ প্রতাপ নাড্ডা। বুধবার শুভেন্দুর সঙ্গে দেখা হতে পারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। এই আবহে রাজনৈতিক মহল বঙ্গ বিজেপিতে একটি বড়োসড়ো পরিবর্তনের আভাস দেখছেন। অমিত শাহ সম্প্রতি কথা বলেছেন কৈলাশ বিজয়বর্গিও সহ বিজেপির ৯ জন পর্যবেক্ষকের সঙ্গে। পশ্চিমবঙ্গে প্রত্যাশিত ফল না পাওয়ার কারণগুলি তিনি জানতে চান। এই প্রেক্ষিতে ভেঙে দেয়া হতে পারে রাজ্য কমিটি। আসতে পারেন নতুন রাজ্য সভাপতি। নতুন যুব সভাপতি হিসেবেও কাউকে আনা হতে পারে।
বাদ  দেয়া হতে পারে সাদা হাতিদের। শুভেন্দু অধিকারীর ক্ষমতা বাড়ার ইঙ্গিত মিলছে। গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে আসতে পারেন নিশীথ অধিকারীও। তৃণমূল থেকে আসা কয়েকজন রাজ্য কমিটিতে জায়গা পেতে পারেন। আবার দল সংশ্রব ছিন্ন করতে পারে কিছু নেতার সঙ্গে। এদিকে মঙ্গলবার দিলীপ ঘোষের ডাকা জরুরি বৈঠকে অনুপস্থিত ছিলেন মুকুল রায় ও রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। মুকুল রায় বলেন, এই বৈঠক নিয়ে কিছু জানতাম না। দিলীপ বাবু বলেন, ওঁকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় স্পষ্টত বিজেপি বিরোধিতা শুরু করেছেন। দিল্লি থেকে শুভেন্দু অধিকারীর ৩৫৬ ধারা চাওয়ার স্পষ্ট বিরোধিতা করেন রাজীব। কিন্তু, তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়া ঘরবদলুদের নিয়ে অবস্থান স্পষ্ট করেননি মমতা কিংবা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই, এঁরা কেউ কেউ রাহুল গান্ধীর সঙ্গে যোগাযোগ আরম্ভ করেছেন। আগামী বছর উত্তরপ্রদেশ বিধানসভার ভোট। তার আগে বিজেপি থেকে কিছু নেতা কংগ্রেসে গেলে মুখ পুড়বে বিজেপির। তাই, রাহুল গান্ধীও বিষয়টি উড়িয়ে দেন নি।

আপনার মতামত দিন

কলকাতা কথকতা অন্যান্য খবর



কলকাতা কথকতা সর্বাধিক পঠিত



ইনস্টাগ্রামে নুসরাতের স্বামী

পুরোনো কথা মনে পড়লে এখন হাসি পায়

DMCA.com Protection Status