মামুনুল হকের বিরুদ্ধে 'কথিত' দ্বিতীয় স্ত্রীর মামলা

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন (১ সপ্তাহ আগে) এপ্রিল ৩০, ২০২১, শুক্রবার, ১১:০৬ পূর্বাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৯:২৭ অপরাহ্ন

হেফাজতের আলোচিত নেতা মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ‘দ্বিতীয় স্ত্রী’ দাবি করা জান্নাত আরা ঝর্ণা। আজ শুক্রবার সকালে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানায় হাজির হয়ে মামলাটি করেন তিনি। মামলায় মামুনুল হকের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন, প্রতারণা,  নির্যাতনের অভিযোগ এনেছেন তিনি।
মামুনুল হক দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি করলেও মামলায় জান্নাত নিজেকে মামুনুল হকের স্ত্রী বলেননি। তিনি বলেছেন, ‘বিয়ের প্রলোভন ও অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে মামুনুল হক আমার সঙ্গে সম্পর্ক করেছেন। কিন্তু বিয়ের কথা বললে মামুনুল করছি, করব বলে সময়ক্ষেপণ করতে থাকেন। ২০১৮ সাল থেকে ঘোরাঘুরির কথা বলে মামুনুল বিভিন্ন হোটেল, রিসোর্টে আমাকে নিয়ে যান।’
 মামুনুলের সঙ্গে পরিচয় প্রসঙ্গে জান্নাত বলেন, ‘২০০৫ সালে তাঁর স্বামী মাওলানা শহীদুল ইসলামের মাধ্যমে মামুনুল হকের সঙ্গে পরিচয় হয়। স্বামীর বন্ধু হওয়ায় আমাদের বাড়িতে মামুনুলের অবাধ যাতায়াত ছিল।
মামুনুলের সঙ্গে পরিচয়ের আগে আমরা সুখে-শান্তিতে বসবাস করছিলাম। আমাদের স্বামী-স্ত্রীর মতানৈক্যের মধ্যে প্রবেশ করে মামুনুল হক শহীদুল ও আমার মধ্যে দূরত্ব তৈরি করতে থাকেন। মামুনুলের  কারণে আমাদের দাম্পত্য জীবন চরমভাবে বিষিয়ে ওঠে। সাংসারিক এই টানাপোড়েনে একপর্যায়ে মামনুলের পরামর্শে  বিবাহবিচ্ছেদ হয়।’

অভিযোগে জান্নাত বলেন, ‘বিচ্ছেদের পর তিনি সামাজিক, অর্থনৈতিক ও পারিবারিকভাবে অসহায় হয়ে পড়েন। এ সময় মামুনুল আমাকে খুলনা থেকে ঢাকায় আসার জন্য বলেন। আমি ঢাকায় চলে আসি। মামুনুল আমাকে তাঁর অনুসারীদের বাসায় রাখেন। সেখানে নানাভাবে আমাকে প্রস্তাব দেন। একপর্যায়ে পারিপার্শ্বিক অবস্থার কারণে তাঁর প্রলোভনে পা দিই। এরপর তিনি উত্তর ধানমন্ডির নর্থ সার্কুলার রোডের একটি বাসায় আমাকে সাবলেট রাখেন। একটি বিউটি পারলারে কাজের ব্যবস্থা করে দেন। ঢাকায় থাকার খরচ মামুনুলই দিচ্ছিলেন।’
জান্নাত আরা ঝর্ণা অভিযোগে বলেন, ‘৩রা এপ্রিল সোনারগাঁয়ের রয়্যাল রিসোর্টে ঘোরাঘুরির কথা বলে মামুনুল হক নিয়ে যান। সেখানে অবস্থানকালে কিছু মানুষ আমাদের আটক করে ফেলে। পরে মামুনুল হকের অনুসারীরা রিসোর্টে হামলা করে আমাদের নিয়ে যায়। কিন্তু মামুনুল আমাকে নিজের বাসায় ফিরতে না দিয়ে পরিচিত একজনের বাসায় অবৈধভাবে আটকে রাখেন। কারও সঙ্গে যোগাযোগও করতে দেননি।
জান্নাত বলেন, পরে কৌশলে আমি আমার বড় ছেলেকে আমার দুরবস্থার সব কথা জানাই এবং আমাকে বন্দিদশা থেকে উদ্ধারের জন্য আইনের আশ্রয় নিতে বলি। পরে ডিবি পুলিশ আমাকে উদ্ধার করলে জানতে পারি, আমার বাবা রাজধানীর কলাবাগান থানায় আমাকের উদ্ধারের জন্য একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। পুলিশ আমাকে উদ্ধারের পর বাবার জিম্মায় দেয়। সেখানে আমি আমার পরিবার ও আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে পরামর্শ করায় অভিযোগ দায়ের করতে বিলম্ব হয়।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

MD. MAHABUB ALAM

২০২১-০৫-০৩ ১৬:২৬:০৯

মামুনুল হক হয়তো কোনদিনই ভাবতে পারেনি , আলেম নাম বিক্রি করে দুর্দন্ড প্রতাপে চলা আর হুংকার দেবার দিন হঠাৎ করে এমন ভাবে থেমে যাবে । সে নিজেকে মনে করতো সব কিছুর উর্ধ্বে । আলেম নামের এ রকম জালেমদের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিৎ । আমরা আশা করবো তার সঠিক বিচারের মাধ্যমে উদাহরন তৈরী করা হবে ।

Mahmud

২০২১-০৪-৩০ ০৮:৪০:৫৬

মামুনুল হক হয়তো কোনদিনই ভাবতে পারেনি , আলেম নাম বিক্রি করে দুর্দন্ড প্রতাপে চলা আর হুংকার দেবার দিন হঠাৎ করে এমন ভাবে থেমে যাবে । সে নিজেকে মনে করতো সব কিছুর উর্ধ্বে । আলেম নামের এ রকম জালেমদের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিৎ । আমরা আশা করবো তার সঠিক বিচারের মাধ্যমে উদাহরন তৈরী করা হবে ।

taposh

২০২১-০৪-৩০ ১৮:১৪:১২

মামুনুল হক এর মত নষ্ট আলেমদের কারনে ইসলামের অনেক ক্ষতি হয়েছে । এদের কারনে আগামীতে হেফাজত ইসলামকে জনগন এড়িয়ে চলবে ।

মিজানুর রহমান

২০২১-০৪-৩০ ০৪:৫৬:২৪

সরকার সরাসরি মানুষের ইজ্জত নিয়ে ছিনিমিনি খেলা শুরু করেছে , এই সরকার সমর্থকদের মধ্যে যদি বিন্দুমাত্র ইজ্জত সম্মানবোধ থাকতো তাহলে হয়তো আশা করতে পারতাম একদিন ঠিক হয়ে যাবে , কিনতু কোন আলামত পাচ্ছি না ওরা সেই কারুনের অনুসারী গুষ্টিকে হারমানিয়ে ফেলেছে। মনে হচ্ছে ওদের ধ্বংস খুব নিকটে । ইনশাআল্লাহ কারুনের অনুসারীদের শেষ পরিণতি জাতি দেখবে।

No name

২০২১-০৪-৩০ ০৪:৪৫:০৯

Well written script. Valuable in Mumbai cinema?Script written in....

Mohammad A Islam

২০২১-০৪-৩০ ০৪:৩৬:২৭

বিচিত্র এক দেশের অধিবাসী আমরা। এক গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু চলমান থাকা অবস্থায় আরেক নতুন ইস্যু সৃষ্টিতে চ্যাম্পিয়ন স্বঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ।

Khokon

২০২১-০৪-৩০ ০৪:৩২:০৬

দেহ ক্রয়/বিক্রয়ের জন্য দু'জনই দায়ী। ,টাকার বিনিময়ে ২ বছর ধরে তাকে দেহ ভোগ করার অনুমতি দেয়া দূর্ভাগ্য হলেও সত্যিই, ইহা ইসলামীক আইন অনুযায়ী অপরাধ শুধু হুজুরের জন্য ? মেয়ের জন্যও অপরাধ যেহেতু সে লাইসেন্স ছাড়া এ ব্যবসা করে আচ্ছিলেন ? নিরপেক্ষ ভাবে দেশের স্বার্থে বিচার করা হোক।

Samsulislam

২০২১-০৪-৩০ ০৪:২৫:৪০

শালায় আবার ভাষণ মারত।এবার কার ভাষ্কর্য বুড়িগঙ্গায় ফেলবি?বেয়াদব!

আনিস উল হক

২০২১-০৪-৩০ ০৩:৩৩:৩৪

'কথিত' তৃতীয় স্ত্রী এখনো বাাকী থাকল! বসুন্ধরা বা মাওলানা সাহেবের মতো অপকর্মকারীদের জন্য শরিয়া আইনে কোন দণ্ড উপযুক্ত হতে পারে - ১০০ বেত্রাঘাত না রজম?

আনিস উল হক

২০২১-০৪-৩০ ০৩:২৫:৫৪

'কথিত' তৃতীয় স্ত্রী এখনো বাাকী থাকল! বসুন্ধরা বা মাওলানা সাহেবের মতো অপকর্মকারীদের জন্য শরিয়া আইনে কোন দণ্ড উপযুক্ত হতে পারে - ১০০ বেত্রাঘাত না রজম?

Raju

২০২১-০৪-৩০ ১২:৩০:২৯

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ইস্যু ইস্যু খেলা এখানেই হয়।তামাম বিশ্বের সেরা রাজনৈতিক খেলা এখানেই ঘটে।

শহীদ

২০২১-০৪-৩০ ১২:১৭:২৬

সময়ের ব্যবধানে বক্তব্যের পরিবর্তন হয়! তার ভিডিও এর আগে প্রকাশ হয়েছে। সেখানকার কথা আর এখানকার লিখিত বক্তব্য এক না। কে বা কারা স্বপ্রণোদিত হয়ে এসব করছে পাবলিক যার যার অবস্থান থেকে বুঝে নিবে। কিন্তু অবৈধ সম্পর্ক ও খুন বা আত্মহত্যার বিরুদ্ধে মিডিয়া চুপ!

rst

২০২১-০৪-২৯ ২২:৪২:২৯

সত্য আর হক বিচার হবে একমাত্র হাশরের মাঠে সেখানে আলিম জালিম কিংবা মুনাফিক কারও ছাড় পাওয়ার সুযোগ নেই. "হে আল্লাহ আমাদেরকে হেদাওয়াত দাও হকের পথে থেকে মরণ দাও " আমিন

Mustafa Ahsan

২০২১-০৪-২৯ ২২:৩৪:০২

ঘুরে গেল বাংলার দিশ্যপট বসুন্ধরা থেকে আবার মমিনুল হক কালকে আবার জানবো ফ্লাইটে পাইলট কোনদেশি ছিলো চারঘনটার দুবাই যাত্রায় কে কি ড্রিংক্স খেলো পাঁচই মে পর্যন্ত চার্টার করা প্লেনে কে কোথায় বেড়াতে গেলেন এরপর আবার নূতন কিছু পরদায় আসবে ততদিনে সব শান্ত হয়ে পাখি ডাকবে ফুল ফুটবে মাঝখানে কিছু লোক বিপুল টাকা পয়সা কামিয়ে নিবে।মন্দ না সবসময় গরম খবরের ছোট দেশ।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

আলোচিত মিতু হত্যাকাণ্ড

সাবেক এসপি বাবুলকে প্রধান আসামি করে মামলা

১২ মে ২০২১



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status