বৃহত্তর ঐক্যের ডাক ড. কামাল হোসেনের

স্টাফ রিপোর্টার

প্রথম পাতা ৭ মার্চ ২০২১, রোববার

জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আরো বৃহত্তর ঐক্য গড়ার কথা জানিয়েছেন গণফেরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। গতকাল বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে গণফোরাম আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আহ্বান জানান। ড. কামাল হোসেন বলেন, আপনারা সবাই জানেন আজ সমাজের কি অবস্থা। সব সমস্যা সংকট আকার ধারণ করেছে। এ সংকট থেকে উত্তরণের জন্য আমাদের ঐক্যের প্রয়োজন। এই সংকট থেকে উত্তরণের একমাত্র পথ হলো জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে এবং আমাদের লেগে থাকতে হবে, যাতে করে সরকার বাধ্য হয় এগুলো থেকে সরে দাঁড়াতে। যদি আমরা ঐক্যবদ্ধ না হই, তাহলে সুশাসন পাওয়া অসম্ভব। দেশে সুশাসন না থাকলে আমাদের সামনে যে কঠিন সমস্যাগুলো আছে তা থেকে উত্তরণ করা সম্ভব না।

তিনি বলেন, এ সরকার দেশে যে অবস্থা তৈরি করছে যেখানে জনগণের চাওয়া, জনগণের কথা এসব সামনে না এনে এর উল্টোটা সামনে নিয়ে আসা হচ্ছে। যাতে করে মানুষ আরো বিভ্রান্ত হয়। এতে করে জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষা পূরণ না হয়ে তার উল্টোটা হচ্ছে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট কার্যকর আছে বলেও জানান ড. কামাল হোসেন। গণফোরামের একাংশের দল থেকে বের হয়ে যাওয়ার বিষয়ে ড. কামাল বলেন, কোনো দল থেকে কিছু লোক বেরিয়ে গিয়ে বিকল্প বক্তব্য রাখতে পারে, বিকল্প ভূমিকা রাখতে পারে। আমি মনে করি, আমাদের দল সঠিকভাবে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাচ্ছে। জনগণের দল হিসেবে তাদের পাশে থাকবে। আর গণফোরাম দু’টি এমন বলার কোনো কারণ নেই। তারা কিছু লোক বেরিয়ে গেছে। তারা বেরোতেই পারে। কাউকে তো বাধ্য করে রাখা যায় না। তাদেরকে জিজ্ঞাসা করতে পারেন, কেন দল ছেড়েছে? আর তারা যদি বোঝাতে পারে, আপনারা সেভাবে বুঝবেন। আমার কথা হলো, যারা গণফোরাম করেছি, এখনো করে যাচ্ছি, তারা জনগণের ঐক্যের ওপর ভরসা করে মাঠে আছি।
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাদ দেয়া উচিত মন্তব্য করে তিনি বলেন, ডিজিটাল আইনের কথা বলে মানুষের বাক স্বাধীনতা ও চিন্তার স্বাধীনতার ওপর যেভাবে আঘাত করা হচ্ছে, সেখান থেকে আমাদের সমাজকে পুরোপুরিভাবে মুক্ত করতে হবে।
এর আগে লিখিত বক্তব্যে গণফোরাম আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মোকাব্বির খান এমপি বলেন, গণতন্ত্র, আইনের শাসন ও দুর্নীতিমুক্ত জনপ্রশাসন এর মাধ্যমে জনগণের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক অধিকার সুনিশ্চিত করার স্বপ্ন নিয়ে জনগণ বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে মহান স্বাধীনতা অর্জন করেছে। কিন্তু স্বাধীনতার ৫০ বছরেও জনগণের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য আমরা অর্জন করতে পারিনি। গত অর্ধ শতাব্দীতে আমাদের অনেক অর্থনৈতিক অগ্রগতি হয়েছে, মাথাপিছু আয় বেড়েছে, কিন্তু বৈষম্য কমেনি। তিনি বলেন, আজ যারা নিজেদের নির্বাচিত দাবি করে দেশ শাসন করছে, তাদের প্রতি জনগণের আস্থা বিশ্বাস ও সমর্থন নেই। ৩০ লাখ শহীদের রক্তে, ২ লক্ষ নির্যাতিত মা-বোনের ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতা আজ নতজানু নীতি গ্রহণ করেছে। দেশে আজ গণতন্ত্র ও আইনের শাসনের পরিবর্তে দুর্নীতি-দুঃশাসনের স্বর্গরাজ্য গড়ে উঠেছে। জনগণের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। সামনে অগ্রসর হওয়া ছাড়া জনগণের আর কোনো বিকল্প নেই। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন গণফোরাম আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আওম শফিকুল্লাহ, এডভোকেট জানে আলম, সুরাইয়া খান, মোস্তাক আহমেদ প্রমুখ।

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

সন্ধ্যায় সিদ্ধান্ত বদল

দিনভর লঙ্কাকাণ্ড

১৪ এপ্রিল ২০২১

শুরু হলো নাজাতের মাস

১৪ এপ্রিল ২০২১

তাকওয়া, আত্মশুদ্ধি, আত্মসংযমের মাস রমজান। গতবারের মতো এবারো বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনাভাইরাসের কঠিন দুর্যোগের মধ্যে এসেছে ...

জাতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী

সবার আগে জীবন

১৪ এপ্রিল ২০২১

ছুটির নোটিশ

১৪ এপ্রিল ২০২১

পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে আজ দৈনিক মানবজমিন-এর সকল বিভাগ বন্ধ থাকবে। আগামীকাল পত্রিকা প্রকাশিত হবে না। ...

হার্ড লকডাউন

কি করা যাবে কি করা যাবে না

১৩ এপ্রিল ২০২১

১০,০০০ ছুঁই ছুঁই মৃত্যু

১৩ এপ্রিল ২০২১

করোনায় আক্রান্ত মৃত্যুর মিছিলে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৮৩ জন যোগ হয়েছেন। দেশে করোনায় আক্রান্ত ...

অসহায়

১২ এপ্রিল ২০২১

সংবাদ সম্মেলনে বাবুনগরী

মামুনুল হকের ঘটনা ব্যক্তিগত

১২ এপ্রিল ২০২১

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের রিসোট কাণ্ডের বিষয়টি তার ব্যক্তিগত বলে জানিয়েছেন হেফাজতের ...



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত



সন্ধ্যায় সিদ্ধান্ত বদল

দিনভর লঙ্কাকাণ্ড

একদিনে ৭৪ জনের মৃত্যু, করোনার আফ্রিকার ধরনের ভয়ঙ্কর বিস্তার

মানবিক বিপর্যয়ের আশঙ্কা

১০ ঘণ্টায় সাত হাসপাতাল ঘুরে ঠাঁই হয়নি কোথাও

যদি একটা সিট মিলে

প্রধানমন্ত্রীকে বাইডেনের আমন্ত্রণপত্র হস্তান্তর

ঢাকায় কেরির ব্যস্ত ৬ ঘণ্টা

DMCA.com Protection Status