১২ মিনিটের ঝড়ে চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা

স্পোর্টস ডেস্ক

খেলা ১৮ এপ্রিল ২০২১, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৩৬ পূর্বাহ্ন

দীর্ঘ দু’বছরের খরা কাটিয়ে অবশেষে বার্সেলোনার ক্যাবিনেটে ঢুকল ট্রফি। শনিবার দিবাগত রাতে সেভিয়ার লা কার্তুসা স্টেডিয়ামে কোপা দেল রে’র ফাইনালে অ্যাটলেটিকো বিলবাওয়ের মুখোমুখি হয় বার্সেলোনা। শেষ অর্ধে ১২ মিনিটের ঝড়ে বিলবাওকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় রোনাল্ড কোম্যানের শিষ্যরা। ডাচ কোচের প্রথম শিরোপা জয়ে জোড়া গোল করেন লিওনেল মেসি। অপর দু’টি গোল আসে অঁতোয়ান গ্রিজম্যান ও ফ্র্যাঙ্কি ডি ইয়ংয়ের পা থেকে।

দীর্ঘ ট্রফি খরা, লিওনেল মেসির মৌসুম শেষে ক্লাব ছাড়ার গুঞ্জন। এমন অবস্থায় ক্লাবের ভেতরের গোমট আবহাওয়া কাটাতে একটা ট্রফি জয় জরুরি ছিল বার্সেলোনার। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বাদ পড়েছে আগেই, লা লিগার ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে হেরে শিরোপার স্বপ্নটা কিছুটা কঠিনই হয়ে গিয়েছে কাতালানদের জন্য।
এমন অবস্থায় কোপা দেল রে’র দিকেই নজর ছিল মেসিদের।

ম্যাচের দশম মিনিটে মেসির নৈপুণ্যে দারুণ দুটি সুযোগও পায় বার্সেলোনা। কিন্তু স্কোরলাইনে পরিবর্তন আসেনি।
পঞ্চম মিনিটে সতীর্থের উঁচু করে বাড়ানো বল অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে ডি-বক্সে ধরে ডি ইয়ংকে ব্যাকপাস করেন মেসি। কিন্তু ডাচ মিডফিল্ডারের কোনাকুনি শট বাধা পায় পোস্টে। পাঁচ মিনিট পর অধিনায়কের রক্ষণচেরা পাস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়েও শট না নিয়ে ব্যাকপাস করেন গ্রিজমান।

প্রথম ২৫ মিনিটে ৮৫ শতাংশের বেশি সময় বল দখলে রেখে গোলের উদ্দেশে ছয়টি শট নেয় বার্সেলোনা, যার একটি লক্ষ্যে।

অপরদিকে বিরতির আগে অধিকাংশ সময় রক্ষণ সামলাতে ব্যস্ত বিলবাও দুয়েকবার পাল্টা আক্রমণে গেলেও কখনোই তেমন সম্ভাবনা জাগাতে পারেনি।

দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটে সহজ সুযোগ নষ্ট করেন গ্রিজমান। মেসির পাস ডি-বক্সে পেয়ে গোলমুখে বাড়ান সের্জিনো দেস্ত। ছুটে যান গ্রিজম্যান, সামনে একমাত্র বাধা গোলরক্ষক। তবে ফরাসি ফরোয়ার্ডের স্লাইড পা দিয়ে রুখে দেন উনাই সিমোন।

খানিক পর আরও দুটি দারুণ সেভ করেন এই স্প্যানিশ গোলরক্ষক। ৫২তম মিনিটে পেদ্রির নিচু শট ঝাঁপিয়ে ঠেকানোর পর কাছ থেকে সার্জিও বুসকেটসের শট পা দিয়ে ঠেকান সিমোন।

অবশেষে ৬০তম মিনিটে প্রথম গোল পায় বার্সেলোনা। ডান দিক থেকে ডি ইয়ংয়ের দারুণ ক্রসে ছয় গজ দূর থেকে ঠিকানা খুঁজে নেন গ্রিজম্যান।

৬৩তম মিনিটে জর্দি আলবার ক্রসে ছয় গজ দূর থেকে নিচু হয়ে হেডে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ডি ইয়ং। এরপর ৬৮তম মিনিটে মাঝমাঠ থেকে ছোটার পথে সতীর্থের সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করে ডি-বক্সে ঢুকে ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে কোনাকুনি শটে নিজের প্রথম গোলটি করেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার মেসি। চার মিনিট পর আলবার বাঁ দিক থেকে বাড়ানো পাস ডি-বক্সে পেয়ে প্রথম ছোঁয়ায় নিচু শটে স্কোরলাইন ৪-০ করেন তিনি।

শেষ দিকে আবারও জালে বল পাঠিয়েছিলেন গ্রিজম্যান। তবে অফসাইডের ফাঁদে পড়ে বাতিল হয় গোলটি।

বার্সেলোনায় তার কোচিং ক্যারিয়ারের প্রথম শিরোপা জিতে কোম্যান জানান, ‘একটা খেতাব জয় আমার কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ক্লাবে অনেক পরিবর্তন এসেছে, নতুন ফুটবলারদের আগমণ ঘটেছে। তবু বার্সেলোনায় থাকা মানে তোমাকে ট্রফির জন্য লড়াই জারি রাখতে হবে। আপাতত প্রথম ট্রফিটা জেতা হয়ে গেল। এখন লা লিগার শেষ ম্যাচ অবধি আমাদের খেতাব দৌড় জারি থাকবে।’

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর



খেলা সর্বাধিক পঠিত



টাইগারদের দলগত অনুশীলন শুরু

অনুমতি মিললে নামবেন তামিম-মুশফিকরা

DMCA.com Protection Status