শিক্ষার্থীকে যৌননিপীড়নের পর ভিডিও ধারণ, মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার

কালিগঞ্জ (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা

অনলাইন (১ মাস আগে) এপ্রিল ৯, ২০২১, শুক্রবার, ১১:০৬ পূর্বাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৪৯ অপরাহ্ন

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে এক শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের (বিকৃত যৌনাচারের) পর তা ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক হাফেজ আনোয়ারুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। বুধবার রাতে কালিগঞ্জ উপজেলার বাজারগ্রামের কফিল উদ্দীন হাফিজিয়া মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
হাফেজ আনোয়ারুল ইসলাম (৩৩) উপজেলার কালিকাপুর মোড়লপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল জব্বার মোড়লের ছেলে ও কালিগঞ্জ কফিল উদ্দীন হাফিজিয়া মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের শিক্ষক।
পুলিশ জানায়, গত ৩/৪ দিন পূর্বে মাদ্রাসা শিক্ষক আনোয়ারুল ইসলাম তারই মাদ্রাসার ১৬ বছরের এক শিশুর সাথে বিকৃত যৌনাচারের নগ্ন ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তা পুলিশ সুপারসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দৃষ্টি গোচর হয়। এরপর পুলিশ সুপারের নির্দেশে ওই বিষয়ের সত্যতা ও আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক ইয়াছিন আলমের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল অভিযানে নামেন। এরপর তারা এ বিষয়ে সত্যতা পেয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। এ সময় তার কাছ থেকে মোবাইল ফোন ও দুটি সিম কার্ড জব্দ করা হয়। ওই মোববাইল ফোনে এই শিশুসহ আরো কয়েকজন শিশুর সাথে তার বিকৃত যৌনাচারের ধারনকৃত নগ্ন স্থির চিত্র পাওয়া যায়।
জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক ইয়াছিন আলম চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এস.আই হুমায়ন কবির বাদী হয়ে ইতিমধ্যে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে কালিগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। তিনি আরো জানান, গ্রেপ্তারকৃত মাদ্রাসা শিক্ষক বহুদিন ধরে বহু ছাত্রকে এভাবে বলাৎকার করে আসছে। এছাড়া ওই বলাৎকারের দৃশ্য তিনি মোবাইলে ধারণ করে ওই সব শিশু ছাত্রদের ভয়ভীতি দেখিয়ে আবারো বিকৃত যৌনাচারে লিপ্ত হতে বাধ্য করাতেন।।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Ratan Mandal

২০২১-০৪-১০ ১৫:১৬:৫৬

ওদের কাছ থেকে এর চেয়ে ভালো কিছু আশা করা যায় কি করে

a.karim

২০২১-০৪-০৯ ২৩:৫০:৩৭

ওকে প্রকাশ্যে বিচার করা হউক

Siddiqui

২০২১-০৪-১০ ১২:৫০:০১

এই জানোয়ারের বাচচার মাক্চ এক মিনিটের জন্য খুলে ছবিটা তোলা জাইো না ডিবি ভাই ৷৷৷

Kazi

২০২১-০৪-০৯ ০৩:১৬:৪৯

উনি ইসলাম ধর্ম সম্বন্ধে আমার ( জনসাধারণের চাইতে) বিজ্ঞ এবং মানুষকে এই মহা পাপ সম্পর্কে উপদেশ ও দেন । আজ সোজাঊদ্দৌলা ছাত্রীকে পুড়িয়ে মেরে ছিলেন। আর ও বহু মোল্লা গ্রেফতার হয়েছে। ঐ ঘটনার পর। যৌন কর্মকাণ্ডে ধরা পড়ে। মামুনুলকে রিসোর্টে ধরার পর বললেন ২য় স্ত্রী। গোপনে বিয়ে। তা বিশ্বাস যোগ্য নয়। এভাবে ধর্মীয় শিক্ষায় শিক্ষিত আলীম ও পথ ভ্রষ্ট হতে পারে, তার ভুঁড়ি ভুঁড়ি প্রমাণ পত্রিকায় আসে। নাউজূবিল্লা।

Raju

২০২১-০৪-০৯ ১৪:৫৫:২৫

এসকল হুজুর রা ইসলাম তথা দেশ ও জাতীর শত্রু,এরাই ইসলাম ধর্ম কে ধ্বংশ করছে। কঠোর শাস্তি চাই।

রাজা

২০২১-০৪-০৯ ১৪:৪১:০২

আমি এখানে আমাদের দেশের ধর্মীয় নেতাদের বক্তব্য জানতে চাই । আমার জানামতে , এ ধরনের খবরের বিষয়ে তাঁরা মন্তব্য করে না । আম জনতারে তো অনেক কিছু বলা হয়............ নাস্তিক , মুরতাদ, কাফের বলতেও বাঁধে না । এরা তাহলে কি ?

শিকদার

২০২১-০৪-০৮ ২৩:৪২:১৪

আনিস উল হক সাহেব, ইউরোপ, আমেরিকা আর ইসরায়েলে এই ঘটনা অহরহ হয় তাই খবর হয়না। এই সব শিক্ষকরা মাদ্রাসায় শুধু পরেছে কিন্তু সত্যিকারের আলেম হতে পারেননি।

আনিস উল হক

২০২১-০৪-০৮ ২৩:২৬:১৪

আমাদের হুজুররা কেন এই অনাচারে লিপ্ত হয় এ নিয়ে একটি গবেষণা হওয়া প্রয়োজন । তারা, কি এমন পুঁথি - কেতাব পড়ে যা তাদের এই অনাচারে লিপ্ত হতে আকাঙ্ক্ষী করে তুলে ! অনেক হুজুর অপকর্মের সাফাই দেয় যে শয়তানের ধোঁকায় পড়ে সেটি সে করেছে। শয়তান ইউরোপ আমেরিকা ইসরাইল ছেড়ে কি আমাদের হুজুরদের বাসা বাড়িতেই এখন ঘাঁটি গেড়ে বসেছে?

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

সরকারি নথি সরানোর অভিযোগ

প্রথম আলোর সাংবাদিককে আটকের পর পুলিশে সোপর্দ

১৭ মে ২০২১

পুলিশের এএসআই বরখাস্ত

কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারতফেরত তরুণীকে ধর্ষণ

১৭ মে ২০২১



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



জেরুজালেম পোস্টের মূল্যায়ন

ছোট যুদ্ধে ইসরাইল, দীর্ঘ যুদ্ধে জিতবে হামাস

DMCA.com Protection Status