কলকাতা কথকতা

ভোটের ফল প্রকাশের পরই রাজ্য জুড়ে অশান্তি, কাঁকুড়গাছিতে খুন বিজেপি কর্মী

জয়ন্ত চক্রবর্তী, কলকাতা

কলকাতা কথকতা (৫ দিন আগে) মে ৩, ২০২১, সোমবার, ১০:৩২ পূর্বাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৬:০৯ অপরাহ্ন

পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ফল প্রকাশের পরই তীব্র অশান্তির সৃষ্টি হয়েছে। কলকাতার কাঁকুড়গাছিতে খুন হয়েছেন বিজেপি কর্মী ৩০ বছরের অভিজিৎ সরকার। ভাঙ্গরে দুই তৃণমূল কর্মী প্রহৃত হয়ে হাসপাতালে। কাদম্বগাছিতে এক আই এস এফ কর্মী প্রহারে গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে। সল্টলেকের সুকান্তনগরে এক বিজেপি সমর্থকের বাড়ি আক্রাম্ত হয়েছে। পাথরঘাটায় বিজেপি পার্টি অফিসে ভাঙচুর চলেছে। আরামবাগে বিজেপি পার্টি অফিসে আগুন লাগানো হয়েছে। কান্দিতে বিজেপি নেত্রীর বাড়িতে বোমা ফেলা হয়েছে।
এর মধ্যে সব থেকে উল্লেখযোগ্য কাঁকুড়গাছির ঘটনাটি। বিজেপি ট্রেড ইউনিয়ন নেতা অভিজিৎ সরকার ফেসবুক লাইভ এ অভিযোগ করেন তৃণমূলের লোকেরা এলাকায় ভাঙচুর চালাচ্ছে, তাঁর পোষা কুকুরটিকেও মেরে ফেলা হয়েছে। এরপরই একদল লোক অভিজিৎ এর বাড়ি চড়াও হয়ে তার গলায় সি সি টি ভি র তার জড়িয়ে তাঁকে পিটিয়ে মেরে ফেলে বলে অভিজিতের দাদা বিশ্বজিৎ সরকার অভিযোগ জানান। ভাঙ্গরে আই এস এফ-তৃণমূল সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয় এলাকা। দুই তৃণমূল সদস্যকে গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মেট্রো সেন্ট্রাল স্টেশন সংলগ্ন এক বিজেপি কর্মীর বাড়িতে ঢুকে হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। এই সব ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায়। তিনি দলীয় কর্মীদের সংযত থাকতে বলেছেন।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Professor Dr.Mohamme

২০২১-০৫-০৩ ১১:৪৮:১৬

“তৃণমূলের লোকেরা এলাকায় ভাঙচুর চালাচ্ছে, তাঁর পোষা কুকুরটিকেও মেরে ফেলা হয়েছে। এরপরই একদল লোক অভিজিৎ এর বাড়ি চড়াও হয়ে তার গলায় সি সি টি ভি র তার জড়িয়ে তাঁকে পিটিয়ে মেরে ফেলে বলে অভিজিতের দাদা বিশ্বজিৎ সরকার অভিযোগ” । খবরটি বেদনাদায়ক এই কারনে যে, পৈশাচিক নরহত্যার সাথে কুকুরের মত বোবা প্রাণীও রাজনীতির জলন্ত আগুন থেকে রেহাই পাচ্ছেনা । এসব কি, মমতার ভূমিধ্বস বিজয়ের কারনে হচ্ছে ? তবে , রাজ্যপাল প্রদীপ ধন খড়ের একটা চিন্তা রয়েছে বলে আমি বিশ্বাস করি । তাড়াতাড়ি যেন এই অরাজক পরিস্থিতির উন্নতি হয়, আমরা তার জন্য অপেক্ষা করব। আমি অনেকদিন ধরে ভাবছি, পশ্চিম বাংলায় ১৯৭১ সালের মত রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হতে পারে । সে সময়, নকশাল পন্থীরা এই ধরনের অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টির করে জনজীবনে নাভিশ্বাস তুলেছিল। আমরা সীমান্তের পূর্ব পার্শে থেকে তাদের নৃশংসতা আর দুষ্কর্মের জন্য ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিলাম । দক্ষিণ -পচ্ছিম অঞ্চলে গড়ে উঠেছিল কিরীচ আর চাইনিজ কুড়াল চালিত সর্বহারা পার্টি । তাদের মতাদর্শ অনুযায়ী শ্রেণী শত্রু খতমের নামে সে সময়ে বহু মুসলমানকে প্রান দিতে হয়েছিল । যদিও ২০২১ সালের ইলেকশনে মাক্সবাদি-লেনিনবাদি ভোজালি পারটিকে কেউ ভোট দেয়নি ।

আপনার মতামত দিন

কলকাতা কথকতা অন্যান্য খবর



কলকাতা কথকতা সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status