ভালো নেই কিশোর, হাসপাতালে নানা পরীক্ষা

স্টাফ রিপোর্টার

প্রথম পাতা ৬ মার্চ ২০২১, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:৪৩ অপরাহ্ন

ভালো নেই সদ্য কারামুক্ত কার্টুনিস্ট আহমেদ কবীর কিশোর। তিনি কারাগারে থাকার সময় প্রায় নয় কেজি ওজন হারিয়েছেন, ডায়াবেটিসের মাত্রা বেড়েছে, কানে পুঁজ জমে শুনতে সমস্যা হচ্ছে, ঠিকমতো হাঁটতে পারেন না। এ ছাড়াও তার কথা বলতে সমস্যা হচ্ছে। কোনো কিছু স্মরণ করতেও অসুবিধা হচ্ছে। ১০ মাস কারাভোগের পর গত বৃহস্পতিবার জামিনে মুক্তি পাওয়ার পর পরই ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন কিশোর। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের অধীনে তিনি চিকিৎসাধীন আছেন। হাসপাতালে তার কান ও চোখের পরীক্ষা করা হয়েছে। করা হয়েছে বাঁ পায়ের এক্সরেও।
তবে পায়ে অত্যধিক ব্যথার কারণে কিশোরের হাঁটতে কষ্ট হচ্ছে। আপাতত কিশোরের কাছ থেকে মোবাইল দূরে রাখা হয়েছে। যেসব পরীক্ষা করা হচ্ছে, আজকালের মধ্যে তার প্রতিবেদন পাওয়া যাবে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

কিশোর মুক্ত হওয়ার পর গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন যে, তাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার পর অজ্ঞাত স্থানে ৬৯ ঘণ্টা কার্টুন নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছে। এরপর স্টিলের পাত বসানো লাঠি দিয়ে পায়ে পেটাতে থাকে তারা। শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালানো হয়েছে। তারা কানে মারার কারণে কান দিয়ে রক্ত পড়তে থাকে। কানে পুঁজও জমেছে।
এ বিষয়ে কিশোরের ভাই আহসান কবির গতকাল মানবজমিনকে জানান, কিশোরের ৯ কেজি ওজন কমেছে। ব্লাডে সুগারের মাত্রা বেড়েছে। তিনি আরো জানান, কিশোরকে ধরে নিয়ে যাওয়ার পর নির্যাতন করা হয়েছে বলে সে পরিবারকে জানিয়েছে। হঠাৎ কিছু স্মরণ করতে পারছে না। সময় নিয়ে স্মরণ করছে।

২০২০ সালের ৫ই মে কার্টুনিস্ট কিশোর এবং লেখক মুশতাক আহমেদকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। সরকারবিরোধী প্রচার ও গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তাদের বিরুদ্ধে রমনা থানায় মামলা করা হয়। একই মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া আরো দু’জনের জামিন হলেও কিশোর ও মুশতাকের জামিন হয়নি। এর মধ্যে মুশতাক গত ২৫শে ফেব্রুয়ারি কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে মারা যান। তার মৃত্যু নিয়ে ঢাকাসহ সারা দেশে আন্দোলনে নামে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনসহ অন্যান্য সংগঠন। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে তদন্ত রিপোর্টের বরাতে জানানো হয়েছে, তার মৃত্যু স্বাভাবিকভাবেই হয়েছে। বুধবার হাইকোর্ট কিশোরকে ছয় মাসের জামিন দেয়।

 

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Nayeem

২০২১-০৩-০৫ ১২:১৭:৫৫

কারাগারের ১০মাসে কিশোরের প্রায় নয় কেজি ওয়েট লস্ট, কানে পুঁজ জমা ও শুনতে সমস্যা হওয়া, কালশিটে পড়া পায়ে ঠিকমতো হাঁটতে না পারা, ডায়াবেটিসের মাত্রা বৃদ্ধি, স্মরণ শক্তি হ্রাস পাওয়া- এসব কিছুও কি স্বাভাবিক? নাকি সংক্ষুব্ধ ব্যক্তির আত্মপক্ষ সমর্থন?

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

সন্ধ্যায় সিদ্ধান্ত বদল

দিনভর লঙ্কাকাণ্ড

১৪ এপ্রিল ২০২১

শুরু হলো নাজাতের মাস

১৪ এপ্রিল ২০২১

তাকওয়া, আত্মশুদ্ধি, আত্মসংযমের মাস রমজান। গতবারের মতো এবারো বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনাভাইরাসের কঠিন দুর্যোগের মধ্যে এসেছে ...

জাতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী

সবার আগে জীবন

১৪ এপ্রিল ২০২১

ছুটির নোটিশ

১৪ এপ্রিল ২০২১

পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে আজ দৈনিক মানবজমিন-এর সকল বিভাগ বন্ধ থাকবে। আগামীকাল পত্রিকা প্রকাশিত হবে না। ...

হার্ড লকডাউন

কি করা যাবে কি করা যাবে না

১৩ এপ্রিল ২০২১

১০,০০০ ছুঁই ছুঁই মৃত্যু

১৩ এপ্রিল ২০২১

করোনায় আক্রান্ত মৃত্যুর মিছিলে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৮৩ জন যোগ হয়েছেন। দেশে করোনায় আক্রান্ত ...

অসহায়

১২ এপ্রিল ২০২১

সংবাদ সম্মেলনে বাবুনগরী

মামুনুল হকের ঘটনা ব্যক্তিগত

১২ এপ্রিল ২০২১

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের রিসোট কাণ্ডের বিষয়টি তার ব্যক্তিগত বলে জানিয়েছেন হেফাজতের ...



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত



সন্ধ্যায় সিদ্ধান্ত বদল

দিনভর লঙ্কাকাণ্ড

একদিনে ৭৪ জনের মৃত্যু, করোনার আফ্রিকার ধরনের ভয়ঙ্কর বিস্তার

মানবিক বিপর্যয়ের আশঙ্কা

১০ ঘণ্টায় সাত হাসপাতাল ঘুরে ঠাঁই হয়নি কোথাও

যদি একটা সিট মিলে

প্রধানমন্ত্রীকে বাইডেনের আমন্ত্রণপত্র হস্তান্তর

ঢাকায় কেরির ব্যস্ত ৬ ঘণ্টা

DMCA.com Protection Status