পুলিশকে সহায়তা ও অসহায় মানুষদের মাঝে খাবার বিতরণ করছে রেড ক্রিসেন্টের স্বেচ্ছাসেবকরা

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন (১ মাস আগে) মে ৯, ২০২১, রোববার, ৫:২৪ অপরাহ্ন

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির যুব ও স্বেচ্ছাসেবক বিভাগের আওতাধীন জাতীয় সদর দপ্তর যুব রেড ক্রিসেন্ট বিশ্ব রেড ক্রস রেড ক্রিসেন্ট দিবস উপলক্ষে ৩দিনব্যাপী নানা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে, রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন ট্রাফিক পয়েন্টে যানযট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশকে সহায়তা ও করোনা সচেতনতায় মাইকিং, ৩টি প্রথম সারির হাসপাতালের কোভিড ইউনিটে দায়িত্ব পালনকারী চিকিৎসক ও নার্সদের ঈদ উপহার সামগ্রী প্রদান, স্বেচ্ছায় রক্ত সংগ্রহ অভিযান এবং রাজধানীর ভাসমান ও নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে রান্নাকরা খাবার বিতরণ। এই সকল কার্যক্রম স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে বলে রেড ক্রিসেন্ট জাতীয় সদর দপ্তর যুব রেড ক্রিসেন্টের এর পক্ষ থেকে জানানো হয়।
জাতীয় সদর দপ্তর যুব রেড ক্রিসেন্ট জানায়, পবিত্র রমজান ও ঈদ উপলক্ষে ঢাকার রাস্তায় যানযট নিরসনে রাজধানীর ৬টি গুরুত্বপূর্ণ ট্রাফিক পয়েন্টে (মগবাজার চৌরাস্তার মোড়, সোনারগাঁও মোড়, আসাদগেট, মতিঝিল শাপলা চত্বর, গুলশান-১ ও শাহবাগ এলাকায় ট্রাফিক পুলিশদের সহায়তা এবং করোনা সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক কার্যক্রম করছে যুব ও স্বেচ্ছাসেবকরা। গত ৭ই মে থেকে এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রেড ক্রিসেন্টের স্বেচ্ছাসেবকরা কয়েকটি গ্রুপে ভাগ হয়ে প্রতিদিন রাজধানীর এই ৬টি স্পটে ট্রাফিক আইন মানা ও পথচারীদের পারাপারে জনসাধারণ ও ট্রাফিক পুলিশকে সহায়তা করছে। এছাড়াও পথচারীদের মাঝে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে মাইকিংসহ প্রচার প্রচারণা অব্যাহত রেখেছে যুব ও স্বেচ্ছাসেবকরা।
অপরদিকে, জাতীয় সদর দপ্তর যুব রেড ক্রিসেন্ট সদস্যদের নিজস্ব অর্থায়নে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, জাতীয় নাক-কান-গলা ইনস্টিটিউট ও হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কোভিড ইউনিটে কর্মরত প্রায় ৫০০ জন ডাক্তার ও নার্সদের জন্য ঈদ উপহার সামগ্রী দেয়া হয়েছে।
আজ ৯ই মে  রোববার সন্ধ্যায় জাতীয় সদর দপ্তর যুব ও স্বেচ্ছাসেবকদের উদ্যোগে বিশ্ব রেড ক্রস রেড ক্রিসেন্ট দিবস উদ্যাপনের অংশ হিসেবে পুরান ঢাকার ওয়ারীতে স্বেচ্ছায় রক্ত সংগ্রহ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে শনিবার মগবাজার এলাকায় স্বেচ্ছায় রক্ত সংগ্রহ কার্যক্রম বাস্তবায়িত হয়েছে। আগামী ১০ই মে তারিখে উত্তরা ও বনানী এলাকায় এই কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে বলে যুব সদস্যরা জানিয়েছেন।
এছাড়াও করোনা ও চলমান লকডাউনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত রাজধানী ঢাকার দরিদ্র, ভাসমান ও নিম্ন আয়ের মানুষদের মাঝে প্রতিদিন ১০০০ হাজার প্যাকেট রান্নাকরা খাবার বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।
প্রতিদিন ইফতারের আগ মূহূর্তে অসহায় এসব মানুষের হাতে খাবারের প্যাকেট পৌছে দিচ্ছে স্বেচ্ছাসেবকরা।
জাতীয় সদর দপ্তর যুব রেড ক্রিসেন্টের এর যুব প্রধান তাজনূর আহম্মদ সেঁওতি জানান, বিশ্ব রেড ক্রস রেড ক্রিসেন্ট দিবস উপলক্ষে সোসাইটির যুব ও স্বেচ্ছাসেবক বিভাগের সার্বিক সহযোগিতায় জাতীয় সদর দপ্তর যুব রেড ক্রিসেন্ট এর উদ্যোগে এসব কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। আগামীতেও এই মানবিক কার্যক্রম চলমান থাকবে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi

২০২১-০৫-০৯ ০৪:৩১:১৬

স্বাস্থ্য বিধি মেনে এসব করে লাভ কি হবে। মানুষ গাদাগাদি করে শপিং করবে, গাদাগাদি করে ট্রাক এ চড়ে বাড়ি যাবে ঈদ করতে। সব চেষ্টা ই ত নস্যাত্।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

ক্যাপশন নিউজ

১৮ জুন ২০২১

শনাক্তের হার ১৮.৫৯

একদিনে আরও ৫৪ জনের মৃত্যু,শনাক্ত ৩৮৮৩

১৮ জুন ২০২১



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



পরীমনিকে ধর্ষণচেষ্টা মামলা

নাসির উদ্দিনসহ গ্রেপ্তার ৩

DMCA.com Protection Status