হেফাজত নেতাদের মুক্তি দাবি মান্নার

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন (৩ সপ্তাহ আগে) এপ্রিল ২০, ২০২১, মঙ্গলবার, ৩:০৮ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৪৯ অপরাহ্ন

হেফাজতে ইসলামের গ্রেপ্তারকৃত নেতৃবৃন্দকে অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার দাবি জানিয়েছেন নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। তিনি বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন উপলক্ষে দেশে যে অরাজকতা হয়েছে, রক্তপাত হয়েছে তার দায় একান্তই সরকার, সরকারি দল এবং তাদের অঙ্গ সংগঠনের। মঙ্গলবার দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাকিব আনোয়ার স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন তিনি।
মান্না বলেন, ২৬ মার্চ বায়তুল মোকাররমে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ কর্মসূচিতে সরকারি দলের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের কর্মীরা হেফাজতের কর্মী সমর্থক এবং সাধারণ মুসল্লিদের ওপর হামলা করে প্রথমে পরিস্থিতি উত্তপ্ত করে। বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজে তা স্পষ্ট দেখা গেছে। সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সারাদেশে যে অরাজকতা তৈরি হয়েছে এবং মানুষকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে, তার সম্পূর্ণ  দায় সরকারকে নিতে হবে।
তিনি বলেন, এসব ঘটনার পর দায়ের করা মামলা এবং সেই ২০১৩ সালের মামলাসহ বছরের পর বছর ধরে পড়ে থাকা মামলায় হেফাজতে ইসলামের নেতৃবৃন্দ তথা দেশের আলেম সমাজের নেতাদের গণহারে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে, রিমান্ডে নেয়া হচ্ছে। একজন নেতার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে জাতীয় সংসদে যেভাবে রাষ্ট্রের শীর্ষ পর্যায় থেকে বিষোদগার করা হয়েছে, তাতে স্পষ্ট যে সরকারি দল হেফাজতে ইসলামকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলায় ব্যর্থ হয়ে তাদের বিরুদ্ধে হিংসাত্মক রাজনীতির আশ্রয় নিয়েছে এবং রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে তাদের পর্যুদস্ত করার কাজে লিপ্ত হয়েছে। আমি অবিলম্বে গ্রেপ্তারকৃত আলেম ওলামাদের মুক্তি দাবি করছি।

করোনা মোকাবিলায় সরকারের উদাসীনতার কথা উল্লেখ করে মান্না বলেন, দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলা, চিকিৎসার ব্যবস্থা করা, হাসপাতালে অক্সিজেন, আইসিইউ বেড নিশ্চিত করা  এবং প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর দুইবেলা খাবার নিশ্চিত করা এখন সরকারের প্রধান দায়িত্ব। সেদিকে ভ্রুক্ষেপ না করে মামলা, হামলা, রিমান্ড, অত্যাচার, নির্যাতনের মাধ্যমে অবৈধভাবে ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার চেষ্টা করছে তারা। দেশের সাধারণ জনগণ এবং ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা তা মেনে নেবে না। দেশের বিভিন্ন জায়গায় মানুষ প্রতিবাদী হয়ে উঠছে। অচিরেই গণ জোয়ার তৈরি হবে এবং সেই জোয়ারে অবৈধ ক্ষমতাসীনরা ভেসে যাবে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Mahmud

২০২১-০৪-২০ ০৯:৪০:১৬

মার্চের ২৬ ও ২৭শে তারিখে হেফাজত যে তান্ডব চালিয়েছে এবং হেফাজতের নেতারা যেভাবে সরকারকে হুমকি ,ধামকি দিয়েছে তাতে সরকার চুপ করে থাকতে পারে না । হেফাজত হঠাৎ করে নিজেদের বিরাট রাজনৈতিক শক্তি ভাবা শুরু করে । তাদেরকে সাইজ করা সময়ের দাবী ।

Samsulislam

২০২১-০৪-২০ ০৪:৪৭:৩০

মান্নার দরদ হঠাৎ দেখা দিল কেন?খোকার ফোনালাপের মত মামুনুলের সাথেও ফোনালাপ আছে নাকি?

মোহাম্মদ মনিরুল ইসলা

২০২১-০৪-২০ ০২:৫৪:৩১

নীতি নৈতিকতা হারানো একজন ! রাজনিতির নুতন মেরুকরন হচ্ছে । মধ্য ও প্রগতিশীলদের নিয়ে একটি দল এবং ধর্মীয় মূর্খদের নিয়ে বিএনপি ৬-১০% অন্য দল ।

fastboy

২০২১-০৪-২০ ১৫:৪৯:৪৬

কি বলবো রে ভাই কোন কিছুই মেলাতে পারছিনা!!!সরকারের এই আচরণ অত্যন্ত অমানবিক ও দুঃখজনক

আনিস উল হক

২০২১-০৪-২০ ০২:২৫:৪২

প্রয়াত কণ্ঠশিল্পী ভূপেন হাজারিকার গাওয়া একটি গানের কিছু কথা হোল - ' কত ঘাটে ভিড়াই তরী, সব ঘাট কেন যায় গো সরি, সব পেয়েছির দেশটি কোথায়, মনের আশা যেথায় পুরে '।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



জেরুজালেম পোস্টের মূল্যায়ন

ছোট যুদ্ধে ইসরাইল, দীর্ঘ যুদ্ধে জিতবে হামাস

DMCA.com Protection Status