শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের জন্য আমেরিকা থেকেও যোগাযোগ করছে: বিএসইসি চেয়ারম্যান

অর্থনৈতিক রিপোর্টার

অনলাইন (১ মাস আগে) মে ৬, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৬:৪৮ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১১:২৮ পূর্বাহ্ন

শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেছেন, শেয়ারবাজারে অর্থ কোনো সমস্যা না। প্রচুর বিদেশিরা বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী। আমেরিকা থেকেও বিনিয়োগের জন্য যোগাযোগ করছে।

বৃহস্পতিবার ভার্চ্যুয়ালি আয়োজিত এক প্রাক বাজেট আলোচনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ভেঞ্চার ক্যাপিটাল অ্যান্ড প্রাইভেট ইক্যুইটিজ এসোসিয়েশন ও ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্টস ফোরাম (সিএমজেএফ) যৌথভাবে এটির আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি বলেন, ‘স্টার্টআপ কোম্পানিগুলো ভালোই করছে। এই খাতের সহযোগিতা পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের আছে। একই সঙ্গে আজকের আলোচনার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বাজেটকে কেন্দ্র করে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করব।’

বিদেশি বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের আগ্রহের কথা তুলে ধরে অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, ‘বিভিন্ন দেশ থেকে প্রতিনিয়ত বিনিয়োগের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। এ তালিকায় সিঙ্গাপুর ও দুবাই রয়েছে।
এমনকি আমেরিকা থেকেও বিনিয়োগের জন্য যোগাযোগ করছে। তাই অর্থ কোনো সমস্যা হবে না।’

তিনি বলেন, ‘আমরা অনেক পিছিয়ে রয়েছি। স্বাধীনতার সময় আমাদের যে লক্ষ্য ছিল, তা পূরণ হয়নি। আমাদের গতি বাড়াতে হবে। ১৫ বছর আগের ভিয়েতনামের দিকে তাকালেও আমরা কোথায় আছি, সেটা বুঝতে পারব। কিছু দুষ্টলোকের কারণে আমাদের এই অবস্থা।’

এ সময় এসএমই বোর্ড নিয়েও কথা বলেন বিএসইসির চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, ‘বর্তমান কমিশন ব্যবসা বান্ধব। আমরা ব্যবসাকে সহজ করে দেয়ার জন্য কাজ করছি। এরই মধ্যে দেশের ব্যবসাকে এগিয়ে নিতে এসএমই বোর্ডে একটি কোম্পানির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। আগামি ১ মাসের মধ্যে আরো ৪-৫টি কোম্পানির অনুমোদন দেয়া হবে। এই বোর্ড ধীরে ধীরে বড় হবে এবং পরবর্তীতে এখান থেকে বিভিন্ন কোম্পানি মূল বোর্ডে চলে যাবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘স্টার্টআপকে এগিয়ে নিতে কমিশন একটি ভেঞ্চার কোম্পানির লাইসেন্স দিয়েছে। আরো দুটি কোম্পানির আবেদন জমা রয়েছে। তবে এ খাতকে এগিয়ে নিতে সুশাসনের দিকে নজর দিতে হবে। কারণ দুয়েকটি দুষ্টলোকের কারণে পুরো খাতটি হুমকির মুখে পড়তে পারে। তাই শুরু থেকেই এই খাতের সংগঠনকে সুশাসনে নজর দিতে হবে।’

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিএসইসির সাবেক কমিশনার আরিফ খান। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আবু ফারাহ মোহাম্মদ নাছের, বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

কাজি

২০২১-০৫-০৭ ২৩:০২:২২

বাংলাদেশে বিনিয়োগ নিরাপত্তা নাই। নতুবা অনেক বিদেশী বিনিয়োগ করত।

জিতেন্দ্র কুমার দাস

২০২১-০৫-০৭ ০৪:৫২:৫৬

শেযারমারকেটের 20000 কোটি টাকার ফান্ড ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ উন্নয়নে ব্যবহার করে বিনিয়োগকারীদের বাঁচানোর প্রতিস্থাপন করুন জনাব চেয়ারম্যান মহোদয়,

ইফতেখার পান্না

২০২১-০৫-০৭ ০০:৪৯:৫৮

আমেরিকা থেকে প্রবাসী বাংলাদেশিরাই বেশি বিনিয়োগ এ আগ্রহী। সচ্ছ, সুষ্ঠ পরিবেশ সৃষ্টি করতে পারলে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য সহ সকল প্রবাসী, বাংলাদেশের স্টক এক্সচেঞ্জে বিনিয়োগ করবে।

মাসউদুল গনি

২০২১-০৫-০৬ ১৯:৫৫:১৮

মাকের্ট কিছুটা ভালো হওয়ার আভাস দিচ্ছিলো গত কিছু দিন। এই কথার ঠেলায় বারোটা মনে হয় বাজিয়ে দিবে আবার............

Banglar Manush

২০২১-০৫-০৬ ১৯:৩৬:৩০

Americans are not as fool as you are.

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



কদমতলীতে পিতা-মাতা ও বোনকে হত্যা

মেহজাবিন ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

DMCA.com Protection Status