আফগানিস্তানে স্কুলে জঙ্গি হামলায় নিহত বেড়ে ৬৮, বেশিরভাগই স্কুলছাত্রী

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন (১ মাস আগে) মে ৯, ২০২১, রোববার, ৮:০০ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ২:০৪ অপরাহ্ন

আফগানিস্তানের স্কুলের বাইরে বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৮ জনে দাঁড়িয়েছে। ঘটনায় আহত হয়েছে ১৬৫ জন। এখনো নিহতদের মধ্যে সকলের পরিচয় নিশ্চিত করা যায়নি। রাজধানী কাবুল থেকে কাছেই দাশত-ই-বার্চি এলাকায় শনিবার সন্ধ্যায় এই বিস্ফোরণ ঘটে। ধারণা করা হচ্ছে, সেখানে থাকা শিয়া সম্প্রদায়কে টার্গেট করেই এই হামলা পরিচালনা করা হয়েছে। প্রায়ই তালেবান ও ইসলামিক স্টেটের হামলার শিকার হন আফগান শিয়ারা। ধারণা করা হচ্ছে, এ সংগঠনগুলোর একটিই এই হামলার পেছনে রয়েছে। এখনো হামলার দায় স্বীকার করেনি কেউ।


রয়টার্সের খবরে জানানো হয়েছে, সায়িদ আল-শুহাদা স্কুলের সামনে প্রথমে একটি গাড়ি বিস্ফোরিত হয়। এরপর শিক্ষার্থীরা স্কুল থেকে বেড়িয়ে আসলে আরো দুটো বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয় সেখানে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নিহতদের বেশিরভাগই স্কুলের ছাত্রী। এখনো নিখোঁজ রয়েছেন অনেক শিক্ষার্থী। হাসপাতালে অনেক পরিবারকে দেখা যায় নিজের সন্তানের খোঁজ নিচ্ছেন। আফগান কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রথম বিস্ফোরণটি এতোটাই শক্তিশালী ছিল যে অনেকের মরদেহ হয়তো আর খুঁজে পাওয়া যাবে না।

এদিকে এই হামলার জন্য তালেবানকে দায়ি করেছেন আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি। এই হামলার নিন্দা জানিয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। তিনি একে পাশবিক বলে আখ্যায়িত করেছেন। এছাড়া এর নিন্দা জানিয়ে নিহতের পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব এন্তোনিও গুতেরা।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

আহাদ

২০২১-০৫-১০ ১৩:০৯:১৩

....এটি আফগান শান্তি আলোচনা যাতে ভেস্তে যায়, আমেরিকান সৈন্যরা যাতে আফগানিস্তান না ছাড়ে তারজন্য ভারত-ইসরাইলের গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ এটি।

Samsulislam

২০২১-০৫-০৯ ০৯:৪২:৪৭

এরা মানুষ নয় পশুর চেয়ে অধম।হুজুররা এখন বয়ান দেয় না কেন?

আনিস উল হক

২০২১-০৫-০৯ ০৭:০৮:৪৫

জঘন্যতম ধর্মাশ্রয়ী পাশবিক সন্ত্রাস !

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status