যে হারেও স্বস্তি অধিনায়ক মুমিনুলের

স্পোর্টস রিপোর্টার

খেলা ১৯ এপ্রিল ২০২১, সোমবার

শ্রীলঙ্কায় দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে  হেরেছে টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক সৌরভের দল। তবে এমন হারেও স্বস্তি অধিনায়ক মুমিনুলের। কারণ, প্রস্তুতি ম্যাচে প্রতিপক্ষ অধিনায়ক তামিম ইকবালের লাল দল মেতেছিল রান উৎসবে। তামিম ছাড়াও, নাজমুল হোসেন শান্ত, সাইফ হাসান, মুশফিকুর রহীম ফিফটি হাঁকিয়েছেন। প্রথম দিনে এক ইনিংসেই তারা ৩১৪ রান তোলে স্কোর বোর্ডে। জবাব দিতে নেমে মুমিনুলের নেতৃত্বে সবুজ দলের ব্যাটসম্যানরাও স্কোর বোর্ডে তুলেছে ২২৫ রান। দলের পক্ষে লিটন দাসের ব্যাট থেকে এসেছে  ৬৪ রান। ৮৯ রানে পিছিয়ে থাকলেও ব্যাটিং অনুশীলটা খারাপ হয়েছে বলা যাবে না।
বলার অপেক্ষা রাখে না প্রস্তুতি ম্যাচে দুই দলে থাকা টেস্ট দলের সেরা পারফর্মাররাই ব্যাট হাতে দারুণ করেছেন। আর এই কারণেই ওয়ানডে অধিনায়কের কাছে হারেও মুমিনুলের খুশি হওয়ারই কথা। ব্যাট হাতে ৫৩ রান করা নাজমুল হোসেন শান্ত বলেন, ‘আমার মনে হয় এটা খুব ভালো একটা প্রস্ততি ম্যাচ  হয়েছে  টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে। যেটা করতে চেয়েছিলাম, ওই পরিকল্পনা অনুযায়ী ব্যাটিং করতে পেরেছি। আশা করছি এই শেপে যদি ব্যাট করতে পারি তাহলে আমাদের টেস্ট ম্যাচের জন্য ভালো হবে।’
প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিন শেষে দলের সঙ্গে থাকা প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু দারুণ খুশি ছিলেন টাইগারদের এমন ব্যাটিং দেখে। বিশেষ করে টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানদের ব্যাটে রান দেখে তিনি স্বস্তি বোধ করেছেন। তামিম ইকবালের সঙ্গে ওপেন করার সম্ভাবনায় থাকা সাইফ হাসান ব্যাট হাতে ফিফটি হাঁকিয়েছেন। এছাড়াও শান্তর ফিফটি, অনেক দিন পর প্রাথমিক টেস্ট দলে জায়গা পাওয়া উইকেট কিপার-ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহানও রান পেয়েছেন। দলের অন্যতম ব্যাটিং ভরসা তামিম ও মুশফিকের ব্যাটে ফিফটি এসেছে। অন্যদিকে দলের আরেক প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান লিটন দাসও গতকাল ফিফটি হাঁকিয়ে রানে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছে। সব মিলিয়ে ব্যাটিংয়ে দারুণ খুশি প্রধান নির্বাচক। বোলারদের প্রতিও তিনি আস্থা রেখেছেন। অন্যদিকে কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পেরে খুশি শান্তও। নাজমুল হোসেন শান্ত বলেন, ‘অবশ্যই ওটা (কন্ডিশন) তো চ্যালেঞ্জিং। আসলে ওটা নিয়ে খুব বেশি কিছু বলার সুযোগ নেই। কারণ, এই আবহাওয়াতেই আমাদের খেলতে হবে। কিন্তু আমার কাছে মনে হয় শুরুতে বোলাররা ভালো বল করেছে। বিশ পঁচিশ ওভার পর  ব্যাটিংটা অনেক সহজ ছিল। আমার মনে হয় ব্যাটসম্যানরা যারা আমরা ব্যাট করছি খুব ভালো শেইপে ব্যাট করছি। ওয়েদারের সঙ্গে মানিয়ে নিয়েছি।  এখনো কঠিন কিন্তু। আমরা দুই তিন সেশন প্র্যাক্টিস করছি। সবমিলিয়ে ওয়েদারের সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছি।’
প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথমদিন আগে ব্যাটিংয়ে নেমে অধিনায়ক তামিম ৬৩, সাইফ হাসান ৫২, নাজমুল হোসেন শান্ত ৫৩, মুশফিকুর রহীম ৬৬, নুরুল হাসান সোহান ৪৮ ও মিরাজের ব্যাট থেকে আসে অপরাজিত ২৪ রান। প্রথম চারজন পঞ্চাশ পেরিয়েছেন। অন্যদের সুযোগ দিতে রিটায়ার্ড হয়ে ফিরে যান সাজঘরে। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে লিটন দাস, সাদমান ইসলাম, অধিনায়ক মুমিনুল, মোহাম্মদ মিঠুন, ইয়াসির আলী রাব্বিদের নিয়ে গড়া সবুজ দল অবশ্য তেমন রান করতে পারেনি। তবে ফর্মের বাইরে থাকা লিটন দাস ৬৪ রান করে দলকে ভরসা ঠিকই দিয়েছেন। নিগোম্বোর কাটুনায়াকের চিলাও মারিয়ান্স ক্রিকেট ক্লাব মাঠে দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচের অ শেষ দিনে মুমিনুল হকের সবুজ দল করেছে ২২৫ রান। অধিনায়ক মুমিনুল প্রথমবার শূন্য রানে ফিরলেও পরে আবার ব্যাটিংয়ে নেমে করেছেন ৪৭। এছাড়া মোহাম্মদ মিঠুনের সংগ্রহ ছিল ২৮। আর পেসার শরিফুল অপরাজিত ২০ রান করেন। লাল দলে বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল ছিলেন অফস্পিনার মিরাজ। তার ঝুলিতে জমা পড়ে ৪ উইকেট ৪১ রান খরচ করে। এছাড়া পেসার আবু জায়েদ রাহী আর বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল একটি করে উইকেট নেন।

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর



খেলা সর্বাধিক পঠিত



টাইগারদের দলগত অনুশীলন শুরু

অনুমতি মিললে নামবেন তামিম-মুশফিকরা

বেলফোর্টের হ্যাটট্রিক

আবাহনীর বড় জয়

DMCA.com Protection Status