কয়েক মাসেই মহামারি নিয়ন্ত্রণে আনতে পারে বিশ্ব: ডব্লিউএইচও

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন (২ সপ্তাহ আগে) এপ্রিল ২০, ২০২১, মঙ্গলবার, ২:৫৭ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৪৯ অপরাহ্ন

আগামী কয়েক মাসের মধ্যে করোনাভাইরাস মহামারিকে নিয়ন্ত্রণে আনার সামর্থ্য রয়েছে বিশ্বের। এমনটাই জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ডব্লিউএইচও প্রধান টেড্রোস আধানম গেব্রিয়াসিস। সোমবার তিনি বলেন, বিশ্ব চাইলে কয়েক মাসের মধ্যে মহামারি নিয়ন্ত্রণে আনতে পারে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

খবরে বলা হয়, ডব্লিউএইচও প্রধান মহামারি ঠেকাতে বৈশ্বিক সম্পদ ন্যায্য ও সমতার ভিত্তিতে বণ্টনের আহ্বান জানান। গেব্রিয়াসিস বলেন, ধারাবাহিক ও ন্যায্যতার সঙ্গে প্রয়োগ করলে কয়েক মাসের মধ্যেই মহামারিকে নিয়ন্ত্রণে আনার মতো হাতিয়ার মানুষের কাছে রয়েছে। তবে বিশ্বজুড়ে ২৫-৫৯ বছরের মানুষের মধ্যে করোনার সংক্রমণের উচ্চ হার নিয়ে ডব্লিউএইচও প্রধান উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, ১০ লাখ মানুষের মৃত্যু হতে ৯ মাস লেগেছিল, ২০ লাখ পৌঁছাতে লেগেছিল ৪ মাস। কিন্তু এখন ৩ মাসে মৃত্যু ৩০ লাখে পৌঁছে গেছে।
 
এদিকে ডব্লিউএইচও’র ওই সংবাদ সম্মেলনে যোগ দেন আলোচিত জলবায়ু অ্যাক্টিভিস্ট গ্রেটা থানবার্গ।
সুইডেন থেকে তিনি অতিথি হিসেবে আসেন। তার বক্তব্যে তিনি বিশ্বজুড়ে চলমান ভ্যাকসিন জাতীয়তাবাদের সমালোচনা করে বলেন, উন্নয়নশীল দেশে যেখানে ঝুঁকিতে থাকা মানুষরাই ভ্যাকসিন পাচ্ছে না, সেখানে ধনী দেশগুলো তাদের তরুণ নাগরিকদেরও ভ্যাকসিন দিচ্ছে। একে তিনি অনৈতিক বলে আখ্যায়িত করেন। তিনি আরো দাবি করেন, ধনী দেশে প্রতি চার জনে একজন মানুষ ভ্যাকসিন নিয়েছেন। কিন্তু দরিদ্র দেশে পাঁচ শতাধিক মানুষের মধ্যে একজন ভ্যাকসিন নিতে পেরেছেন।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi

২০২১-০৪-২২ ০২:৫৪:৩৮

Possibility is feeble. To control spreading it is necessary to vaccinate at least 50% of people in each country, which is not possible in next few months even if vaccine is available for vaccination. It takes time to vaccinate.

কাজি

২০২১-০৪-২২ ০২:৪০:২৩

সম্ভাবনা ক্ষীণ। টিকা দেওয়ায় কমবে। তবে সব দেশে অন্তত অর্ধেক লোককে টিকা দিতে পারা সম্ভব নয় আগামী কয়েক মাসের মধ্যে।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status