ফেসবুক লাইভে বড় বোন তানিয়া: মুনিয়া আত্মহত্যা করতে পারে না

তারিক চয়ন

অনলাইন (১ সপ্তাহ আগে) এপ্রিল ২৯, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৫:৩৪ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১২:০৭ অপরাহ্ন

সোমবার গুলশানে কলেজছাত্রী মোসারাত জাহান মুনিয়ার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীরকে আসামি করা হয়েছে। মামলার বাদী মুনিয়ার বড় বোন নুসরাত জাহান তানিয়া মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) রাতে ফেসবুক লাইভে আসেন। সোমবারের দু-একদিন আগেই হয়তো মুনিয়া মারা গিয়েছিলেন এরকম ধারণা অনেকে করলেও তানিয়া জানান, সোমবার সকালেও মুনিয়ার সাথে তার কথা হয়েছিল। এছাড়া আরো কিছু বিষয়ে স্পষ্ট কথা বলেছেন তিনি।

যেভাবে পাওয়া গেলো মুনিয়ার লাশঃ

সোমবার সকালেও ওর সাথে কথা হয়। ঘুম ভাঙ্গে কান্নার শব্দে। মুনিয়া বলে, আপু আনভীর আমাকে ধোঁকা দিয়েছে। আমি বলেছিলাম চলে আসো, তুমি রেডি হও, আপু তোমাকে নিয়ে আসবো কুমিল্লায়।
কিন্তু ও আনভীরের সাথে যখন যায় তখন আমি ওকে অনেক বকাঝকা করেছিলাম, অনেকদিন ওর সাথে আমি কথা বলিনি, তাই সে লজ্জা পাচ্ছিল কীভাবে আমার কাছে আসবে!

সাড়ে ১০ টা বা ১১ টার দিকে সে আবার ফোন করে বলে, আপু তোমরা কখন আসবা? আপু, আমার অনেক বিপদ। আমাদের ঢাকা পৌঁছতে সোয়া চারটা বেজে যায়। এর মধ্যে যাওয়ার আগে অনেকবার ফোন করেছি তাকে। অগুণিতবার। আমার সাথে থাকা দুই কাজিনও ফোন করেছে অনেকবার। মুনিয়া ফোন ধরেনি।

গুলশানের বাসায় পৌঁছে দরজা নক করি প্রায় ঘণ্টাখানেক, কলিংবেল নষ্ট হয়ে গেছে। নিচে গিয়ে ইন্টারকম থেকে ফোন করা হয়, কেউ ফোন ধরে না। ওই বিল্ডিং এর ম্যানেজার তালা ভাঙ্গার লোক আনে। ভাঙ্গার সময় জোরে শব্দ হলেও ভেতর থেকে কোনো শব্দ না আসায় আমরা খুব ভয় পাচ্ছিলাম। তারপর...

এক লাখ টাকার ফ্ল্যাট ভাড়া এবং আনভীরের সাথে প্রেমে পরিবারের ভূমিকাঃ

আমি অনেক চেষ্টা করেছি এ নিয়ে তাকে বুঝানোর। সে বুঝেনি। সে আনভীরের ভালোবাসায় এতোটাই অন্ধ ছিল যে আমার ভালোবাসা তার কাছে কিছু ছিল না। আমি পারিনি তাকে ঠেকাতে। মার্চে যখন ওই বাসায় উঠে তখন বলেছিল, পরীক্ষা দেবে, আমাকে ও মিথ্যা বলেছিল। আসলে আনভীর ওকে বলেছিল বিয়ে করবে। বিয়ে করে বিদেশে সেটেল্ড হবে। আমাকে মুনিয়া বলেছিল, আপু বিয়ের বিষয়টা গোপন রাখতে হবে, নইলে সমস্যা হবে।

আনভীরকে সন্দেহের কারণঃ

সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা গেছে আনভীর ও বাসায় যেতো। পুলিশ সেগুলো উদ্ধার করেছে। তাছাড়া সারা বাসায় এখানে-সেখানে আনভীর আর ওর একসাথে ছবি আছে। মুনিয়ার ডায়েরিতেও বিস্তারিত লেখা আছে। ও মারা যাবার আগে আমি সেগুলো পড়িনি। তবে এগুলোতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ লেখা আছে।

ফাঁস হওয়া অডিও- মুনিয়ার কাছে আনভীরের ৫০ লক্ষ টাকা দাবিঃ

কখনোই না। মুনিয়ার সাথে আনভীরের কোনো টাকাপয়সার লেনদেন ছিল না। আনভীর মুনিয়াকে দূরে ঠেলে দেবার জন্যই হয়তো এই মিথ্যা কথা বলে চাপ দিয়েছে যেনো মুনিয়া দূরে চলে যায়।

এক চিত্রনায়কের সাথে প্রেম বিষয়ে...

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকে পোস্ট করছেন, ঢাকাই সিনেমার এক চিত্রনায়কের সাথেও মুনিয়ার প্রেম ছিল। এ বিষয়ে তানিয়া বলেন, এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা। একটি মহল এটা ছড়াচ্ছে।

মুনিয়া আনভীরকে ভালোবাসতো?

আনভীরকে ও প্রাণ দিয়ে ভালোবেসেছিল। ও ভালো আঁকতো। ওর হাতে পর্যন্ত 'A' এঁকে রাখতো। আনভীর ওর সাথে প্রতারণা করেছে, মুনিয়াতো ওকে মন থেকেই ভালোবেসেছিলো। ফোনে আমাকে বলেছিল, আপু ওর জন্য ১০০ মেয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকে। আমার বোনের মধ্যে ভালোবাসা ছিল, লুচ্চামিটা ছিল না।

আত্মহত্যা কিনা নিশ্চিত?

না নিশ্চিত নই। মুনিয়া আত্মহত্যা করতে পারে না। দরজা ভেঙ্গে আমরা প্রথমে ওর লাশ দড়িতে ঝুলানো দেখেতো আত্মহত্যাই ভেবেছিলাম। কিন্তু পুরো ঘর আমি দেখেছি। সাজানো গুছানো, পরিপাটি ছিল। মনে হচ্ছিল কেউ সেট করে রেখে দিয়েছে। তাছাড়া 'আত্মহত্যা'য় ব্যবহৃত টুলটা যেভাবে রাখা ছিল তাতেও আত্মহত্যা মনে হয় নি। পুলিশ তো আমাদের চেয়ে অভিজ্ঞ। তারা ভালো বলতে পারবে। মুনিয়া আমার ছোটবোন, আমার সন্তান। মুনিয়া আত্মহত্যা করতে পারে না। এটা হত্যাকাণ্ড। এর সুষ্ঠু তদন্ত চাই। আমার বোনটাকে মেরে ফেলা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Md. Omar Sharif

২০২১-০৫-০৫ ১৭:১৫:৪৯

ধনিদের সম্পত্তিতে গরিবের হক ....... লাখ টাকার ফ্লোট ।

nasir uddin

২০২১-০৪-৩০ ১৮:২০:২৭

How a second year girl student resided in a Tk 111000/- worth a house? The family never raised this question? This is how these kind of things end up. The family of the girl should also be made responsible for this tragic death.

A.R.Sarker

২০২১-০৪-২৯ ২২:৩০:১৮

জনাব মাহমুদ এর সাথে একমত।

Mahmud

২০২১-০৪-২৯ ২১:৩৯:৪৮

আমার দৃষ্টিতে মুল অপরাধী এই মেয়েটি এবং তার পরিবার । তারাই মেয়েটির উসৃঙ্খলাকে প্রশ্রয় দিয়েছে এবং মেয়েটির খারাপ পথে যাওয়াকে রোধ করতে ব্যর্থ হয়েছে । একটি কলেজ পড়ুয়া মেয়ে গুলশানে লাখ টাকায় ভাড়া নেয়া ফ্ল্যাটে থাকছে মেয়েটির পরিবার সেটি জানতো না ? খুব ভালো করেই জানতো। জেনেও তারা নির্লিপ্ত ছিলো । সায়েম সোবহান ধনীর দুলাল এবং আমরা ধনীদের প্রতি সহজাতভাবেই ঈর্শান্বিত , তাই আমাদের সব রাগ ক্ষোভ গিয়ে পড়েছে সায়েম সোবহানের উপর । পৃথিবীর সব ধনীর সন্তানরা প্রায় একই ধরনের । তাদের খ্যাতি, অর্থ , বিত্তের লোভে মেয়েরা তাদের কাছে ভিড়ে এবং তারাও তার সুযোগ নিয়ে ভোগের সাগরে নিজেদের ভাসিয়ে দেয় । এটা নতুন কিছু নয় । মেয়েরা যে লোভে পড়ে বিপথে যায় সেটা রোধ করার জন্য সামাজিক সচেতনতা তৈরীর পদক্ষেপ নেয়ার এখনি সময় ।

Shahriar

২০২১-০৪-২৯ ১৬:০৯:২৬

"আমার বোনের মধ্যে ভালোবাসা ছিল, লুচ্চামিটা ছিল না" WHAT A JOKE !!! Family'r sobai akhon valo manush. Koekdin age porlam ek relative naki bolse Munia khub e dhormoviru chilo....(another JOKE)

Atom sarker

২০২১-০৪-২৯ ১৫:০১:৫২

কলেজ ছাত্রী হয়েও গুলশানে ফ্ল্যাট ভাড়া করে থাকা যায়????

Nurun Nabi

২০২১-০৪-২৯ ২০:১৯:১৫

How soon we will forget this Murder. We forgot Sagor Runi, Gazi Ellias, Sinha . Pradeep, Sahed and Casino Samrat are in 5 Star Hotel with exotic dinner and Bar service . Remember this is not first killing by Basundhara. Only Allah knows the best.

Kayes

২০২১-০৪-২৯ ০৬:৪২:৫২

Another side of high class prostitution.

Sheikh Farid

২০২১-০৪-২৯ ১৯:৩২:৩৭

Matro 4/5 din lekha lekhi hobe ter por R akta issue. Ter por je sei.

Mrkachoudhury .

২০২১-০৪-২৯ ১৯:২৬:৫৯

nothing going to happen,just 3 4 5 days headline then everything normel.this is Bangladesh. one thing is sure she love him ,he just use her.

AL-MAMUN DEWAN

২০২১-০৪-২৯ ০৫:২৫:৪৮

বর্তমানে প্রায় সব প্রেমের কাহিনিতেই এমন ঘটনা ঘটছে,,, ছেলে ধনাঢ্য ও কোটিপতি হলে মেয়ের পরিবার প্রথমে মৌন সম্মতি দেয়,,, বিয়ের মিথ্যা আশ্বাসে ও টাকা বাড়ি গাড়ির লোভে নিজের ইজ্জত সম্মান জীবন যৌবন বিলিয়ে দেয়,,, অতঃপর সবশেষে হুঁশ আসে,,, তখন সবাই বলাবলি করে আমি বুঝিয়েছি,,শুনেনি,,, ছেলে প্রতারণা করেছে!!!! কি অদ্ভুত!!!!! আরে আগে না বুঝে,না শুনে,না দেখে এ পথে আসো কেন????

সোহেল

২০২১-০৪-২৯ ০৪:৫৩:২৮

এক লাখ টাকা শুধু বাসা ভাড়া আরওতো আনুসাংগিক খরচ আছেই। ইন্টার পড়ুয়া একটা মেয়ে পরিবার ছাড়া কিভাবে থাকছে কোথায় থাকছে পরিবার কি কিছুই জানতো না।আসলে আমরা এখন সামাজিক অবক্ষয়ের চূড়ান্ত পর্যায়ে আছি।

Sharmin Ali

২০২১-০৪-২৯ ০৪:৪৯:২৭

ন্যয় বিচার কোন দিন বাংলাদেশে হইছে...?

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status